Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

কয়েক মাসেই শেষ হয়ে যায় করোনা প্রতিরোধ ক্ষমতা!

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ক্ষমতা মাত্র কয়েক মাস স্থায়ী হতে পারে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনের এক গবেষণায় এই তথ্য জানানো হয়েছে। গবেষকরা দেখেছেন, সেপ্টেম্বরে যখন করোনা সংক্রমণ আবার বাড়তে শুরু করেছে তখন মাত্র ৪ দশমিক ৪ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে কিছুটা প্রতিরোধ ক্ষমতা ছিল।

গত ২০ জুন থেকে ১৩ জুলাইয়ের মধ্যে ৬ শতাংশ ও ৩১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্টের মধ্যে ৪ দশমিক ৮ শতাংশ মানুষের শরীরে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পাওয়া যায়। বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, রিয়েল-টাইম অ্যাসেসমেন্ট অফ কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের (প্রতিক্রিয়া-২) গবেষণায় দেখা গেছে যে প্রতিরোধ ক্ষমতা ‘বেশ দ্রæত হ্রাস পাচ্ছিল’, যা পুনরায় সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে। ইংল্যান্ডে করোনাভাইরাস অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পরিমাপ করতে জুনের শেষ থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রায় ৩ লাখ ৬৫ হাজার ১০৪ জন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষ এই গবেষণার জন্য তিন দফা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন। সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, তিন মাসের সময়কালে অ্যান্টিবডির স্তর সামগ্রিকভাবে ২৬ দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে। ১৮ থেকে ২৪ বছর বয়সীদের মধ্যে অ্যান্টিবডিগুলির সর্বাধিক প্রসার ছিল এবং অ্যান্টিবডি স্তরে সর্বনিম্ন হ্রাস ছিল ১৪ দশমিক ৯ শতাংশ। এদিকে, ৭৫ বছর বা তার চেয়ে বেশি বয়সের লোকের শরীরে অ্যান্টিবডির সর্বনিম্ন উপস্থিতি দেখা গেছে। তাদের শরীরে অ্যান্টিবডির হ্রাসের মাত্রা ছির ৩৯ শতাংশ।

বিজ্ঞানীরা বলেছেন, অ্যান্টিবডিগুলি কী পরিমাণ স্তর প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করে, বা এই অনাক্রম্যতা কত দিন স্থায়ী তা এখনও স্পষ্ট নয়। ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনের সংক্রামক রোগের অধ্যাপক গ্রাহাম কুক বলেন, ‘এখানে বড় চিত্রটি হ’ল প্রথম তরঙ্গ (করোনাভাইরাস) এর পরেও দেশের বেশিরভাগ অংশের কাছে সুরক্ষা প্রতিরোধের প্রমাণ নেই।’ তিনি বলেন, ‘সুতরাং আমরা ইতিমধ্যে আক্রান্ত লোকদের মধ্যে অ্যান্টিবডির অনুপাতিক হ্রাস দেখতে পাচ্ছি। তবে আমাদের এখনও অনেক লোক রয়েছে যারা নিজেদের প্রকাশ করতে চান না। তাই সবাইকে সুরক্ষিত রাখতে একটি ভ্যাকসিনের প্রয়োজনীয়তা খুবিই বেশি।’ সূত্র : ইভনিং স্টান্ডার্ড।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন