Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১২ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

প্রতিবাদে উত্তাল ঢাকা

নবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশে ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাও শান্তিনগরে মিছিলে পুলিশের বাধা : সংসদে ম্যাখোঁর বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব পাসের দাবি বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় মিছিল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

ফ্রান্সে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় নবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র কার্টুন প্রদর্শনে সারাবিশ্বে প্রতিবাদের ঢেউ উঠেছে। ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বের বহুদেশ। বাংলাদেশের তৌহিদী জনতা ফুঁসে উঠেছেন। দেশের ইসলামী ধারার রাজনৈতিক দলগুলোর একের পর এক প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করছেন। বাতিল প্রতিরোধ পরিষদ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, মোহাম্মদপুর কাদেরিয়া তৈয়্যবিয়া আলিয়া মাদরাসা, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ঢাকার গুলশানস্থ ফ্রান্স দূতাবাস ঘেড়াও কর্মসূচি পালন করে। ফ্রান্সের ব্যঙ্গচিত্র কার্টুনের প্রতিবাদে মিছিলে মিছিলে উত্তাল হয়ে উঠে ঢাকা মহানগরী। রাজধানী ঢাকার বাইরে কয়েকটি জেলা ও উপজেলায়ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন তৌহিদী জনতা। সবার মুখে এক ছিল একই শ্লোগান ‘ফ্রান্সের পণ্য বর্জন করো/ ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের ম্যাখোঁর বিচার করতে হবে’।

বায়তুল মোকাররম মসজিদ থেকে গুলশানস্থ ফ্রান্স দূতাবাস ঘেড়াও কর্মসূতিতে পথে মিছিলে জনশ্রোতের সৃষ্টি হয়। প্রকম্পিত হয়ে উঠে ঢাকা মহানগর রাজপথ। প্রতিবাদী মিছিল শান্তিনগরে আটকে দেয়া হলেও দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলায় একই দাবিতে মিছিল হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবারও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের ম্যাখোঁর বিচার এবং দেশটির পণ্য বর্জনের দাবিতে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে ঈমানদার মুসল্লিরা বিক্ষোভ করেন। নবী প্রেমিক মুসল্লিরা ফ্রান্সে নবীর ব্যঙ্গচিত্র কার্টুন প্রকাশের প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীমের নেতৃত্বে হাজার হাজার মুসল্লি ঢাকাস্থ ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি পালন করেন। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইট থেকে বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে দূতাবাস ঘেরাও করার লক্ষ্যে বিশাল মিছিল শান্তিনগর বাজারের সামনে পৌঁছলে পুলিশি বাধার সম্মুখীন হয়। এসময় পুলিশ ও বিক্ষোভকারী মুসল্লিদের মাঝে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে।

বিক্ষোভ সমাবেশে পীর সাহেব চরমোনাই নবী (সা.) ব্যঙ্গচিত্র কার্টুন প্রকাশের প্রতিবাদে আগামীকাল বৃহস্পতিবার সারাদেশের জেলা ও মহানগরে বিক্ষোভ কর্মসূচি, আগামী শুক্রবার মসজিদের ইমাম খতিবদের প্রতি নবী (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে বক্তব্য প্রদান এবং সকল মসজিদ থেকে সাধারণ মুসল্লিদের প্রতিবাদ মিছিল বের করার অনুরোধ জানান। এছাড়া আজ বুধবার বাদ যোহর ইসলামী ঐক্যজোটের উদ্যোগে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইটে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। একই দাবিতে আগামী শুক্রবার বাদ জুমা সমমনা ইসলামী দলসমূহ, সম্মিলিত ইসলামী দলসমুহ এবং বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি বায়তুল মোকাররমে ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ: ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় নবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র কার্টুন প্রকাশ করায় সারাবিশ্বের মুসলমানদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে। গোটা বিশ্বে ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের মাধ্যমে ওদের উচিৎ শিক্ষা দিতে হবে। ফ্রান্সের কুলাঙ্গার প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁ প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাওয়া পর্যন্ত মুসলমানদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। ফ্রান্সে নবী (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে অচিরেই জাতীয় সংসদ ডেকে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করুন। ফ্রান্সের সাথে সকল প্রকার কূটনৈতিক সর্ম্পক ছিন্ন করতে হবে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইটে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর উদ্যোগে ফ্রান্সে নবী (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে ঢাকাস্থ ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাও পূর্ব বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্বের বক্তব্যে দলে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই এসব কথা বলেন।

দলের প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আব্দুল কাইয়ূমের পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, প্রেসিডিয়াম সদস্য আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজী, দলের মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুস আহমাদ, দলের রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা মাহবুবুর রহমান, মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, মাওলানা হাসান জামিল, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা ফজলে বারি মাসউদ, কে এম আতিকুর রহমান, মাওলানা লোকমান হোসেন জাফরী, মাওলানা নেছার উদ্দিন, জি এম রুহুল আমিন, মুফতি দেলাওয়ার হোসেন সাকী, মাওলানা কামাল উদ্দিন সিরাজী, মাওলানা এ বিএম জাকারিয়া ও মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, রাসুল (সা.) কে আল্লাহ দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন শান্তির দূত হিসেবে। ম্যাখোঁ কুলাঙ্গাররা জানে না মুসলমানরা অন্য ধর্মের কোনো নেতার বিরুদ্ধে ব্যঙ্গ বিদ্রপ করে না। পশ্চিমা দেশের কতিপয় কুলাঙ্গাররা কিছু দিন পর পরই ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে উষ্কানিমূল প্রচারণা চালিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়। পীর সাহেব ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জাতিসংঘের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

পীর সাহেব বিক্ষোভ সমাবেশে কতিপয় দাবি পেশ করেন। দাবিগুলো হচ্ছে, বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ফ্রান্স সরকারের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক নিন্দা জানাতে হবে, ফ্রান্সের সাথে বাংলাদেশের সবরকম কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে, ইসলাম ও রাসূলকে (সা.) অবমাননার জন্য ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে প্রকাশ্যে বিশ্ব মুসলিমের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে, অবিলম্বে ওআইসিতে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব আনতে হবে, বাংলাদেশে ইসলাম ও মহানবীর (স.) বিরুদ্ধে কটুক্তি বন্ধে কঠোর শাস্তির আইন পাশ করতে হবে, সারাবিশ্বের মুসলমানদের ইসলামবিদ্বেষী ফ্রান্সের পণ্য বর্জন করতে হবে, বিশ্ব মুসলিম নেতা এবং সাধারণ মুসলমানদেরকে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ বিক্ষোভ অব্যাহত রাখতে হবে, যেসমস্ত মুসলিম রাষ্ট্রপ্রধান ইতোমধ্যে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে সাহসী বক্তব্য ও নিন্দা জানিয়েছেন এবং ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানানো হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ফ্রান্স সরকার রাষ্ট্রীয়ভাবে পুলিশ পাহারায় মুহাম্মদ (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে মুসলিম উম্মাহ’র কলিজায় আঘাত করা হয়েছে। ফ্রান্স সরকার ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। ফ্রান্স সরকারের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া বিশ্বের মুসলমানদের নৈতিক ও ঈমানি দায়িত্ব। নেতৃবৃন্দ বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েও একজন কুলাঙ্গার শিক্ষা সালাম ও আল্লাহ হাফেজের বিরুদ্ধে উষ্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে মুসলমানদের হ্নদয়ে চরম আঘাত হেনেছে। তারা এ কুলাঙ্গার শিক্ষককে অবিলম্বে অপসারণের দাবি জানান। পরে ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাও এর লক্ষ্যে পীর সাহেব চরমোনাইয়ের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শান্তিনগর বাজারের সামনে পৌঁছলে পুলিশি বাধার সম্মুখীন হয়। মিছিলে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। সেখানে পুলিশ ও মিছিলকারীদের মাঝে কিছুক্ষণ ধাক্কাধাক্কি হয়।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ঢাকা মহানগরী : জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসূফী বলেছেন, হাদীসের ভাষায় আল্লাহর রাসূল (সা.) কে পিতা-মাতা, সন্তান-সš‘তিসহ দুনিয়ার সবার চেয়ে বেশি ভাল বাসতে না পারলে প্রকৃত ঈমানদার হওয়া যায় না। তাই তাঁর ইজ্জতে কোন প্রকার আঘাত আসলে কিংবা তাঁকে ব্যঙ্গ করা হলে কোন মুসলমান চুপ করে বসে থাকতে পারেনা। তাঁর সম্মান ও মর্যাদা রক্ষায় শহীদ হতে পেরেও প্রকৃত মুসলমান গর্ববোধ করে। তিনি ফ্রান্সের অর্থনীতিতে ধ্বস নামাতে ফ্রান্সের সকল প্রকার পণ্য বর্জনের আহ্বান জানিয়ে বলেন, যার যতটুকু সামর্থ আছে তাকে ততটুকু নিয়ে নবীর ইজ্জত রক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে। ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় মহানবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে জমিয়তের উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে গতকাল বাদ আসর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইটে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি এ পর্যন্ত এই ঘটনার সরকারিভাবে নিন্দা না জানানোর জন্য বাংলাদেশ সরকারের কড়া সমালোচনা করে বলেন, অবিলম্বে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে এর প্রতিবাদ জানাতে হবে।

দলের কেন্দ্রীয় মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর সভাপতি মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দীর সভাপতিত্বে এবং কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও নগর জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মতিউর রহমান গাজিপুরীর পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে মধুপুর পীর সাহেব মাওলানা আব্দুল হামিদ। এতে আরো আরো বক্তব্য রাখেন, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা তাফাজ্জুল হক আজীজ, মুফতী বশিরুল হাসান খাদিমানী, মাওলানা জয়নাল আবেদীন, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস (মানিকনগর), মাওলানা লোকমান মাজহারী, মাওলানা মাহবুবুল আলম, মাওলানা ইখলাসুর রহমান, মাওলানা হেদায়েতুল ইসলাম, মাওলানা নূর মুহাম্মাদ কাসেমী, মাওলানা নূরে আলম ইসহাকী ও মাওলানা আব্দুস সালাম। মধুপুর পীর সাহেব মাওলানা আব্দুল হামিদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী একজন মুসলমান। উনি কী দেখেন না এ দেশের মুসলমানরা কী চান। আপনি একজন মুসলমান হিসেবে সিদ্ধান্ত নিন আপনি ফ্রান্সের কুলাঙ্গার প্রেসিডেন্টের পক্ষে থাকবেন না নবী (সা.) এর পক্ষে থাকবেন।

সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী বলেন, বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.) এর মর্যাদা রক্ষায় মুসলমানেরা জীবন দিতে প্রস্তুত আছে। তিনি ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর তীব্র সমালোচনা করে বলেন, এই মূহুর্তে তার থাকা উচিৎ পাগলাগারদে। এই রকম একজন গর্ধবতুল্য ও মস্তিস্ক বিকৃত মানুষের রাষ্ট্রপ্রধান হওয়া কিছুতেই মানায়না। তিনি আগামী শুক্রবার বাদ জুমা সমমাননা ইসলামী দলসমূহের গণজমায়েত ও বিক্ষোভ মিছিল সফল করারও আহ্বান জানান। পরে একটি বিশাল মিছিল বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইট থেকে বের হয়ে নাইট্যাঙ্গেল গিয়ে শেষ হয়।

মোহাম্মদপুর কাদেরিয়া তৈয়্যবিয়া আলিয়া মাদরাসার : মোহাম্মদপুর তৈয়্যেবিয়া আলিয়া মাদরাসার প্রিন্সিপাল আল্লামা হাফেজ আবদুল আলিম রিজভী গতকাল বলেছেন, সম্প্রতি ফ্রান্সে প্রিয় নবী (সা.) এর অবমাননাকর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনে বিশ্ব মোড়লদের নিরবতা, ওআইসি, আরবলীগের অভিভাবকহীন মানসিকতা, জাতিসংঘের খেয়ালিপনায় বিশ্ববিবেককে নাড়া দিয়েছে। তিনি অবিলম্বে জাতিসংঘসহ সকল অভিভাবক সংস্থাকে নবী (সা.) ও ধর্মের প্রতি বিদ্বেষপোষণকারীদের শাস্তির আওতায় আনার বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানান। গতকাল মঙ্গলবার মোহাম্মদপুরে জশনে জুলুছ শেষে মোহাম্মদপুর মাদরাসার সামনে অনুষ্ঠিত মাহফিলে তিনি এ আহবান জানান।

বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি : বিশ্ব মুসলিমের প্রতি ফ্রান্সকে সর্বাত্মক বয়কট করার জন্য বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমীর আল্লামা সরওয়ার কামাল আজিজী ও মহাসচিব মাওলানা মুসা বিন ইযহার জোর দাবি জানিয়েছেন। এক বিবৃতিতে তারা বলেন, নবীজির অবমাননা মুসলমানরা কিছুতেই বরদাশত করবেন না। ফ্রান্স সরকার নবীর বিরুদ্ধে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের মাধ্যমে বিশ্বমুসলিমকে উস্কে দিয়ে ধর্মযুদ্ধ বাধানোর ষড়যন্ত্র করছে। বিবৃতিতে তারা আরও উল্লেখ করেন, ফ্রান্স সরকারকে অবশ্যই উস্কানিমূলক কর্মকান্ড বন্ধ করে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। অবিলম্বে এ ধৃষ্টতাপূর্ণ ব্যঙ্গচিত্র প্রচার বন্ধ করতে হবে। এর অন্যথায় সারাবিশ্বের মুসলমানরা রাজপথে নামতে বাধ্য হবে। দেশে দেশে ছড়িয়ে পড়বে প্রতিবাদের দাবানল।

তারা বলেন, ফ্রান্স সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা না চাইলে অবিলম্বে বাংলাদেশে ফ্রান্স দূতাবাস বন্ধ করে দেয়া হোক। রাষ্ট্রীয়ভাবে ফ্রান্সের কর্মকান্ডের প্রতিবাদ না জানালে সারাদেশের মানুষ রাস্তায় নামতে বাধ্য হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তারা।

বাতিল প্রতিরোধ পরিষদ : বাতিল প্রতিরোধ পরিষদের সভাপতি হাজী জালাল উদ্দিন বকুল বিবৃতিতে বলেন, ফ্রান্সের কুলাঙ্গার প্রেসিডেন্ট নবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করে বিশ্ব মুসলিমের কলিজায় আঘাত হেনেছে। কারণ মুসলমানরা তাদের নবী মুহাম্মদ (সা.)কে প্রাণের চেয়ে বেশি ভালোবাসে। নবীজির অবমাননা মুসলমানগণ কিছুতেই বরদাশত করবে না। ফ্রান্স সরকার নবীর বিরুদ্ধে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের মাধ্যমে ধর্মযুদ্ধ বাধানোর ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি সকল ঈমানদার মুসলমানকে ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের জোর দাবি জানান।

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চট্টগ্রামে বিক্ষোভ সমাবেশ অব্যাহত আছে। বিভিন্ন ইসলামী সংগঠনের পাশাপাশি সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকেও প্রতিবাদ, মানববন্ধন ও মিছিল সমাবেশ হচ্ছে। এসব সমাবেশ থেকে ফ্রান্সের সাথে ক‚টনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার দাবি উঠেছে। আনজুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়া চট্টগ্রাম মহানগর শাখার উদ্যোগে প্রেসক্লাব চত্বরে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ মাইজভান্ডারী ট্রাস্টের মহাসচিব অ্যাডভোকেট কাজী মহসীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন আনজুমানের সাবেক সভাপতি মুহাম্মদ ইকবাল রিসালপুরী। বক্তব্য রাখেন মুহাম্মদ কবির চৌধুরী, বোরহান উদ্দিন, প্রমুখ।

জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া মাদরাসা
জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদরাসা সভাপতি প্রফেসর মোহাম্মদ দিদারুল ইসলাম, অধ্যক্ষ মুফতি সৈয়্যদ মুহাম্মদ অছিয়র রহমান, উপাধ্যক্ষ ড. মাওলানা মুহাম্মদ লিয়াকত আলী, মুফতী কাযী মুহাম্মদ আবদুল ওয়াজেদ প্রমুখ যৌথ বিবৃতিতে ফ্রান্সে হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর ব্যাঙ্গাত্মক কার্টুন প্রকাশের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত
জমিয়তুল ফালাহ ময়দানে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে অনুষ্ঠিত জশনে জুলুছপূর্ব এক সমাবেশে প্রধান ছিলেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ আল্লামা জয়নুল আবেদীন জুবাইর । প্রিন্সিপাল কাজী মাওলানা আব্দুল হান্নানের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রিন্সিপাল আল্লামা এস এম ফরিদ উদ্দীন, মাওলানা কাজী জসীম উদ্দীন, এম সোলায়মান ফরিদ, প্রিন্সিপাল আল্লামা কাজী আনোয়ারুল ইসলাম খান, প্রমুখ।

গাজীপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, গাজীপুরে বিক্ষোভ করেছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ গাজীপুর জেলা শাখা। মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গন থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গিয়ে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। হেফাজতে ইসলাম গাজীপুর জেলা শাখার সভাপতি মুফতি মাসুদুল করিমের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মুফতি লেহাজ উদ্দিন ভূইয়া, মুফতি আতাউর রহমান, মুফতি আব্দুল মান্নান, মাওলানা ফজলুর রহমান, মুফতি নাসির উদ্দিন, প্রমুখ।

হাটহাজারী উপজেলা সংবাদাদাতা জানান, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ হাটহাজারী উপজেলা শাখা আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে হেফাজত মহাসচিব শায়খুল হাদিস আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, ২০১৫ সালে ফ্রান্সের কুখ্যাত রম্য পত্রিকা শার্লি এবদো কর্তৃক বিশ্ব মানবতার মুক্তিদূত হযরত মুহাম্মদ (স.)এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশের পর মুসলমানদের হৃদয়ে যে রক্তক্ষরণ সৃষ্টি হয়েছিল তার রেশ কাটতে না কাটতেই রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় আবারো মহানবী (স.)কে অবমাননায় বিশ্ব মুসলিম চরমভাবে ব্যথিত ও ক্ষুব্ধ। হাটহাজারী উপজেলা হেফাজতের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জীর সভাপতিত্বে এতে আরও উপস্থিত ছিলেন হাটহাজারী উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও হেফাজতের শুরা সদস্য মাওলানা নাছির উদ্দিন মুনির,হাটহাজারী ওলামা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হাটহাজারী উপজেলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জাফর আহমদ,হেফাজত হাটহাজারী পৌরসভা শাখার সভাপতি মাওলানা মীর ইদ্রিস,মাওলানা হাফেজ আলী আকবর প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।

জাবি সংবাদদাতা জানান, মানববন্ধন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। গতকাল বেলা দুইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী এ কর্মসূচিতে অংশ নেয়। এই সময় বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা ফ্রান্সের জাতীয় পতাকা প্রজ্জ্বলন করে প্রতিবাদ করে। এসময় শিক্ষার্থীরা ফ্রান্সের পণ্য বয়কট, অতিদ্রুত ব্যঙ্গচিত্র অপসারণ ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে ক্ষমা চাওয়ার আহবান জানান।

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, উলামায়ে কেরাম ও নবীপ্রেমিক তৌহিদী জনতার উদ্যোগে ময়মনসিংহের ফুলপুরে মঙ্গলবার বেলা ২টার দিকে এক বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। মিছিলটি ফুলপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে শুরু হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও উপজেলা প্রশাসনিক ভবনের গেইট পর্যন্তসহ প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কাড়াহা মদীনাতুল উলূম মাদরাসার মুহতামিম যুব জমিয়াতে উলামায়ে ইসলাম ফুলপুর শাখার সভাপতি হাফেজ মাওলানা মাহমুদুর রহমান মানিক, সাংগঠনিক সম্পাদক মারকাজুন নূর আল গিয়াছ মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মাহমুদ হাসান উসামা, অত্র সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তারাকান্দার মাওলানা আবুল হুসাইন খান, ফুলপুরের মাওলানা নূরুল্লাহ, হাফেজ তায়েব, মুফতী মাহমুদুল হাসান প্রমুখ।

ইসলামী ছাত্র মজলিস: ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয়ভাবে মহানবীর (সা.) অবমাননার প্রতিবাদে ঢাকায় ইসলামী ছাত্র মজলিসের বিক্ষোভ-মিছিল গতকাল বাদ আসর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্র মজলিস ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ সভাপতি ইমরান হোসাইনের সভাপতিত্বে ও মুহাম্ম্দ ইসমাইল খন্দকারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মিছিলপূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় সভাপতি মনসুরুল আলম মনসুর। অন্যাণ্যের মধ্যে বক্তব্য রাখের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মো. আবদুল জলিল, এডভোকেট তাওহিদুল ইসরাম তুহিন, মাওলানা ইলিয়াস আহমদ, সাবেক সেক্রটারী জেনারেল সেলিম হোসাইন, মাওলানা আবদুল হক আমিনী, আহসান আহমদ খান, মো. আবু সালেহ। সমাবেশ শেষে নগরীতে এক বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

সমাবেশে ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয়ভাবে মহানবীর (সা.) অবমাননার তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে ফরাসী প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রাঁকে বিশ্ব মুসলিমের কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান বক্তারা। তারা বাংলাদেশ সরকারকে অনুষ্ঠানিকভাবে ফরাসী রাষ্ট্রদূতকে ডেকে মহানবীর (সা.) অবমাননার প্রতিবাদ জানানোর দাবি জানান।

আলহাজ মাওলানা শাহ্ মোহাম্মাদ মোহেব্বুল্লাহ: বাংলাদেশ জমইয়াতে হিযবুল্লাহর আমীর ছারছীনা শরীফের আ’লা হযরত পীর ছাহেব আলহাজ মাওলানা শাহ মোহাম্মাদ মোহেব্বুল্লাহ এক বিবৃতিতে বলেন, আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছি যে, ইসলাম বিদ্বেষী ইহুদী-নাসারা চক্র ইসলাম, মুসলামান ও ইসলামের নবী (সা.) কে নিয়ে ক্রমাগত ভাবে কুৎসা রটনা, ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রকাশ, কুরুচিপূর্ণ সাহিত্য রচনা এবং হিংসা-বিদ্বেষ উস্কে দেয়ার মত ঘটনা একের পর এক সংঘটিত করে চলেছে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কাল্পনিক ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন ছবি প্রকাশ্যে টানানো হয়েছে। নবীজীর জন্মের মাস মাহে রবিউল আউয়ালে যখন বিশ^ মুসলিম আনন্দে উদ্বেলিত হয়ে তাঁর আদর্শকে আঁকড়ে ধরার শপথ নিয়ে থাকে ঠিক তখনি তাদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। বিপথগামী কেউ এহেন ঘৃণ্য কাজ করে থাকলে রাষ্ট্রীয় প্রশাসন যন্ত্রের হস্তক্ষেপে তাকে নিবৃত করা হলে বিষয়টি অঙ্কুরেই শেষ হয়ে যেত। কিন্ত ফ্রান্স দেশের কর্ণধার যখন এই ঘৃণ্য কর্মকে বাক স্বাধীনতা বলে সমার্থন করেন তখন ঠিকই প্রশ্ন জাগে তারা কী চায়?

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ : ফ্রান্সে মহানবীর (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে আগামী ৩০ অক্টোবর দেশব্যাপী বিক্ষোভের ঘোষণা দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। গতকাল মঙ্গলবার সংগঠনটির হাটহাজারী উপজেলা শাখা আয়োজিত এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংগঠনের মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী এই ঘোষণা দেন।

হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, ২০১৫ সালে ফ্রান্সের রম্য পত্রিকা শার্লি এবদো বিশ্ব মানবতার মুক্তিদ‚ত হযরত মোহাম্মাদ (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের পর মুসলমানদের হৃদয়ে যে রক্তক্ষরণ সৃষ্টি হয়েছিল তার রেশ কাটতে না কাটতেই রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় আবারো মহানবীকে (সা.) অবমাননায় বিশ্ব মুসলিম চরমভাবে ব্যথিত ও ক্ষুব্ধ। তিনি ঘোষিত কর্মসূচি সফল করার জন্য সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

হেফাজতে ইসলাম গাজীপুর জেলা শাখা : মহনবী (সা.)কে অবমাননার কারণে ফ্রান্সের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে। ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের মাধ্যমে ঈমানী পরিচয় দিতে হবে। গতকাল নবী (সা.) কে অবমাননার প্রতিবাদে হেফাজতে ইসলাম গাজীপুর জেলা শাখার উদ্যোগে গাজীপুরে বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। জেলা সভাপতি মুফতি মাসুদুল করিমের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন, মুফতি লেহাজ উদ্দিন, জেলা সেক্রেটারি মাওলানা ফজলুর রহমান, মুফতি আতাউর রহমান, মুফতি আ. মান্নান, মাওলানা নাছির উদ্দিন, মাওলানা মোখলেছুর রহমান, মাওলানা জুলফিকার হায়দার। পরে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড গওহরডাঙ্গা : ফ্রান্সে নবী (সা.) ব্যঙ্গচিত্র কার্টুন প্রকাশের প্রতিবাদে আজ সকাল ১১টায় গোপালগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হবে। ছদর সাহেব (রহ.) এর পৌত্র মুফতি উসামা আমীন মানববন্ধন কর্মসূচি সফল করার অনুরোধ জানিয়েছেন।



 

Show all comments
  • Yousuf Ali ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৪৪ এএম says : 1
    রাসূল ( সাঃ) অপমানে যদি কাঁদেনা তোর মন, মুসলিম নয় মুনাফেক তুই রাসূলে দুশমন !
    Total Reply(0) Reply
  • Muhammad Rayhan ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৪৮ এএম says : 1
    ফ্রান্স তোমার পতন শুরু হয়ে গেছে।। আল্লাহর হাবিবকে নিয়ে তুমি যা করতেছো তোমার পতন নিশ্চিত।। ভালোবাসি আপনাকে নিজের থেকে বেশি আমার প্রিয় নবী মুহাম্মাদ (সাঃ)।।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Al-Mamun ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৫০ এএম says : 1
    এই লোক নিজের পায়ে নিজেই কুরাল মারছে। কারন এতে ইসলামী চেতনা আরো জাগ্রত হবে। আরো কঠোর হবে মুসলিমজাতি । পরিণতি খুবই খারাপ হবে
    Total Reply(0) Reply
  • Obydur Rahman ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৫১ এএম says : 1
    বর্বরতার সীমা অতিক্রম করলে আল্লাহর আসমানি গজব অবধারিত। আল্লাহ জালিম বর্বরদের হেদায়াত করুন, না হলে ধ্বংস করে দিন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Atikur Rahman Atik ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৫৩ এএম says : 1
    একটা প্রেসিডেন্ট এতটা কান্ডজ্ঞানহীন হতে পারে এই প্রথম দেখলাম
    Total Reply(0) Reply
  • Mohin ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৫৩ এএম says : 1
    উইপোকার পাখা মেলে মরিবার ত্বরে....ওর মরার সময় হইছে..তাই উড়তাছে... ওর চেয়ে ও হাজার গুণ ক্ষমতাধর ছিল ফেরাউন... কই ইসলামের তো কিছুই করতে পারলো না...
    Total Reply(0) Reply
  • M.D. Sajal Islam Pias ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৫৪ এএম says : 1
    ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট কে বলছি নিজের মন মানসিকতা পরিবর্তন করুন
    Total Reply(0) Reply
  • মাজহারুল ইসলাম ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৫৫ এএম says : 1
    সারাবিশ্বের সকল মুসলমানদের উচিত এর প্রতিবাদ করা।
    Total Reply(0) Reply
  • সাদ্দাম ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:৫৬ এএম says : 1
    যারা প্রতিবাদ করছেন, তাদের সকলকে ধন্যবাদ। এভাবে সুশৃংখলভাবে প্রতিবাদ করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ দুলাল মিয়া ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ২:২৮ এএম says : 1
    বেয়াদপ এখনও পর্যন্ত নতিস্বীকার করে নি
    Total Reply(0) Reply
  • Jack Ali ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৯ পিএম says : 1
    We muslims are responsible because we do not follow Qur'an and Sunnah. In the Past when muslim used to rule by the Law of Allah no kafir dare to point a finger towards any muslim.. Now we are worse nation on earth.. Our government killing us also committing every kind of oppression. warning from Allah [SWT] regarding unity of Muslim Ummah: Surah 8:Al-Anfal: Ayat: 73.. And those who disbelieve are allies of one another, [and] if you [Muslims of the whole world collectively] do not do so [i.e: become allies, as on united block under one Khalifah] (a chief Muslim ruler for the whole Muslim world) to make victorious Allah’s religion of Islamic Monotheism), there will be Fitnah [war, battles, polytheism] and oppression on the earth, and a great mischief and corruption (appearance of ;polytheism). It has been mentioned in Tafsir At-Tabari, that the best interpretation of this above Verse: [-And those who disbelieve are allies of one another, ] (and) if you (Muslims of the whole world collectively) do not do so (i.e; become allies, as one united block. “That if you do not do what We [Allah] have ordered you to do , [i.e: all of you (Muslims of the whole world] do not become allies as on united block to make Allah’s religion Islam) victorious, there will be a great Fitnah (polytheism, war, battles, killing, robbing, a great mischief, corruption and oppression, adultery, fornications,”) ] And it is Fitnah to have many Khalifahs (Muslim rulers). As it has been mentioned in Sahih Muslim By ‘Arfajah, who said: I heard Allah’s Messenger [SAW] saying: “When you all (Muslims) are united [as one block] under a single Khalifah [chief Muslim ruler] then a man comes up to disintegrate you and separate you into different groups, then kill that man.”
    Total Reply(0) Reply
  • habib ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ৯:২৪ এএম says : 1
    OIC members should take punitive action against France for insulting and abuse our beloved prophet Mohammad RSW PBUH.
    Total Reply(0) Reply
  • Anwar Hossain ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ১১:১২ এএম says : 1
    ফ্রান্সের কুলাঙ্গার প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁ প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাওয়া পর্যন্ত মুসলমানদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। রাসূল ( সাঃ) অপমানে যদি কাঁদেনা তোর মন, মুসলিম নয় মুনাফেক তুই রাসূলে দুশমন !
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফ্রান্স


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ