Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

মেসি দ্যুতিতে উড়ে গেল জুভেন্টাস

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

বিরতির আগেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারতো বার্সেলোনা। কিন্তু লিওনেল মেসি ও অঁতোয়ান গ্রিজমানদের সুযোগ নষ্টের ভিড়ে তা সম্ভব হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধেও চলে তাদের সুযোগ নষ্টের মহড়া। এরপরও নিজেদের খুঁজে ফেরা জুভেন্টাসের বিপক্ষে জয় পেতে তেমন সমস্যা হয়নি তাদের। উসমান দেম্বেলের সৌভাগ্যপ্রসূত গোলের পর অধিনায়কের শেষের লক্ষ্যভেদে পুরো তিন পয়েন্ট নিয়ে ফিরেছে রোনাল্ড কোমানের দল। গতপরশু রাতে জুভেন্টাসের আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। আসরে তাদের এটা টানা দ্বিতীয় জয়।
ঘরের মাঠে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে ছাড়াই এদিন মাঠে নেমতে হয়েছিল জুভেন্টাসকে। তবে দলের সেরা তারকাকে ছাড়া সুবিধা করে উঠতে পারেনি দলটি। বার্সেলোনার কাছে হেরে গেছে তারা। যদিও ভাগ্যও সঙ্গ দেয়নি তাদের। তিন তিনবার বল জালে জড়িয়েও গোলের দেখা পায়নি দলটি।
শেষ দিকে ১০ জনের দলে পরিণত হওয়া জুভেন্টাসের বিপক্ষে বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণেও আধিপত্য করে বার্সেলোনা। তবে ফিনিশিংয়ে বেশ ভুগতে দেখা গেছে তারকাসমৃদ্ধ দলটিকে। গত সপ্তাহে ফেরেন্সভারোসকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে ইউরোপ সেরার মঞ্চে যাত্রা শুরু করলেও সময়টা ভালো যাচ্ছিল না বার্সেলোনার। লা লিগা সবশেষ তিন ম্যাচে নেই জয়ের দেখা, শেষ দুটিতে হার। এর মধ্যে চার দিন আগে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ঘরের মাঠে পরাজয়। মাঠের বাইরে সভাপতি জোজেপ মারিয়া বার্তোমেউয়ের সরে দাঁড়ানোর ঘটনা। সব মিলে অস্থির সময় কাটছে বার্সেলোনার। এমন অবস্থায় এই জয় নিশ্চিতভাবে কাতালান শিবিরের জন্য দারুণ স্বস্তির।
মুগ্ধ কোচ কোমানও। তার চোখে এখন পর্যন্ত মৌসুমে এটাই মেসিদের সেরা খেলা। মাঠের বাইরে কী হলো তা নিয়ে একদমই ভাবতে চান না এই ডাচম্যান, ‘ইউরোপের শক্তিশালী একটা দলের বিপক্ষে এটা বড় এক জয় এবং আমরা যে ধরনের ফুটবল খেলার চেষ্টা করে আসছি এদিন তেমনটা খেলতে পেরেছি। আমার মনে হয়, আমাদের মাঠের খেলার দিকে মনোযোগ দিতে হবে। এটা আমাদের ওপর প্রভাব ফেলে না এবং আমাকে ভাবায় না। আমরা নজর রাখছি কেবল ফুটবলের দিকে।’ নিজেদের পরের ম্যাচে আগামীকাল লা লিগায় আলাভেসের মাঠে খেলবে বার্সেলোনা। তিন দিন পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে তাদের প্রতিপক্ষ ইউক্রেনের দল ডায়নামো কিয়েভ।
অন্যদিকে, রোনালদোবিহীন স্বাগতিকদের আক্রমণে ছিল না কোনো ধার। মাচে একটি শটও লক্ষ্যে রাখতে পারেনি তারা!
এই হারে জুভেন্টাসের সমস্যা আরও ঘনীভূত হলো। সিরি ‘আ’য় পাঁচ ম্যাচের তিনটিতে পয়েন্ট হারিয়েছে তারা। ডায়নামো কিয়েভকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শুভস‚চনা করলেও সেই ম্যাচেও তাদের পারফরম্যান্স ছিল না ভালো। টানা দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বার্সেলোনা। ৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে জুভেন্টাস। গ্উপের অন্য ম্যাচে ফেরেন্সভারোসের মাঠে ২-২ ড্র করেছে কিয়েভ। দল দুটির পয়েন্ট সমান ১ করে।
ঘরের মাঠে এমন হারেও ইতিবাচক দিক খুঁজে পাচ্ছেন আন্দ্রেয়া পিরলো। জুভেন্টাস কোচের কাছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের এই হার তাদের জন্য অনেক বড় এক শিক্ষা, ‘এই হার আমাদের বেড়ে উঠতে সহায়তা করবে। এটা ছিল কঠিন এক ম্যাচ, এমন একটা দলের বিপক্ষে যারা জানে কীভাবে খেলতে হয় এবং আমাদের চেয়ে তারা অনেক এগিয়ে। আমরা সংস্কারের মধ্য দিয়ে যাওয়া একটা দল, যে দলের অনেক খেলোয়াড় কেবল দ্বিতীয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচ খেলল।’
নিজেদের পরের ম্যাচে লিগে আগামী পরশু জুভেন্টাস খেলবে স্পেৎসিয়া কালচোর বিপক্ষে। তিন দিন পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পিরলোর দলের প্রতিপক্ষ ফেরেন্সভারোস।
জুভেন্টাস -০
বার্সেলোনা-২



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জুভেন্টাস

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন