Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১১ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

লিবিয়াতে আরও গণকবর ও লাশ উদ্ধার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০২ এএম

পশ্চিম লিবিয়ার তারহুনা অঞ্চলে নতুন পাওয়া গণকবরগুলি থেকে এক ডজন লাশ উদ্ধার করা হয়েছে, যেখান থেকে খলিফা হাফতার বাহিনী গত বছর ত্রিপোলিতে জিএনএ’র বিরুদ্ধে একটি ব্যর্থ হামলা চালিয়েছিল। নিখোঁজদের সন্ধানের জন্য জাতিসংঘ অনুমোদিত স্বীকৃত সরকার (জিএনএ) কর্তৃক দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিটি গেল বুধবার তাদের ফেসবুক পেজে জানিয়েছেন, ‘তারুহুনায় চারটি নতুন সাইট আবিষ্কার করা হয়েছে, তার মধ্যে দুটি গণকবর এবং দুটি পৃথক কবর এবং অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।’
কমিটির এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গত জুনে পশ্চিম লিবিয়া থেকে হাফতার বাহিনীকে পিছু হটিয়ে দেয়ার পর গণকবরের অনুসন্ধান শুরু করলে থেকে মোট ৯৮টি লাশের সন্ধান মেলে। তারাহুনার ক্ষতিগ্রস্থদের একটি বেসরকারী সংস্থার প্রধান আবদুল হাকিম আবু নামার মতে, কমপক্ষে আরও ১৬টি গণকবর খনন করা এখনও বাকি রয়েছে। জুনে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা ফুটেজগুলিতে লাশের সংখ্যা ও অবমাননাকর অবস্থা প্রদর্শন করার পর হিউম্যান রাইটস ওয়াচ হাফতারকে তার যোদ্ধাদের দ্বারা সঙ্ঘটিত যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে তদন্তের আহ্বান জানায়। ত্রিপোলির বিরুদ্ধে ১৪ মাসের ব্যর্থ যুদ্ধের পর হাফতারের মূল ঘাঁটি হিসাবে ব্যবহৃত হয় তরহুনা। জেনেভাতে জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় আলোচনার পর গত শুক্রবার লিবিয়ার যুদ্ধরত দলগুলো একটি স্থায়ী যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে স্বাক্ষর করে। ২০১১ সালে লিবিয়ার দীর্ঘকালীন শাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে হত্যার পর দেশটিতে একটি জটিল গৃহযুদ্ধের অবতারণা হয় এবং শেষ পর্যন্ত দেশটি জিএনএ এবং হাফতার সমর্থিত পূর্বাঞ্চলীয় প্রশাসনের মধ্যে বিভক্ত হয়ে পড়ে। সূত্র : আফ্রিকা নিউজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লাশ

২৭ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ