Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

রাজশাহীতে ভুল চিকিৎসায় দেড় বছরের শিশুর মৃত্যু অভিযোগ

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২ নভেম্বর, ২০২০, ৮:১২ পিএম

চিকিৎসকের অবহেলায় দেড় বছরের শিশু মুনতাহারের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে রয়্যাল হাসপাতালের বিরুদ্ধে। হাসপাতালের ডা. সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম অধিনে অপারেশন অনভিজ্ঞতা ও দায়িত্বহীনতার অভিযোগ আনা হয়েছে। চিকিৎসক সৈয়দ সিরাজুল ইসলামের বিচারের দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে নিহত শিশুর পরিবার।
সোমবার ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়ের পাশে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলন থেকে মুনতাহার মৃত্যুর জন্য ডা. সৈয়দ সিরাজুল ইসলামই দায়ী করে তার বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসার ও হত্যার দাবী তোলা হয়। লিখিত বক্তব্যে নিহত শিশুর মা রেহেনা পারভীন বলেন, আমাদের দেড় বছর বয়সী শিশু সন্তান মুনতাহার অমবিলিক্যাল হার্নিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে ২৯ অক্টোবর বিকাল ৩টায় রাজশাহী রয়্যাল হাসাপাতাল প্রা. লি. চিকিৎসার জন্য ৮০০ টাকা ফি দিয়ে চিকিৎসক ডা. সৈয়দ সিরাজুল ইসলামকে দেখায়। এসময় দ্রুত তার অধিনে আপারেশন করার পরামর্শ দেন এই চিকিৎসক। অপারেশন না করলে রোগীর দূর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানানো হয়।
তার পরের দিন সকাল ১০টায় অপারেশনের টাকা হাসপাতালে জমা দেওয়া হয়। দুপুরে ডাক্তারের অধিনে অপারেশন করা হয়। ৬০৫ নম্বর কেবিনে রোগীকে প্রদান করেন। এসময় রোগী অবস্থা ভালো ছিল না। তার পরেও অবজারভেশন ওয়ার্ডে না রেখে সাধারণ কেবিনে দেয়।
এতে রোগির বাবা-মা বার বার সংশ্লিষ্ট ডাক্তারকে রোগীর অবস্থা ভাল না অবহিত করলেও সংশ্লিষ্ট ডাক্তার বা অন্য কোন এ্যাটেন্ডেট ডাক্তার রোগী ভিজিটে আসেনি। সারারাত পরে ৩১ অক্টোবর সকাল ৭টায় পুনরায় রোগীকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যায়। সকাল দশটার দিকে রোগিকে মৃত ঘোষনা করে।
এসময় রোগীর মামা শরিফকে প্রতিষ্ঠানের প্রশাসনিক দপ্তরে বিষয়টি কেন অবহেলা করা হয়েছে অবহেলার কারণেই রোগীর মৃত্যু হয় মর্মে জানালে প্রশাসনিক বিভাগ হতে রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি মিমাংসা করার জন্য টাকা প্রদানের কথা বলেন।
প্রশাসন বিভাগের মিমাংসা ও টাকা ফেরত প্রদানই বুঝায় মৃত্যু কেবল মাত্র অবহেলা ও দায়িত্বহীতার এবং ভুল অপারেশনের কারণেই হয়েছে। উল্লেখিত বিষয়ে অমবিলিক্যাল হার্নিয়া রোগের অপারেশনে সুস্পষ্টভাবে বলা যায় এই রোগীর মৃত্যুর জন্য অবশ্যই প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বহীনতা এবং ডা. সৈয়দ সিরাজুল ইসলামর অনভিজ্ঞতা বা দায়িত্বহীনতা ও অবহেলা মূল কারণ।
মুনতাহাকে ভূল অপারেশন ও দ্বায়িত্বহীনতা এবং অবহেলায় মৃত্যু হয়। মুনতাহা এর মুত্যুর জন্য ডা. সৈয়দ সিরাজুল ইসলামই দায়ী তার বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসর ও হত্যার বিচারের দাবী জানাচ্ছি।
এ বিষয়ে ডা. সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমরা একটা বক্তব্য তৈরি করছি। সেটি সাংবাদিকদের জানানো হবে।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন, ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. কামরুজ্জামান কামরু, ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরুজ্জামান টুকুু, ৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, সংরক্ষিত আসনের (জোন-২) কাউন্সিলর মোসা. আয়েশা খাতুন নাদিরা, ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তানজির হোসেন দুলাল, ৫ নম্বর ওয়ার্ড মাহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসা. রাজিয়া সুলতানা, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ, সহযোগী অধ্যপক মোহাম্মদ আলী প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ