Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

কাশ্মীরী জনগণের অধিকার ফিরিয়ে না দিয়ে মরতে চাই না : ফারুক আব্দুল্লাহ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৩৪ পিএম

জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও ন্যাশনাল কনফারেন্সের প্রধান ডা. ফারুক আব্দুল্লাহ বলেছেন, জম্মু-কাশ্মীরের জনগণকে তাদের অধিকার ফেরত না দিয়ে আমি মরতে চাই না। ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের জন্য বিজেপিকে তীব্র সমালোচনা করে ডা. ফারুক আব্দুল্লাহ বলেছেন, ক্ষমতা কখনই স্থায়ী হয় না এবং একদিন সবাইকেই তাদের “চেয়ার” ছেড়ে যেতেও হবে। গতকাল (শুক্রবার) জম্মুতে শের-ই-কাশ্মীর ভবনে দলীয় কর্মীদের সামনে বক্তব্য রাখার সময় ওই মন্তব্য করেন তিনি।
তিনি বলেন, ‘আমাদের লড়াই একটি আদর্শের বিরুদ্ধে। বিজেপি জনগণকে কেবল ভোটের জন্য ব্যবহার করেছে। ন্যাশনাল কনফারেন্স কখনও দেশবিরোধী হয় নি। বিজেপি বেইমানদের কেনার কাজ করেছে।’
ফারুক আব্দুল্লাহ বলেন, ‘আমাদের পাকিস্তানি বলা হচ্ছে, যদি আমরা চাইতাম তাহলে ১৯৪৭ সালেই পাকিস্তানের সাথে যেতে পারতাম। আমরা নিজেদেরকে বিজেপির ভারত নয়, মহাত্মা গান্ধীর ভারতের সাথে যুক্ত করেছি। তারা যদি আমাকে হত্যা করতে চায় হত্যা করতে পারে। কিন্তু বাঁচা ও মরার বিষয়টি উপরওয়ালার হাতে আছে। যদিও আমার বয়স ৮০ বছরের বেশি, তবুও আমি এখনও জওয়ান। আমি বিজেপিকে ভয় পাই না, বিজেপিকে যদি নিজের বাহাদুরি দেখাতে হয় তবে সীমান্তে গিয়ে দেখাক, এখানে নয়।’
ডা. ফারুক আব্দুল্লাহ বলেন, ‘বিজেপি জম্মু-কাশ্মীরের জনগণের সাথে জমি ও চাকরি সুরক্ষার মিথ্যা দাবি করেছে। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ফিরিয়ে আনতে পারে নি। বিজেপি ভোটের জন্য কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ব্যবহার করেছে। ট্রাম্পের মতো বিজেপি সরকারও বিদায় নেবে।’
জম্মু-কাশ্মীরের সাম্প্রতিক পরিবর্তনের বিষয়ে বিজেপিকে টার্গেট করে সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও ন্যাশনাল কনফারেন্সের ভাইস-প্রেসিডেন্ট ওমর আবদুল্লাহ বলেন, ‘বিজেপি দলের ৪৪ প্লাস মিশন পূরণ না হওয়ায় কাশ্মীরের লোকদের কাছ থেকে প্রতিশোধ নিচ্ছে।’
ওমর আব্দুল্লাহ বলেন, সরকার গত এক বছরে কী করেছে? লেফটেন্যান্ট গভর্নরকে জিজ্ঞেস করতে চাই- রাজ্যে কয়টি কারখানা স্থাপন করা হয়েছে? ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার সংক্রান্ত গৃহীত সিদ্ধান্তটি ছিল সর্বকালের সবচেয়ে খারাপ সিদ্ধান্ত।
‘বিজেপির ভুল নীতির জন্য জম্মু-কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদ বৃদ্ধি পেয়েছে। ন্যাশনাল কনফারেন্সের আমলে ২০১১-২০১৪ পর্যন্ত কিছু যুবক বন্দুক তুলে নিয়েছিল, কিন্তু এখন কিশোররাও বন্দুক হাতে তুলে নিয়েছে এবং ক্রমশ তা দ্রুতগতিতে বাড়ছে বলেও ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আব্দুল্লাহ মন্তব্য করেন। সূত্র : পার্সটুডে



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর

১ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ