Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌
শিরোনাম

ক্যালিফোর্নিয়ায় ভয়াবহ দাবানল জরুরি অবস্থা ঘোষণা

প্রকাশের সময় : ১৮ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সাজন পাস পাহাড়ি এলাকায় ভয়াবহ দাবানলের ঘটনায় প্রায় ৯,০০০ একর ভূমির গাছপালা পুড়ে গেছে। দাবনল থেকে বাঁচতে স্থানীয় ৮২,০০০ বাসিন্দাকে বাধ্যতামূলকভাবে নিরাপদে সরে যেতে বলা হয়েছে। আগুন লাগানোর অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার করা ওই সন্দেহভাজনের নাম দামিন পাশিক (৪০)। তার বিরুদ্ধে গত এক বছরে লোয়ার লেক শহরে ১৭টি অগ্নিসংযোগের অভিযোগ রয়েছে। জানা গেছে, পাশিক পার্শ্ববর্তী ক্লিয়ার লেক এলাকার বাসিন্দা। গতকাল বুধবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ইউএস টুডে এ তথ্য জানায়। যুক্তরাষ্ট্রের বন বিভাগ বলছে, আগুন খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। অতি দ্রুত বাসিন্দাদের এলাকা ছেড়ে নিরাপদ স্থানে চলে যেতে বলা হয়েছে। প্রায় ৩৪৫০০ বাড়িতে ৮২৬৪০ জন বাসিন্দা রয়েছে দাবানল সংশ্লিষ্ট এলাকায়। খবরে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে উচ্চ তাপমাত্রা (৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস) এবং ঝড়ো বাতাসে দাবানল আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। স্যান বার্নার্দিনো কাউন্টিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। দাবানল দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে সেখানকার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়। প্রায় নয় হাজার একর জায়গা পুড়ে গেছে। গত মঙ্গলবার ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর জেরি ব্রাউন স্যান বার্নার্দিনোতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন। জরুরি অবস্থায় জনগণকে নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার আহ্বান জানানো হয়। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি বসতিতে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। জানা গেছে, এখন পর্যন্ত প্রায় ৩৪ হাজার ৫০০টি ঘর দাবানলে আক্রান্ত হয়েছে। ব্যালডি মেসা, লিটল ক্রিক, রাইটউড, ওল্ড ক্যাজন রোড, লোন পাইন ক্যানিয়ন, ওয়েস্ট ক্যাজন ভ্যালি এবং সোয়ার্থাউট ক্যানিয়নের গ্রামাঞ্চল থেকে লোকজনকে নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার অনুরোধ জানালেও অনেকেই নিজ বাড়ি ছাড়তে চাইছিলেন না। পরিস্থিতি সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে স্থানীয় পুলিশ ও দমকলকর্মীদের। উইল লেস্টার নামে এক স্থানীয় ফটোগ্রাফার দাবানলের বেশকিছু ছবি তুলে টুইটারে পোস্ট করেছেন। তা থেকে দাবানলের তীব্রতা আঁচ করা যায়। উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়েছেন ৭০০ জনেরও বেশি দমকলকর্মী। ৫৭টি জলের গাড়ি এবং ১০টি এয়ার ট্যাংকার আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে যাচ্ছে। সোয়ার্থাউট ক্যানিয়নে উদ্ধার অভিযান চালানোর সময় ছয় দমকলকর্মী ধোঁয়ার কবলে পড়েন। এদের মধ্যে দুইজন কিছুটা আহত হয়েছেন। উল্লেখ্য, গত শনিবার বিকাল থেকে ঝড়ো হাওয়ার জন্য ওই দাবানল দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। যা শ্রমজীবীদের শহর লোয়ার লেকের বেশ কয়েকটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। ওই দাবানলে কমপক্ষে ১৭৫টি বাড়ি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। ঘর হারিয়েছেন শত শত মানুষ। দ্য গার্ডিয়ান, বিবিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ