Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

প্রশ্ন : দারিদ্র্য কি মানুষকে কুফরীর দিকে নিয়ে যায়?

| প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

উত্তর : “দারিদ্র্য মানুষকে কুফরির নিকটবর্তী করে দেয়।”(তিরমিজি শরিফ)
আর যারা আবার ধর্মান্তরিত হয় না তারা দারিদ্রতার মধ্যে নিপতিত হওয়ার ফলে তাদরে মাঝে চুরি, ডাকাতি, রাহাজানি, খুনখারাবি, সুদ, ঘুষ, জুয়া, খুনোখুনি ও দুর্নীতির মতো আর্থসামাজিক কলেঙ্কোরির ঘটনা বৃদ্ধি পেতে থাকে।ফলে সমাজে একটা বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়।

অথচ আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ'লা এই অসহায় মেঘনাদকে ক্ষুধার্তদরে জন্য কত সুন্দর বিধান করে দিয়েছে।তাদরে হক ধনীদের সম্পদে করে দিয়েছে। ইসলাম ধনীদরে উপর যাকাত ফরয করে দিয়ে একটা সুন্দর সমাজ গড়ার কথা বলেছে। আর এ সর্ম্পকে আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআনের সূরা বাকারার ১১০ নম্বর আয়াতে বলেছেন-

“তোমরা সালাত আদায় কর এবং যাকাত প্রদান কর। তোমরা যে উত্তম কাজ নিজদেরে জন্য অগ্রে প্রেরণ করবে তা আল্লাহর নিকটে পাবে। নিশ্চয়ই তোমরা যা কর আল্লাহ তা দেখছেন।”

সূরা নূরের ৫৬ নম্বর আয়াতে আল্লাহ তায়ালা আরো বলনে, “তোমরা সালাত আদায় কর, যাকাত দাও এবং রাসূলের আনুগত্য কর যাতে তোমরা অনুগ্রহভাজন হতে পার।”

আর যারা এই যাকাত আদায় করবে আল্লাহ তায়ালা তাঁর সেই বান্দাদের জন্য মহাপুরস্কারের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দিয়েছেন।

কেননা এ সর্ম্পকে আল্লাহ তায়ালা সূরা নিসার ১৬২ নং আয়াতে বলেছেন-

“এবং যারা সালাত আদায় করে, যাকাত দেয় এবং আল্লাহ ও পরকালে ঈমান রাখে আমি তাদেরকে মহাপুরস্কার দিব”

তবে যারা যাকাতের মতো গুরুত্বর্পূণ একটি স্তম্ভকে নিছক দান-সদকা মনে করে, এর থেকে গাফেল থেকে তা আদায় করা থেকে বিরত থাকবে, আল্লাহ তাদের জন্য ভয়ংকর শাস্তির হুশিয়ারি দিয়েছেন।

এ সর্ম্পকে আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআনের সূরা তাওবার ৩৪-৩৫ নম্বর আয়াতে বলেছেন-

যারা সোনা রূপা পুন্জিভূত করে রাখে এবং তা আল্লাহর পথে খরচ করে না, তাদের যন্ত্রাণাদায়ক শাস্তির সুসংবাদ দাও। এমন একদনি আসবে, যেদিন সেসব সোনা-রূপা জাহান্নামের আগুনে উত্তপ্ত করা হবে, তারপর তা দিয়ে তাদের মুখমন্ডল, পার্শ্বদেশ ও পৃষ্ঠদেশে দাগ দেওয়া হবে এবং বলা হবে, এই হলো তোমাদের সেসব অর্থ সম্পদ যা নিজেদের জন্য জমা করে রেখেছিলে। অতএব এখন নিজেদের জমা করে রাখা সম্পদের স্বাদ গ্রহণ করো।গ্ধ

তাই সম্পদশালী মুসলমান ভাইবোন্দের উচিত তাদের সম্পদকে পবিত্র করার জন্য সঠিকভাবে যাকাত আদায় করে এই সমাজটাকে একটি সুশৃঙ্খল এবং সুন্দর সমাজে পরিনত করা। আর মুসলমানরা যেন সামান্য ক্ষুধার তাড়নায় নিজের জীবন বিধান ইসলামকে বাদ দিয়ে অন্য কোন ধর্মে ধর্মান্তরিত না হয় এবং মানুষ দারিদ্র্যতার দরুন সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সেই দিকটি খেয়াল রাখা।
উত্তর দিচ্ছেন : মিনহাজুল ইসলাম বকসী



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন