Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৯ মাঘ ১৪২৭, ০৯ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

ধলেশ^রী নদীর ভাঙনে গ্রামবাসীর মানববন্ধন

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০২০, ৮:৪৬ পিএম

সিরাজদিখান উপজেলার বালুচর ও বাসাইল ইউনিয়নের ৩টি গ্রাম ও ফসলি জমি ধলেশরী নদীর ভাঙনের কবলে পড়েছে। বর্ষার শুরুর সাথে সাথে এবং নদীতে চলাচলরত নৌযানের ঢেউয়ের কারণে নদীরপাড় এলাকায় ৩ ফসলি উর্বর জমিগুলো বিলীন হতে চলছে। বাড়িঘর ভাঙনের আশঙ্কায় করছে গ্রামবাসী। ভাঙনরোধে সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় চান্দেরচর এলাকায় মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।
মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা জানান, উপজেলার বালুচর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের চান্দেরচর ও বাসাইল ইউনিয়নের চরকুন্দলিয়া গ্রামের নদীর সীমানা পিলারসহ ৩ ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। দ্রæত পদক্ষেপ না নিলে ধলেশ্বরী নদীর স্রোত এবং চলাচলরত নৌযানের ঢেউয়ে ভাঙনের বিলীন হয়ে যাবে বাড়ি ঘর, স্কুল, মসজিদ, হাট বাজার ও কমিউনিটি সেন্টার। মানববন্ধনে বালুচর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আমজাদ হোসেন বলেন, ধলেশ্বরী নদী এ পর্যন্ত নদী পিলারসহ ৩ ফসলি জমি বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের কবলে রয়েছে ঘর-বাড়ি, স্কুল, মাদরাসা, মসজিদ ও ১টি কমিউনিটি ক্লিনিক। সরকার যদি খুব দ্রæত ব্যবস্থা না নেয় তাহলে ২টি গ্রামের ঘরবাড়ি নদীতে বিলীন হয়ে যাবে। ২নং ওয়ার্ড আ.লীগ সভাপতি রমজান আলী জানান, ভাঙনের এ ধারা অব্যাহত থাকলে আগামী বছরে আমাদের এই চন্দের চর এলাকা নদীতে বিলীন হয়ে যাবে।
সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ ফয়েজুল ইসলাম বলেন, ধলেশ^রী নদীর তীর ধীর গতিতে ভাঙছে এমন অভিযোগ পেয়েছি। শিগগিরই স্ব-শরীরে ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করে কোনো প্রকার দুর্যোগ হওয়ার আগেই প্রতিরোধের ব্যবস্থায় ঊর্ধ্বতনদের জানাবো।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নদী

২৯ ডিসেম্বর, ২০২০
১৮ ডিসেম্বর, ২০২০
১৩ ডিসেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ