Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

ত্রিশালে মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

ময়মনসিংহের ত্রিশাল সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা তোফায়েল আহমেদের বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল টেকনোলজি প্রজেক্টের প্রকল্প পরিচালক বরাবরে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ত্রিশালের মৎস্য চাষীরা। 

জানাগেছে ত্রিশাল উপজেলা মৎস্য অফিসে প্রায় ৩ বৎসর পূর্বে সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন তোফায়েল আহমেদ। অভিযোগ উঠেছে যোগদানের পর থেকেই তিনি বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করেন। মৎস্য চাষের জন্য ত্রিশাল উপজেলা বাংলাদেশের মধ্যে মডেল উপজেলা। এন.এ.টিপি প্রজেক্ট-২ এর আওতায় ত্রিশাল উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে প্রত্যেকটি ইউনিয়নে ২টি করে প্রদর্শনী পুকুর রয়েছে। অভিযোগ রয়েছে তিনি যোগদানের পর থেকে প্রতিটি প্রদর্শনী পুকুরের জন্য বরাদ্ধকৃত ২০ হাজার টাকার মধ্যে চাষীদের মাত্র ১০ হাজার টাকা দিয়ে বাকি আত্মসাৎ করে চলেছেন।
সরেজমিন গিয়ে জানা যায় ২০১৯ সালের প্রদর্শনী পুকুরে মাঠ দিবস না করে, মাঠ দিবসের জন্য বরাদ্ধকৃত সম্পূর্ণ টাকা আত্মসাৎ করারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। মাঠ পর্যায়ে পরিদর্শন না করে ভুয়া বিল ভাউচার দেখিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করছেন সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা তোফায়েল আহমেদ।
এ সকল অভিযোগের বিষয়ে মৎস্য সম্প্রসারণ প্রতিনিধি সাখুয়া ইউনিয়নের মামুনুর রশিদ ও আমিরাবাড়ী ইউনিয়নের আবুল কালাম আজাদ জানান আমাদের ইউনিয়নে কোন মাঠ দিবস হয়নি। তবে খাদ্য ও পোনা বাবদ ১০/১৫ হাজার করে টাকা পেয়েছেন চাষিরা।
ত্রিশাল সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা তোফায়েল আহমেদ এর কাছে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান আমি মাঠ দিবস করেছি ও চাষিদেরকে সরকারি ভ্যাট বাদে বাকি টাকার খাদ্য ও পোনা দিয়েছি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ