Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

পাকিস্তানে দাম কমলো পেট্রল ও ডিজেলের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

পেট্রল ও হাই স্পিড ডিজেলের (এইচএসডি) দাম লিটার প্রতি ১ দশমিক ৭৯ রুপি পর্যন্ত কমিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। গতকাল থেকেই কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে। রোববার প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এই ঘোষণা দিয়েছে দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয়।
ইমরান খানের সরকার পেট্রল ও ডিজেলের দাম লিটার প্রতি যথাক্রমে ১ দশমিক ৭৩ এবং ১ দশমিক ৭৯ রুপি কমিয়েছে। এর ফলে প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম ১০২ দশমিক ৪০ রুপি থেকে কমে ১০০ দশমিক ৬৭ রুপি হয়েছে। প্রতি লিটার এইচএসডিও ১০৩ দশমিক ২২ রুপি থেকে কমে ১০১ দশমিক ৪৩ রুপি হয়েছে। তবে কেরোসিন তেল এবং হালকা ডিজেল তেলের দামে কোনও পরিবর্তন হয়নি। এগুলোর দাম লিটার প্রতি যথাক্রমে ৬৫ দশমি ২৯ এবং ৬২ দশমিক ৮৬ রুপিতে অপরিবর্তিত থাকছে। এইচএসডি ব্যাপকভাবে কৃষি ও পরিবহন খাতে ব্যবহৃত হয়। এর দাম কমানোর সিদ্ধান্ত এই দুটি খাতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে। যদিও এইচএসডির দাম কমায় সাধারণত পরিবহনের ভাড়া কমার কথা থাকলেও সিন্ডিকেটের কারণে সেটি হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। তবে বপনের মরসুম শুরু হওয়ার সাথে সাথে ডিজেলের দাম হ্রাস কৃষি খাতের জন্য স্বস্তিদায়ক হবে। পেট্রল মোটরযানে ব্যবহৃত হয়। অক্টোবরে ৭৬ কোটি ৮ লাখ ১৮ হাজার মেট্রিক টন পেট্রোল বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও প্রকৃত বিক্রয় হয়েছে ৬০ কোটি ৯৮ লাখ ৭৫ হাজার মেট্রিক টন। অর্থাৎ, অনুমানের তুলনায় বিক্রি কমেছে ১৯ দশমিক ৮ শতাংশ।
তবে পাঞ্জাব প্রদেশে গ্যাসের বিকল্প হিসাবে পেট্রলের চাহিদা বেড়েছে। ওই প্রদেশের নিজস্ব কোনও প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদন ক্ষেত্র না থাকায় সিএনজি রিটেইলস আউটলেটগুলো আমদানি করা আরএলএনজি ব্যবহার করে। আসন্ন শীত মৌসুমে সেখানকার গ্রাহকরা গ্যাসের ঘাটতির মুখোমুখি হবেন। অন্যান্য প্রদেশের সিএনজি স্টেশনগুলোও গ্যাস ঘাটতির সমস্যার মুখোমুখি হতে পারে যা পেট্রলের চাহিদা বাড়িয়ে তুলবে। সূত্র : পাকিস্তান ট্রিবিউন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ