Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭, ১২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

চীনে প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে ডুবন্ত তরুণীকে বাঁচালেন ব্রিটিশ কূটনীতিক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০২০, ৪:০১ পিএম

অন্যের জন্য নিজের জীবন বাজি রাখতে প্রয়োজন সাহসের। তাতে বয়স কোন বাধা নয়। সেটিই এবার প্রমাণ করলেন চীনে চংকিংয়ে নিযুক্ত ব্রিটিশ কনস্যুলার জেনারেল স্টিফেন এলিসন। ঘটনাটি ঘটেছে চংকিং মিউনিসিপালিটি এলাকায়। ২৪ বছরের এক তরুণী আচমকা পাথরের সঙ্গে ধাক্কা লেগে নদীর গভীর পানিতে পড়ে যায়। এরপর তৎক্ষণাৎ পানিতে নেমে তাকে বাঁচিয়েছেন ৬১ বছর বয়সী ওই কূটনীতিক। ওই সময় তিনি নদীর পাশ দিয়ে হেঁটে পাশের এক গ্রামে যাচ্ছিলেন।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, তখন নদীর ঢেউ ছিল বেশি। এর পরও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ওই প্রবীণ কূটনীতিক তরুণীকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেন। এক সময় তাকে টেনে নদীর পাড়ে তুলতে সমর্থন হন। অবশ্য তরুণী তখন ছিলেন অচেতন। চীনের গণমাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমে স্টিফেনকে হিরো হিসেবে অভিহিত করা হচ্ছে। শনিবার ওই তরুণীকে বাঁচানোর বিষয়ে স্টিফেন বলেন, সে অচেতন ছিল এবং নিঃশ্বাস নিতে পারছিল না। আর কিছুক্ষণ হলে হয়তো সবচেয়ে খারাপ কিছু কিছু ঘটে যেতে পারত। কিন্তু আমরা যখন তাকে পানি থেকে তুলে পাড়ে নিয়ে ওঠালাম তখন সে নিঃশ্বাস নিতে শুরু করল। তরুণীকে ডুবন্ত অবস্থায় দেখে ব্রিটিশ ওই কূটনৈতিক যখন পানিতে লাফ দেন তখন ওপর থেকে একজন তাকে একটি ভেসে থাকা যায় এমন একটি বস্তু ছুড়ে মারেন। এর মাধ্যমে তরুণীকে টেনে পাড়ে তোলার পর স্থানীয় গ্রামবাসীরা তাকে শুকনো আর গরম কাপড় দিয়ে তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন বলে জানাচ্ছে বিবিসি।

ওই তরুণী চীনের মধ্যাঞ্চলীয় প্রদেশ উহান থেকে এসেছেন। তিনি চংকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এমন ঘটনা তাকে বেশ আন্দোলিত করেছে। ধীরে সুস্থ হতে শুরু করেছেন। তাকে প্রাণে বাঁচানোর জন্য চরম কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে চীনা তরুণী ব্রিটিশ ওই কূটনৈতিককে তার পরিবারের সঙ্গে রাতের খাবারের আমন্ত্রণ জানান। স্টিফেন এলিসন যুক্তরাজ্যের নিউক্যাসেলের বাসিন্দা। তিনি চংকিংয়ে ব্রিটিশ কূটনৈতিক মিশনের প্রধান। মূলত চীনের সঙ্গে ব্রিটেনের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য সম্পর্কের ক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে সহায়তা করাই তার কাজ। সূত্র: বিবিসি নিউজ।



 

Show all comments
  • Jack Ali ১৭ নভেম্বর, ২০২০, ৪:২১ পিএম says : 1
    This is call true altruism which is we are not for ourselves but we are for others. In Islam one of the Fundamental pillar is Altruism but we muslim are killing each other every day.
    Total Reply(0) Reply
  • Shafiur Rahman ১৭ নভেম্বর, ২০২০, ৪:৩৯ পিএম says : 0
    Wonderful.A perfect Diplomat.God bless you.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন

২৫ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ