Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

শিবগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের প্রতি পরিবারকে ১০ হাজার টাকার অনুদান

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ৩:৩৮ পিএম

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে ধানবোঝাই নসিমন উল্টে নয়জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ছয়জন। বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার দাইপুখুরিয়া ইউনিয়নের বারিক বাজার-সোনাপুর গ্রামে এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- উপজেলার শাহাবাজপুর ইউনিয়নের বালিয়াদিঘী গ্রামের এরফান আলীর ছেলে বাবু, একই এলাকার শেখ মোহাম্মদের ছেলে তাজেমুল হক ও তার ছেলে মিঠুন, কাবিল উদ্দিনের ছেলে কারিম, আমানুলের ছেলে মিজানুর রহমান মিলু, নওশাদের ছেলে আবুল কাশেম, লাওঘাটা গ্রামের রহমানের ছেলে আতাউর রহমান, আজিমুল হকের ছেলে আহাদ আলী। তবে অপর নিহতের নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি। এদিকে ফায়ার সার্ভিস বলছে- গাড়িটিতে অতিরিক্ত ধানবোঝাই ছিল, যে কারণে সরু রাস্তার নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে পারেননি চালক। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ভোরে নওগাঁর নিয়ামতপুর বরেন্দ্র এলাকা থেকে নসিমনযোগে উপজেলার বালিয়াদিঘি এলাকার ১৫ জন ধানকাটা শ্রমিক ধান নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে বারিকবাজার-সোনাপুর এলাকায় পৌঁছলে চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে নসিমনটি উল্টে ধানের বস্তার নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই আটজন মারা যান। এ ঘটনায় আহত সাতজনকে হাসপাতালে নেয়ার পথে আরেকজনের মৃত্যু হয়। প্রাণে বেঁচে যাওয়া আহত এমারুল ইসলাম বলেন, বরেন্দ্র অঞ্চল থেকে ধানকাটা শেষে মজুরির দেড়’শ মণ ধান নিয়ে নসিমনযোগে বাড়ি ফিরছিলাম। আমি ও আরেকজন সামনের সিটে বসে ছিলাম। পথে সোনাপুর গ্রামের ভাঙা রাস্তায় পৌঁছালে বামের দিকের পুকুরে পড়ে যায় নসিমনটি। এরপর কি হয়েছে বলতে পারবো না। চাঁপাইনবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের সহকারী উপ-পরিচালক সাবের উদ্দিন প্রমাণিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দুর্ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আটজনের মরদেহ উদ্ধার করে। এছাড়া আহত আরও সাতজনকে উদ্ধার করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর ও রামেক হাসপাতালে নেয়ার পথে আরেকজনের মৃত্যু হয়। সরু রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় একপাশ ভেঙে গিয়েছিল। সেখানে চাকা পড়লেই গাড়ির নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে পারেননি চালক। ফলে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব-আল-রাব্বি জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহগুলো পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পাশাপাশি নিহতের পরিবারের প্রত্যককে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে ১০ হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে। এদিকে উপজেলার বালিয়াদিঘি এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার এ এইচ এম আবদুর রকিব দুর্ঘটনা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করে বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ