Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

হেফাজতের আমির বাবুনগরীর সীরাত সম্মেলন পুলিশি বাধায় বানচাল

কোরআন তাফসীর মাহফিল বন্ধের ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ৬:১০ পিএম

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর আমির আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীকে প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ করায় আজ বৃহস্পতিবার ঢাকায় সীরাত সম্মেলন পুলিশি বাধায় বানচাল হয়ে গেছে। এতে আয়োজকরা তীব্র ক্ষোভে ফেটে পড়েন। বিভিন্ন ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দ এ ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, সীরাতুন্নবী সম্মেলন বন্ধ করায় নবীপ্রেমিক জনতাকে বিস্মিত ও মর্মাহত করেছে। এ ধরণের ঘটনায় সরকারের ইসলাম বিদ্বেষী চরিত্রই ফুটে উঠছে। নেতৃদ্বয় বলেন, সারাদেশে কোরআনের তাফসীর মাহফিল বন্ধের ষড়যন্ত্র মুসলিম জনতা বরদাশত করবে না।
রহমাতুল্লিল আলামীন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আজ সকালে রাজধানীর রমনাস্থ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় প্রবন্ধ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও রহমাতুল্লিল আলামীন কনফারেন্স (সীরাত সম্মেলন) এর আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি হিসেবে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর আমির আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী ও মহাসচিব আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমীসহ শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের উপস্থিত থাকার কথা। সংগঠনের আহবায়ক মুফতী সাখাওয়াত হেুসাইন রাজী ইনকিলাবকে জানান, নবী (সা.) এর জীবনীর ওপর আলোচনার জন্য যথাযথ নিয়ম অনুসারে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তন ভাড়া করা হয়। বুধবার বিকেলেই মিলনায়তনে মঞ্চ নির্মাণ ও মাইক স্থাপনের কাজ সম্পন্ন করা হয়। আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে দলীয় কর্মী ও বিভিন্ন মাদরাসার ছাত্ররা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে জড়ো হতে শুরু করে। কিন্ত পুলিশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের গেইটে তালা লাগিয়ে দেয়। পুলিশ আগত আয়োজক ও নেতা-কর্মীদের ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে প্রবেশ করতে না দিয়ে তাড়িয়ে দেয়। আগাত শত শত মাদরাসার ছাত্র ও ওলামায়ে কেরাম রমনা থেকে মিছিল করে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইটে প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহবায়ক মুফতী সাখাওয়াত হুসাইন রাজী। প্রতিবাদ সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, শাইখুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হক (রহ.) এর ছেলে মাওলানা মামুনুল হক, মুফতী শামছুদ্দোহা আশরাফী, মুফতী জুনায়েদ কাসেমী, মুফতী লুৎফুর রহমান ফরায়েজী, মুফতী রিজওয়ান রফিকী, মুফতী শামসুল আলম, মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন, মাওলানা গাজী ইয়াকুব ও মুফতী আহসান শরিফ।
প্রতিবাদ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, আজ যারা সীরাতুন্নবী (সা.) সম্মেলন বানচাল করেছে আল্লাহ তাদেরকে হেদায়াত করুন। সীরাতুন্নবী সম্মেলনে রাসুল (সা.) জীবনী নিয়ে আলোচনা হয়। এসব আলোচনায় মহানবী (সা.) আদর্শ এর বিভিন্ন দিক নিয়ে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দেয়া হয়। নেতৃবৃন্দ বলেন, দুর্নীতি, ধর্ষণ নারী নির্যাতন দিন দিন বাড়ছে। তারা বলেন, আজ যারা মহানবীর আলোচনা বন্ধ করে দেয়া তারা ইসলামের দুশমন। যারা ভাস্কর্যের নামে রাজধানীতে মূর্তি নির্মাণে মরিয়া তাদের পরিণাম শুভ হবে না। তারা বলেন, মূর্তি পূজারিরাই মূর্তিকে সম্মান করে। অবিলম্বে মূর্তি নির্মাণের সকল আয়োজন বন্ধ করার জোর দাবি জানান তারা। পরে সীরাত সম্মেলন বানচালের প্রতিবাদে আল্লামা মামুনুল হক ও মুফতী সাখাওয়াত হুসাইন রাজীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি পুরানা পল্টন মোড় হয়ে দৈনিক বাংলার মোড় দিয়ে বায়তুল মোকাররমে গিয়ে মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয়।
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ : ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আজ রহমাতুল্লিল আলামীন কনফারেন্সে প্রশাসনের বাধায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকার করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশে-এর মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। এক বিবৃতিতে ইউনুছ আহমাদ বলেন, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)এর জীবনী আলোচনার অনুষ্ঠানে বাধা দেয়ায় রাসুল (সা.) প্রেমিক জনতাকে বিস্মিত ও মর্মাহত করেছে। তিনি বলেন, রহমাতুল্লিল আলামীন কনফারেন্স কোন রাজনৈতিক কিংবা সরকার বিরোধী কোন অনুষ্ঠান ছিল না। এটা নবী (সা.) এর জীবনীমূলক সীরাত প্রতিযোগিতা, পুরস্কার বিতরণী এবং আলোচনা ছিল। সরকার এধরণের একটি অনুষ্ঠানে কেন বাধা দিল? নবী (সা.) এর জীবনী আলোচনায় বাধা দিয়ে সরকার অত্যন্ত খারাপ দৃস্টান্ত স্থাপন করেছে। মহাসচিব বলেন, এধরণের আলোচনায় বাধা দিয়ে সরকার নিজেকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। এর জন্য সরকারকে খেসারত দিতে হতে পারে।
বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন: বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নায়েবে আমির ও দলের ঢাকা মহানগরীর আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী এক বিবৃতিতে বলেছেন, যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় অনুমতি ও সব রকমের প্রস্তুতি সম্পন্ন করার পর আজ অনুষ্ঠান শুরু করার মুহূর্তে হুট করে ইঞ্জিনিয়ার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে রাহমাতাল্লিল আলামিন কনফারেন্স বন্ধ করে দেয়া দুঃখজনক। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। একটি মুসলিম রাষ্ট্রে আল্লাহর রাসুল (সা.) এর শানে সেমিনার করতে না দেয়া কোনোভাবেই সহ্য করা যায় না। আজকের সীরাতুন্নবী (সা.) সেমিনার বন্ধ করে দেয়া একটি অশনি সঙ্কেত। তিনি বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে কোরআন তাফসির এবং ওয়াজ মাহফিলগুলো বন্ধ করার কোনো ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না।

 



 

Show all comments
  • Hathazari ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ৬:২৫ পিএম says : 0
    আজ যদি সেখানে কোনো পূজা মন্ডপ বসত তা হলে আওয়ামীলীগের সে সাহস ছিলোনা যে ইহা বন্ধ করিবে
    Total Reply(0) Reply
  • habib ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ৮:১০ পিএম says : 0
    Awamleuger hate Bangladesh Muslim ki nirapod?
    Total Reply(0) Reply
  • Rahees uddin ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ১০:৪৯ পিএম says : 0
    আজকে যদি এখানে কোন হিন্দুরা কোন কিছু করতো তাহলে সরকার আরও সাহায্য করতো
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Nurul Kabir Chowdhury ২০ নভেম্বর, ২০২০, ৫:৪৭ এএম says : 0
    Very sad decision on the part of the government. I denounce it.
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Nurul Kabir Chowdhury ২০ নভেম্বর, ২০২০, ৫:৪৭ এএম says : 0
    Very sad decision on the part of the government. I denounce it.
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Habibullah Sayed ২০ নভেম্বর, ২০২০, ৯:১১ এএম says : 1
    Jhamela to Hefajot prothom korese Shafi ponthider bad die. Kono jhamela hole erai abar bolto eta shakar korese.
    Total Reply(1) Reply
    • A.Hannan ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৪৭ পিএম says : 0
      DALAL---
  • Sazzad hossain ২০ নভেম্বর, ২০২০, ৮:১৩ এএম says : 0
    এই কারণেই সাধারণ মুসলমানের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয় কারণ অন্য কোন ধর্মের অনুষ্ঠান পালন করতে দিচ্ছে অথচ মুসলমানদের অনুষ্ঠানে বাধা যার কারণে সাধারণ মুসলমান অন্য ধর্মের প্রতি সরকারের প্রতি ক্ষোভ পোষণ করছে। আর এই ক্ষোভ একদিন রাষ্ট্রের মধ্যে ধর্মযুদ্ধ রূপ নিতে পারে। এজন্য আমাদের সরকার এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যেন কোন ধর্মীয় অনুষ্ঠান সংস্কৃতি আচার-আচরণে বাধা না দেয়া হয়। বরং সাহায্য ও সহযোগিতা করা হয়। আমার মনে হয় তাহলে সাম্প্রদায়িকতা কমে যাবে
    Total Reply(0) Reply
  • Mizanur Rahman ২০ নভেম্বর, ২০২০, ১১:৩৩ এএম says : 0
    This not fair
    Total Reply(0) Reply
  • Mizanur Rahman ২০ নভেম্বর, ২০২০, ১১:৩৩ এএম says : 0
    This not fair
    Total Reply(0) Reply
  • আব্দুল্লাহ ২০ নভেম্বর, ২০২০, ১১:৪৫ এএম says : 0
    মন্তব্য করার অযোগ্য।
    Total Reply(0) Reply
  • Babul Chowdhury Hm ২০ নভেম্বর, ২০২০, ৮:১৭ এএম says : 6
    আমরা মিডিয়া সামিট দ্বারা জানতে পারলাম যে ইঞ্জিনিয়ারিং ইনষ্টিটিউট মিলনায়তনে সিরাতুন্নবী (সাঃ) সম্মেলনে মরহুম আল্লামা আহমদ শফি সাহেব অনুসারী আলেমগন ঐ সম্মেলনে মারাত্মক বাধার সৃষ্টি করবে। তাই তাতে জনবিশৃংখলা সৃষ্টির সম্ভাবনা দেখা দেওয়ায় পুলিশের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে! এতে ভুল বুঝাবুঝির কোন অবকাশ নেই!
    Total Reply(1) Reply
    • A.Hannan ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৪৫ পিএম says : 0
  • উমর ফারুক ২০ নভেম্বর, ২০২০, ৩:২৭ পিএম says : 0
    এখনি উচিত প্রত্যাক মুসলমানদের এই কথা বুঝা যে, সরকার কোন পথে চলছে।
    Total Reply(0) Reply
  • md.bodiul alam ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১১:৩১ এএম says : 0
    এটা এক প্রকার উচকানি।ইসলাম ধর্মকে সরকার ভয় পায় বিধায় অনুষ্ঠান বানচালের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অথচ ইসলাম শান্তির ধর্ম।
    Total Reply(0) Reply
  • Jack Ali ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৪১ পিএম says : 0
    Those who oppose Islam they cannot be muslim.. Government think that they have power as such they are fighting with Allah by ruling our beloved country by Kaffir Law.. O'Government people you will die any time and if you die in the state of Kaffir you will remain in the Hell Fire fore ever.
    Total Reply(1) Reply
    • MMR ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১০:১২ পিএম says : 1
      Absolutely right! I don't think they realized the consequences of that act if you really look at the president of that organization or our Prime Mininster.The organization's President Mashiur Malek said, "A sculpture is not an idol. Sculptures are symbols of a country's history and tradition. A country's saga of pride is presented to future generations through sculptures and images depicting national leaders, heroes and the struggles of that country."He further said, "A country's sculptures uphold the tradition of a country for generations. Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman is a symbol of national unity. Bangladesh became independent through his struggle. May Allah give them tawfiqe to embrace true faith Islam.
  • Mohamed Amin ২১ নভেম্বর, ২০২০, ৫:১৪ পিএম says : 0
    সরকারকে ভুল পথে পরিচালিত করে একশ্রেণীর পরামর্শদাতাগন। আপনাদের দেখা উচিত ছিল উনারা কি বলবেন। কি কারণে অনুষ্ঠান করতে দেননি সেটা কি আয়োজকদের জানিয়েছেন? এটা কি স্বৈরাচারী মনোভাবের পরিচয় বহন করেনা? সরকারের এই উপদেষ্টাগন মানুষকে সরকারের বন্ধু হতে দিচ্ছে না। আপনারা ভেবে দেখুন। ভালো হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • md imdadul hoque ২১ নভেম্বর, ২০২০, ৬:০৪ পিএম says : 0
    রহমাতুল্লিলআলামীন কনফারেন্স এটি ছিল যুগোপযোগি একটি কনফারেন্স। সরকারের উচিত ছিল এতে সহযোগিতা করা। তা না করে সরকার পুলিশের দ্বারা যেভাবে কনফারেন্স বানচাল করে দিয়েছে, এতে নবীপ্রেমী তৌহিদী জনতা মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে। আমরা এহেন কর্মের জন্য ধিক্কার জানাই।
    Total Reply(0) Reply
  • Jack Ali ২২ নভেম্বর, ২০২০, ৪:১৪ পিএম says : 0
    It was narrated Ali [RA] Prophet [SAW] said: “There is no obedience to any human beingitit involves disobedience to Allah” Hadith: Musnad Ahman 1065. It was narrated that Abul-Hayyaj said: “Ali [RA] said to me - and ‘ Abdur Rahman said: “Ali [RA] ro Abul-Hayyaj: I am sending you on the same mission as the Messenger of Allah [SAW] sent me:do not leave any raised grave without levelling it or any image without erasing it. Stern warning from Allah [SWT] regarding unity of Muslim Ummah: Surah 8:Al-Anfal: Ayat: 73.. And those who disbelieve are allies of one another, [and] if you [Muslims of the whole world collectively] do not do so [i.e: become allies, as on united block under one Khalifah] (a chief Muslim ruler for the whole Muslim world) to make victorious Allah’s religion of Islamic Monotheism), there will be Fitnah [war, battles, rape, adultery, fornication, murde,polytheism] and oppression on the earth, and a great mischief and corruption will spread every corner in the world.
    Total Reply(0) Reply
  • Shahin ২৩ নভেম্বর, ২০২০, ৯:৫০ এএম says : 0
    Ata oder dormandota
    Total Reply(0) Reply
  • জহিরুল ইসলাম চৌধুরী ২৩ নভেম্বর, ২০২০, ১০:২৯ পিএম says : 0
    কি বলব দুঃখের কথা...!! মুসলমান কেন নিজের ধর্মের কথা বাদ দিয়ে অন্য কিছু চিন্তা করে। (ইন্নাল ওলামা ওরাসাতিল আম্বিয়া) অর্থ আলেমগণ নবীর ওয়ারিশ। অথচ সেই আলেমদের বিরুদ্ধে মুসলমান কিভাবে কথা বলে ভাবতে খুব অবাক লাগে...!! আমরা কি সত্যিই মুসলমান নাকি অন্য কিছু? মনে হচ্ছে আমরা নামদারি মুসলমান। বাতিলের আতঙ্ক বাংলার বাঘ আল্লামা মামুনুল হক আমার আইডল।
    Total Reply(0) Reply
  • জহিরুল ইসলাম চৌধুরী ২৩ নভেম্বর, ২০২০, ৮:৪৩ পিএম says : 0
    কি বলব দুঃখের কথা...!! মুসলমান কেন নিজের ধর্মের কথা বাদ দিয়ে অন্য কিছু চিন্তা করে। (ইন্নাল ওলামা ওরাসাতিল আম্বিয়া) অর্থ আলেমগণ নবীর ওয়ারিশ। অথচ সেই আলেমদের বিরুদ্ধে মুসলমান কিভাবে কথা বলে ভাবতে খুব অবাক লাগে...!! আমরা কি সত্যিই মুসলমান নাকি অন্য কিছু? মনে হচ্ছে আমরা নামদারি মুসলমান। বাতিলের আতঙ্ক বাংলার আল্লামা মামুনুল হক আমার আইডল।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ