Inqilab Logo

শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

দুইজন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষের উপস্থিতিতে লাউড স্পিকারে আমি মোহরানা উল্লেখ করে একজন মহিলাকে বিয়ের প্রস্তাব দিই এবং ঐ মহিলা তা গ্রহন করেন। এতে কি আমাদের বিয়ে হয়ে যাবে? উল্লেখ্য, সাক্ষীরা মহিলাকে সরাসরি চেনেন না এবং মহিলা প্রাপ্ত বয়স্কা।

হাসানুল ফরহাদ
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ৭:০৯ পিএম

উত্তর : পর্দার আড়ালের মহিলাটি যদি আপনার সাথে বিয়ের যোগ্য হন, তাহলে সাক্ষীরা তাকে প্রত্যক্ষভাবে না চিনলেও বিয়ে হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে এমন দু’জন বা আরও বেশী লোক এ বিয়ের পাত্র-পাত্রী দু’জনের ব্যাপারেই বেশ জানাশোনা এবং কোনো সমস্যা দেখা দিলে কর্তৃপক্ষের নিকট সাক্ষী দেওয়ার মতো থাকতে হবে। কেবল আনুষ্ঠানিক দু’জন সাক্ষী, সাক্ষী থাকার প্রয়োজন পূরণ করতে পারে বটে কিন্তু আলোচ্য সমস্যার সময় তারা কাজে আসে না। এজন্য সন্তানের বংশ পরিচয়, বিবাহ, তালাক, খোরপোষ, জীবন-মৃত্যু, এক সঙ্গে বসবাস বা এ ধরণের সমস্যার ক্ষেত্রে সাক্ষী দিতে পারে এমন একদল নারী পুরুষ কিংবা অন্তত দু’জন পুরুষ সাক্ষী বিবাহের ক্ষেত্রে জরুরী। এ প্রয়োজন পূরণ হয় না, এমন সাক্ষী সাক্ষী নয়। আপনার প্রশ্নের বিষয়টি বিধিগত শুদ্ধ হবে, তবে আসলে এভাবে সাক্ষীর শরয়ী প্রয়োজন পূরণ হবে কি না, তা বিশ্লেষণের অপেক্ষা রাখে।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
[email protected]

 

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
[email protected]



 

Show all comments
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ২২ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫২ পিএম says : 0
    প্রশ্নঃ আমি একটা মেয়ের সাথে দীর্ঘদিন যাবত প্রেম ভালোবাসার সম্পর্ক করি। তাকে বিয়ে করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু হঠাৎ করেই শুনি সে মারা গেছে। তারপর তার মৃত্যুর রহস্য জানতে পারি যে, আমার আগে সেই মেয়েটি আরও এক ছেলের সাথে প্রেমের সম্পর্ক করেছিলো। এবং সেই ছেলেটাই তাকে কৌশলে বারি থেকে বের করে রাতের অন্ধকারে মেরে ফেলে। এখন কথা হচ্ছে মেয়েটার সাথে আমার শারীরিক সম্পর্ক অনেকবার হয়েছে। জানি না অই ছেলের সাথেও তার শারীরিক সম্পর্ক ছিলো কিনা। মেয়েটি নামাজি, পর্দাশীল,আল্লাহভীরু ছিলো। কোনো নামাজ কাজা করেনি। প্রশ্ন হচ্ছে মেয়েটি কি জান্নাত পাবে কি না? আমি মেয়েটাকে এখনও ভালোবাসি ওর জন্য দোয়া করি।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন

প্রশ্ন : এক ব্যক্তি আমার বেশ কিছু টাকা আত্মসাৎ করেছিল। প্রায় ১৬ বছর আইনি লড়াইয়ের পর আদালতের মাধ্যমে সে টাকা আমি ফেরত পেয়েছি। উক্ত টাকা ছাড়াই আমার নিসাব পরিমান সম্পদ শুরু থেকেই ছিল এবং উক্ত টাকা বাদ দিয়ে আমি আমার সম্পদের যাকাত দিয়ে আসছি। এখন প্রশ্ন এই যে, আত্মসাৎকারীর টাকা ফেরত পাওয়ার এক বছর পর কী এই টাকার উপর যাকাত দিতে হবে নাকি বিগত সব বছরের জন্য যাকাত দিতে হবে। এ আইনি লড়াইয়ে আমার যে পরিমান টাকা ব্যয় হয়েছে তা বাদ দিয়ে অবশিষ্ট টাকার, নাকি ফেরত পাওয়া সম্পূর্ণ টাকার ওপর যাকাত দেব ?

উত্তর : ফেরত পাওয়া সম্পূর্ণ টাকার যাকাত দিতে হবে। ফেরত না পেলে যাকাত দিতে হতো না। ফেরত পাওয়ার সম্ভাবনা কম থাকলেও যাকাত দিতে হত না।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ