Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

‘মানুষের জীবনেরও কোনো নিরাপত্তা নেই’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০২ এএম

বর্তমান সরকারের আমলে আইনের শাসনের ছিটেফোঁটাও অবশিষ্ট নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স। তিনি বলেন, বিরোধী রাজনৈতিক নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের জীবনেরও কোন নিরাপত্তা নেই। বর্তমান অনৈতিক সরকার চিরকাল ক্ষমতা কুক্ষিগত রাখার অসৎ উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে এতটাই মরিয়া হয়ে উঠেছে যে, তারা বিরোধী নেতাকর্মীদের ভয় পাইয়ে দিতেই মিথ্যা মামলা, গ্রেফতারের পাশাপাশি গুমের রাজনীতির ওপর ভর করেছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নিয়ে যারা বড় বড় বুলি আওড়ান তারা এখন স্বাধীন দেশের নাগরিকদের জীবনকে বিপন্ন করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকেই অবমাননা করছে। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং প্রশাসনকে কব্জায় নিয়ে দেশে চলছে আওয়ামী ফ্যাসিবাদ। এধরণের ভয়াবহ পরিস্থিতি উত্তরণে সকল রাজনৈতিক দল, মানবাধিকার সংস্থা, সুশীল সমাজসহ বিবেকবান সকল মানুষকে সোচ্চার হওয়ার আহবান জানান তিনি। 

গতকাল বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সম্প্রতি নিখোঁজ হওয়া নেতাকর্মীদের কয়েকজনের পরিবারের সদস্যদের সাথে নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রিন্স এসব কথা বলেন। নেতাকর্মীদেরকে গুম করার ভয়ঙ্কর সংস্কৃতি থেকে সরকারকে দূরে সরে আসার আহবান জানিয়ে এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, নইলে এদেশের মানুষ এর ন্যায্য হিস্যা আদায় করে ছাড়বে। তিনি বলেন, গত ১৭ নভেম্বর যুবদল নেতা লিয়ন হককে তার বাসা থেকে, ১৮ নভেম্বর সরকারের দায়ের করা মিথ্যা মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে বের হওয়ার সময় তুরাগ থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মামুন পারভেজ তন্ময় এবং তার সাথে তুরাগ থানা যুবদলের সহ-সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম হাসিব এবং বুধবার সন্ধ্যায় উত্তরা ৫নং সেক্টর থেকে উত্তরা-পশ্চিম থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস মজুমদার মাসুমকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে সাদা পোশাকধারীরা উঠিয়ে নিয়ে গেছে। এর পর থেকে সংশ্লিষ্ট থানাসহ ঢাকার বিভিন্ন থানা ও সংস্থার দফতরে যোগাযোগ করে খোঁজ নেয়া হলে তাদেরকে আটকের বিষয়টি অস্বীকার করছে।

বিএনপির এই নেতা দলের পক্ষ থেকে অবিলম্বে লিয়ন হক, মামুন পারভেজ তন্ময়, তৌহিদুল ইসলাম হাসিব এবং ফেরদৌস মজুমদার মাসুমকে জনসম্মুখে হাজির করার আহবান জানান। নইলে তাদের নিয়ে অনাকাঙ্খিত ঘটনার অবতারণা হলে এর দায়-দায়িত্ব সরকার ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকেই বহন করতে হবে।

নিখোঁজ নেতাকর্মীদের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লিয়ন হকের বোন আফরোজা পারভিন জেবা, স্ত্রী নিশাত ফাতেমা নিশি, মেয়ে মারিয়া হক নিকি। ফেরদৌস মজুমদার মাসুমের মামা মো. সুমন। তৌহিদুল ইসলাম হাসিবের ভাই মুজাহিদুল ইসলাম সজিব। নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন, যুবদলের এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মানুষের-জীবন
আরও পড়ুন