Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

চিঠিপত্র

পরিবেশ রক্ষায় প্রয়োজন ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনা

| প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

বর্তমান তথ্য ও প্রযুক্তির যুগ। এই যুগে এসে মানুষ নতুনত্ব প্রযুক্তির সাথে পরিচিত হতে পেরেছে। নতুন নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করছে, যা অতীতে ছিল না। প্রযুক্তির কল্যাণে অগ্রযাত্রায় দিন দিন বেড়ে চলছে মোবাইল ফোনসহ নানা ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইসের ব্যবহার। সবার হাতে শোভা পাচ্ছে নিত্যনতুন ফোন। আর এসব ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস এক সময় নষ্ট হয়ে যায়। ফলে, যেখানে সেখানে ফেলে দেওয়া হচ্ছে। এতে করে পরিবেশ দূষণ হচ্ছে। দেশে ই-বর্জ্য আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে চলছে। বাংলাদেশ পরিবেশ অধিদপ্তরের এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২০১৮ সালে বাংলাদেশে ৪ লাখ টন ই-বর্জ্য হয়েছে। আশংকা করা হচ্ছে, পরবর্তী ৫ বছরের মধ্যে ১২ লাখ টন ছাড়িয়ে যাবে। আর তা রোধ করার জন্য বিভিন্ন সংস্থা উদ্যোগ নিয়েছে এবং বাস্তবায়ন করছে। এমনকি নষ্ট বা পুরনো মোবাইলে টাকার বিনিময় ফেরত নেওয়ার কথা বলেছে বাংলাদেশ মোবাইল ইমপোটার্স এসোসিয়েশন। প্রতিবছর বাংলাদেশে চার কোটি মোবাইল নষ্ট হয়। গত কয়েক বছর ধরে প্রায় তিন কোটি হ্যান্ডসেট আমদানি করা হচ্ছে। ফলে এখান থেকে ই-বর্জ্য তৈরি হচ্ছে। আর সেটা পরিবেশের উপর মারাত্মক প্রভাব ফেলেছে। এসব মানব শরীরের জন্য ক্ষতিকর। তাই, ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহারে নিয়ম জানা থাকতে হবে। সে ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। পুরনো সামগ্রী ব্যবহার হতে বিরত থাকতে হবে এবং ই-বর্জ্য নির্দিষ্ট জায়গায় ফেলতে হবে।

মো. সায়েম আহমাদ
শিক্ষার্থী, ঢাকা কলেজ, ঢাকা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

৫ ডিসেম্বর, ২০২০
৪ ডিসেম্বর, ২০২০
১ ডিসেম্বর, ২০২০
৩০ নভেম্বর, ২০২০
২৯ নভেম্বর, ২০২০
২৮ নভেম্বর, ২০২০
২৭ নভেম্বর, ২০২০
২৫ নভেম্বর, ২০২০
২৪ নভেম্বর, ২০২০
২৩ নভেম্বর, ২০২০
২২ নভেম্বর, ২০২০
২১ নভেম্বর, ২০২০
২০ নভেম্বর, ২০২০
১৯ নভেম্বর, ২০২০
১৭ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন