Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সুস্থতার চেয়ে শনাক্ত বেশি

দেশে করোনাভাইরাস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে বাসার বাইরে সব জায়গায় সবার মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেট, গণপরিবহন, শপিং মলসহ টার্মিনাল, ফুটপাথে চলাচল করা মানুষের অর্ধেকের মুখে মাস্ক দেখা যায়নি। মানুষ যেন এখনো বেখেয়ালি। অথচ স্বাস্থ্য অধিদফতরের কয়েকদিনের হিসেবে যে চিত্র উঠে এসেছে তাতে দেখা যায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সুস্থতার চেয়ে শনাক্ত বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরো ১৭ জন। সেই সঙ্গে ২ হাজার ২৭৫ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

গতকাল সংবাদ মাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতর কোভিড-১৯ সংক্রমণের সর্বশেষ এই তথ্য জানিয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত একদিনে নতুন ২ হাজার ২৭৫ জনকে নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪ লাখ ৪৩ হাজার ৪৩৪ জন। আরো ১৭ জন মারা যাওয়ায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৩২২ জনে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের হিসাবে বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরো ১ হাজার ৭০৯ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত এক দিনে। তাতে সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৩ লাখ ৫৮ হাজার ৪৩১ জন হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের হিসেবে দেখা যায় প্রতিদিন করোনা রোগীদের সুস্থতার চেয়ে শনাক্তের সংখ্যা বাড়ছে।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গত ৮ মার্চ, তা ২৬ অক্টোবর ৪ লাখ পেরিয়ে যায়। এর মধ্যে গত ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত। প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর। ৪ নভেম্বর তা ৬ হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।
জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় বিশ্বে শনাক্তের দিক থেকে ২৪তম স্থানে আছে বাংলাদেশ। তবে মৃতের সংখ্যায় রয়েছে ৩৩তম অবস্থানে। বিশ্বে এ পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ইতোমধ্যে ৫ কোটি ৬৯ লাখ পেরিয়েছে। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে ১৩ লাখ ৬১ হাজার।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ১১৭টি ল্যাবে ১৫ হাজার ৬০৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ২৬ লাখ ২২ হাজার ৫৫৯টি নমুনা। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৫৮ শতাংশ। এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৯১ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮০ দশমিক ৮৩ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

 

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মৃত্যু


আরও
আরও পড়ুন