Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ০৭ মাঘ ১৪২৭, ০৭ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

রামগতি শ্নীলতাহানির মামলা করে তরুণীর পরিবার নিরাপত্তাহীনতায়

রামগতি (লক্ষ্মীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১১:৩২ এএম

লক্ষ্মীপুরের রামগতি প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীর শ্নীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মামলা করার পর আসামি পক্ষের লোকজন হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। এতে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে ওই তরুণীর পরিবার।

মামলার এজাহার ও ভুক্তভোগী তরুণীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, মেঘনা নদীর ভাঙনে কমলনগর উপজেলার চরফলকন এলাকার বসতবাড়ি হারিয়ে চার বছর আগে তরুণীর পরিবার পার্শ্ববর্তী রামগতি উপজেলার চর আলেকজান্ডার ইউনিয়নের বালুরচর এলাকায় অন্যের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। ওই বাড়ির আবু মুন্সীর ছেলে আমির হোসেনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক হয় তরুণীর। এরপর বিয়ের প্রলোভনে তরুণীর শ্নীলতাহানি করে আমির হোসেন। বিয়ের আশ্বাস দিয়ে সময়ক্ষেপণ করতে থাকে আমির। এক পর্যায়ে মেয়েটি আমিরের বিরুদ্ধে মামলা করে।

ভুক্তভোগী তরুণীর মা জানান, সহায়-সম্বলহীন হওয়ার কারণে তার মেয়েকে আমিরের পরিবার বউ করে নিতে চাচ্ছে না। এতে করে তার মেয়ের ভবিষ্যৎ চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে। এ ব্যাপারে সমাজের গণ্যমান্যদের কাছে বিচার চেয়ে কোনো সমাধান পাননি। তাই থানায় মামলা করেছেন। কিন্তু মামলা করার পর থেকে আমিরের চাচা মো. আলাউদ্দিনসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা তাদের বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধমকি দিচ্ছেন।

তিনি আরও জানান, তার স্বামী চট্টগ্রামের মাছ ধরার একটি ট্রলারে কাজ করছেন। বেশিরভাগ সময় তিনি গভীর সমুদ্রে অবস্থান করেন। যে কারণে ছোট দুটি বাচ্চা ও তরুণী মেয়েকে নিয়ে বাড়িতে একা থাকতে হয় তাকে। আসামি পক্ষের হুমকি-ধমকির কারণে চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন।

এসব বিষয়ে অভিযুক্ত আমির হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। রামগতি থানার ওসি মোহাম্মদ সোলাইমান জানান, আমির হোসেনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, ভুক্তভোগী অসহায় ওই পরিবারটির নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



 

Show all comments
  • Jack Ali ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৩৮ পিএম says : 0
    This woman is 100% responsible because Allah [SWT] forbade muslim man and women not mix together and they must fall in love before marriage.. If our country is rule by the Law of Allah then all the crime will stop so that people can live in peace with security.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নিরাপত্তা

২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ