Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

কাবুলে রকেট হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮, আহত ৩১

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ নভেম্বর, ২০২০, ৪:৪৬ এএম

আফগানিস্তানে দফায় দফায় রকেট হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ জনে। আফগান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, শক্তিশালী বিস্ফোরণে অন্তত ৩১ জন আহত হয়েছেন। কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।
কাবুলের পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শনিবার (২১ নভেম্বর) একাধিক শক্তিশালী রকেট বিস্ফোরণ ঘটে। একে ‘ম্যাগনেটিক’ বিস্ফোরণ বলছেন অনেকে। এখন পর্যন্ত ১৪টি রকেট হামলার খবর জানা গেছে।
বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট রক্তে ছেয়ে গেছে। সেসব স্থানে হামলা হয়েছে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে ধ্বংসস্তূপের চিত্র। শহরজুড়ে চুলচেরা অভিযান শুরু করেছে বিশেষ বাহিনী। যোগ দিয়েছে সেনা সদস্যরাও।
এদিকে খায়ের খানা এলাকায় প্রকট বিস্ফোরণের শব্দে শিক্ষার্থীরা আতঙ্কে রাস্তায় ছোটাছুটি করতে থাকে। সিরিজ বোমা হামলার দায়ভার এখনো কোন গোষ্ঠী স্বীকার করেনি।
আফগানিস্তানে কর্মকর্তারা বলছেন আজ সকালে প্রায় ২৪টি মর্টার শেল কাবুল শহরের কেন্দ্রস্থলে আঘাত হানলে কমপক্ষে আটজন নিহত এবং ৩১ জন আহত হয়েছে। সেখানকার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান জানান, দুটি গাড়ির পেছন থেকে এই সব রকেট নিক্ষেপ করা হয় এবং তা রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে গিয়ে আঘাত হানে। কাবুলে ইরানি দূতাবাস বলে, একটি রকেট তাদের প্রাঙ্গনে গিয়ে পড়ে। টুইটারে তারা জানায় “সৌভাগ্যবশত কেউ হতাহত হয়নি। দূতাবাসের কর্মচারীরা সকলেই ভাল আছেন”।
এ মাসের গোড়ার দিকে আত্মঘাতী পোশাক পরা ইসলামিক স্টেটের তিনজন বন্দুকধারী কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে আঘাত হেনে ২২ জনকে হত্যা করে যাদের অধিকাংশই আফগান শিক্ষার্থী । তখন ক্যাম্পাসে ইরানি রাষ্ট্রদূতও উপস্থিত ছিলেন তবে তিনি অক্ষত অবস্থায় বেরিয়ে আসেন। তালিবান বিদ্রোহী গোষ্ঠির একজন মুখপাত্র আজকের এই হামলার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার বিষয়টি দ্রুতই অস্বীকার করেছে, তবে তাতে এই সন্দেহই বাড়ছে যে, এর পেছনে ইসলামিক স্টেট থাকতে পারে। এই সন্ত্রাসী সংগঠনটি মার্চ মাসে এ ধরণের আক্রমণ চালানোর কথা স্বীকার করেছিল যার লক্ষ্য ছিল কাবুলে প্রেসিডেন্টের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান।
আজকের এই সহিংসতার কয়েক ঘন্টা পরই দোহায় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও’র তালিবান আলোচক এবং আফগান প্রতিনিধিদের সঙ্গে পৃথক পৃথক ভাবে আলোচনা করার কথা। পম্পেও বর্তমানে ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের সাতটি দেশ সফর করছেন।
যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র বিভাগ গতকাল জানায় যে, পররাষ্ট্র মন্ত্রী দোহায় কাতারি নেতাদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করবেন। কাবুলে যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূত রস উইলস এই রকেট হামলার নিন্দে করেছেন। তিনি এক টুইট বার্তায় লেখেন, “আফগানদের এই আতঙ্কের মধ্যে বাস করার কথা নয়। এই ঘটনার যারা শিকার এবং হতাহতদের পরিবারের প্রতি আমি দুঃখ প্রকাশ করছি, যুক্তরাষ্ট্র এ ধরণের আক্রমণ বন্ধ করতে এবং আক্রমণকারীদের জবাবদিহিতার জন্য আমাদের আফগান সহযোগীদের সঙ্গে কাজ করে যাবে”। সূত্র : বিবিসি, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান


আরও
আরও পড়ুন