Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ১৩ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা ছাড়া মাদক ও জুয়া খেলার মত অপরাধ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয় -এসএমপি কমিশনার নিশারুল আরিফ

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২২ নভেম্বর, ২০২০, ৫:৪৪ পিএম

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালী থানার অনুষ্ঠিত হয়েছে ওপেন হাউজ ডে। আজ সোমবার (২২ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টায় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ এর কোতোয়ালী মডেল থানা প্রাঙ্গণে কোতোয়ালী মডেল থানার ওপেন হাউজ ডে-২০২০ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন এসএমপির পুলিশ কমিশনার মো. নিশারুল আরিফ। আরও উপস্থিত ছিলেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি জনাব মো. মাসুক উদ্দিন আহমেদ, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব এডভোকেট নাসির উদ্দীন, সহকারী পুলিশ কমিশনার মোঃ সামছুদ্দিন সালেহ আহমদ চৌধুরী পিপিএম বার (কোতোয়ালী মডেল থানা), থানা এলাকার জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানে অত্র এলাকার স্থানীয় জনসাধারণ, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক প্রতিনিধি ও সাংবাদিক প্রতিনিধিবৃন্দ পুলিশের কার্যক্রম ও এলাকার নাগরিক সমস্যা নিয়ে তাদের নিজ নিজ বক্তব্য পুলিশ কমিশনারের সম্মুখে উপস্থাপন করেন। অনেক জনসাধারণ পুলিশের সাম্প্রতিক কর্মকান্ডের ভূয়সী প্রশংসার পাশাপাশি এলাকার বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা সম্পর্কেও খোলামেলা বক্তব্য উপস্থাপন করেন। অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার স্থানীয় জনসাধারণের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য আস্বস্ত সহ দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য প্রদান করেন। পুলিশ কমিশনার এসময় আরো বলেন, স্থানীয় জনগণের প্রত্যক্ষ সহযোগিতা ছাড়া মাদক ও জুয়া খেলার মত অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব পর নয়। এই বিষয়ে সকলের সহযোগিতা ও এগিয়ে আসার আহবানও জানান তিনি। প্রতি মাসের ২২ তারিখে কোতোয়ালী মডেল থানা প্রাঙ্গণে মাসিক ওপেন হাউজ ডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে মর্মে ঘোষণা করেন তিনি।

‘আগামীতে আমরা আমিরে হেফাজত চাইনা, আমরা চাই আমিরুল মুমিনিন’ বলে মন্তব্য করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ সিলেট মহানগরী শাখার সাধারন সম্পাদক শাহ মমশাদ আহমদ। তিনি বলেন, হেফাজত সরকারের কোথায় চলে না, হেফাজত চলে আল্লাহর ইশারায়।

আজ শনিবার (২১ নভেম্বর) সিলেট রেজিস্টারি মাঠে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ সিলেট শাখার উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে এ বক্তব্য দেন তিনি।

এ সময় তিনি আরও বলেন, আমরা তো সে জাতি, যারা স্বাধীনতার জন্য এক সাগর রক্ত ঢেলে দিয়েছিলাম। এবার প্রয়োজনে আমার নবীর ইজ্জত রক্ষার জন্য ১০০ সাগর রক্ত দিতে রাজি আছি ইনশাআল্লাহ।

হেফাজতের আবার পুনর্জাগরণ হয়েছে উল্লেখ করে এ বক্তা বলেন, হেফাজতের পুনর্জাগরণের পর এবার সিলেট থেকে আবারও সে আন্দোলন শুরু হবে ইনশাআল্লাহ। তিনি বলেন, বাংলার ভূমিতে কোন নাস্তিক মুরতাদকে বরদাশত করা হবে না। বাংলার ভূমিতে কোন ভাস্কর্য নির্মাণ করতে দেয়া হবে না। কাদিয়ানীদের অবশ্যই অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে।

প্রশাসনকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘পরিশেষে প্রশাসনকে একটি কথাই বলবো। আজকে সিলেট কোর্ট পয়েন্টে সমাবেশের কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু আপনারা পারমিশন দেননি। তাই আমরা রেজিস্টার মাঠে করছি। আগামী দিনে হেফাজত কোন পারমিশন নিয়ে প্রোগ্রাম করবে না। আমরাতো তারা, যাদের রক্তে মুজাহিদে মিল্লাত প্রিন্সিপাল হাবিবুর রহমান এর রক্ত বহমান। যে প্রিন্সিপাল বলেছিলেন, গান-বাজনার অনুমতি তুমি সচিবালয় থেকে নিয়ে এসেছো, আর গান-বাজনা বন্ধের নির্দেশ আসমান থেকে এনেছি।’

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ সিলেট শাখার উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশ চলমান। বাদ আসর হেফাজত আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, মহাসচিব আল্লামা নূর হুসাইন কাসেমী ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক বক্তব্য রাখবেন বলে জানা গেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন