Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৯ মাঘ ১৪২৭, ০৯ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জমিদখলের ঘটনায় মামলা

পার্বতীপুরে সংখ্যালঘু নরসুন্দর পরিবারকে প্রাণ নাশের হুমকি

পার্বতীপুর সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০২০, ২:৩৬ পিএম

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে সংখ্যালঘু নরসুন্দর চেনা ঠাকুর পরিবারের জমি দখলের ঘটনায় প্রাণ নাশের হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বেলা ২ টায় পার্বতীপুরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে চেনা ঠাকুরের (৭০) ছেলে সন্তোষ ঠাকুর তার স্ত্রী পপি দেবী, পুত্র পল্লব ঠাকুর ও চার বছরের কণ্যা শিশু পিঁউ রাণীকে সাথে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হন।
চেনা ঠাকুরের পুত্রবধু পপি দেবী কান্নাজড়িত কন্ঠে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, উপজেলার মনমথপুর ইউনিয়নের তাজনগর দ্যাগলাগঞ্জ বাজার সংলগ্ন পৈত্রিক ও ক্রয় সূত্রে পাওয়া (তাজ নগর মৌজার ৬৫৫ খতিয়ানের ৯৮০ নম্বর দাগের) ৮৭ শতক জমি নিয়ে একই এলাকার নজরুল কাজী, নুরুল ইসলাম কাজী, মিজান কাজী গং এর সাথে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ ও মামলা চলে আসছে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে গত ৪ অক্টোবর থানায় অভিযোগ দেন সন্তোষ ঠাকুর। এই অভিযোগ আমলে নিয়ে মামলা রেকর্ড করা হয় ১২ অক্টোবর। এঘটনায় অভিযুক্তরা সংখ্যালঘু চেনা ঠাকুরের পরিবারকে মামলা তুলে নিতে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। এদিকে, ১৯ নভেম্বর পার্বতীপুর মডেল থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাধারণ ডায়েরী (জিডি-৮৭৫) করেন চেনা ঠাকুরের ছেলে। এর পরও প্রতিকার না পেয়ে সংবাদকর্মীদের দ্বারস্থ হয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন তারা। সংবাদ সম্মেলনে ন্যায় বিচারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কমনা করেন পপি দেবী।

উল্লেখ্য, গত ৪ অক্টোবর ভোর রাতে অভিযুক্তরা উল্লেখিত জমির জবরদখল করতে গেলে বাঁধা দেন বয়বৃদ্ধ চেনা ঠাকুর ও তার পরিবার। এসময় চেনা ঠাকুরকে তুলে বেধড়ক মারপিট ও শ্বাসরোধ করে হত্যার উদ্দেশ্যে । পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

 

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ