Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

এপ্রিল থেকে অবৈধ হ্যান্ডসেটে সিম কাজ করবে না

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

গ্রাহকের ব্যবহৃত হ্যান্ডসেট ও জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে সিনেসিস আইটির সাথে এনইআইআর সিস্টেম স্থাপন সংক্রান্ত চুক্তি করেছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা (বিটিআরসি)। ২০২১ সালের মার্চের মধ্যেই এ সংক্রান্ত হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যারের সরবরাহ, স্থাপন ও অপারেশনাল কার্যক্রম চালু করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে চুক্তি সম্পাদনকারী প্রতিষ্ঠান সিনেসিস আইটি। ফলে এপ্রিল থেকে অবৈধ হ্যান্ডসেটে মোবাইল সিম কাজ করবে না। গতকাল বুধবার মোবাইল গ্রাহকের হ্যান্ডসেটের নিরাপত্তা বিধান, সরকারের রাজস্ব আয় বৃদ্ধি, জাতীয় নিরাপত্তা, অবৈধ ও নকল মোবাইল হ্যান্ডসেটের বিক্রয়/আমদানি ও বাজারজাতকরণে নিরুৎসাহিত করার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিকভাবে সফট সলিউশন প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সিনেসিস-রেডিসন-কম্পিউটার ওয়ার্ল্ড জেভির সাথে বিটিআরসি ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেনটিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) সিস্টেম স্থাপন সংক্রান্ত চুক্তি সম্পন্ন করেছে।
কমিশনের চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক ও স্পেকট্রাম বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শহীদুল আলমের উপস্থিতিতে কমিশনের তরঙ্গ ব্যবস্থাপনা বিভাগের পরিচালক লে. কর্নেল মো. ফয়সল এবং সিনেসিস আইটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোহরাব আহমেদ চৌধুরী স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন।
বিটিআরসি চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক বলেন, এনইআইআর সিস্টেম সম্পন্ন হলে সরকার প্রতিবছর চার হাজার কোটি টাকার মত বাড়তি রাজস্ব পাবে। চুক্তি পাওয়া প্রতিষ্ঠান চুক্তির শর্ত মোতাবেক যথাসময়ে কাজ শেষ করবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। মো. শহীদুল আলম তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এনইআইআর সিস্টেমের কারিগরী বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন এবং আশা প্রকাশ করেন, সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে মোবাইল অপারেটরদের প্রয়োজনীয় ও ত্বরিত সহযোগিতা পাওয়া গেলে সফলভাবে গ্রাহকপ্রান্তে এই সেবাটি পৌঁছে দেয়া সম্ভব হবে।
উদ্বোধনী উপস্থাপনায় কমিশনের স্পেকট্রাম বিভাগের উপ-পরিচালক সনজিব কুমার সিংহ এনইআইআর প্রযুক্তি আনয়নে নিয়ন্ত্রক সংস্থার কার্যক্রমের বিশদ বর্ণনা করেন এবং কমিশনের গণমাধ্যম শাখার উপ-পরিচালক জাকির হোসনে খাঁন এই প্রযুক্তিতে সাধারণ গ্রাহকের সংশ্লিষ্টতা এবং করণীয় বিষয়ে উপস্থিত গণমাধ্যমকে অবহিত করেন।
বিটিআরসির এনওসি অটোমেশন এবং আইএমইইআই ডাটাবেইজ (এনএআইডি) সিস্টেমে ইতোমধ্যে প্রায় ১৪ কোটি আইএমইআই্ নম্বর সংযোজন হয়েছে। এনএআইডি সিস্টেমের আইএমইআইসমূহ, মোবাইল অপারেটরের ইআইআর এবং বিটিআরসিতে স্থাপিত জাতীয় পর্যায়ের কেন্দ্রীয় এনইআইআর একটি সমন্বিত সিস্টেম হিসেবে কাজ করবে। এনইআইআর সিস্টেমটি সরাসরি প্রত্যেক মোবাইল অপারেটরের স্ব স্ব ইআইআর এর সাথে সংযুক্ত থাকবে। গ্রাহকদের মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট স্বয়ংক্রিয়ভাবে মোবাইল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে নিবন্ধিত হয়ে ব্যবহার উপযোগী হবে। এনইআইআর সকল হ্যান্ডসেটের বৈধতা যাচাইয়ের মাধ্যমে মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেটের প্রবেশাধিকার বিষয়ে তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত দিবে। বিদেশ থেকে নিয়ে আসা হ্যন্ডেসেট গ্রাহকের আবেদনের প্রেক্ষিতে এনইআইআর এর ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে ক্রয়ের রশিদ যাচাই সাপেক্ষে এবং যেসকল সেট উপহার হিসেবে দেশে এসেছে, তা যথেষ্ট প্রমাণকের ভিত্তিতে যাচাই-বাছাই সাপেক্ষে কমিশনের সিদ্ধান্তের আলোকে এনইআইআর এ সক্রিয় (হোইটলিস্টেড) করা হবে। ইআইআর (ইআইআর) সিস্টেম পরিচালনায় ইতোমধ্যে গত ১১ ফেব্রুয়ারিতে একটি গাইডলাইন প্রস্তুত করা হয়েছে। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র, কমিশনার ইঞ্জিনিয়ার মো. মুহিউদ্দিন আহমেদ, কমিশনের বিভিন্ন বিভাগের মহাপরিচালক ও পরিচালকবৃন্দ, সিনেসিস আইটির মহাব্যবস্থাপক ও হেড অব বিজনেস তানভীর আলম এবং মহাব্যবস্থাপক মো. আমিনুল বারী শুভ্র প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অবৈধ-হ্যান্ডসেট
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ