Inqilab Logo

বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

চরম দারিদ্র্য নিরসনের লক্ষ্য পূরণ করল চীন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

পাঁচ বছরের দীর্ঘ লড়াইয়ের পর এ সপ্তাহে এসে দেশব্যাপী চরম দারিদ্র্য নিরসনের উল্লেখযোগ্য মাইলফলক অর্জন করেছেন চীন। কিন্তু এ অর্জনে আবেগে ভেসে গিয়ে এখনই উদযাপন করছে না দেশটি। খবর সিএনএন। কয়েক দশক ধরে বিশ্বের অন্যতম দরিদ্র দেশ ছিল চীন, যেখানে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্য ছিল চরম দারিদ্র্যের ইতি ঘটানো। এ চীনা নেতা ২০২০ সালের শেষে গিয়ে লক্ষ্য পূরণে এবং পরিমিত উন্নত সমাজ গঠনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিলেন। মূলত আগামী বছরের জুলাইয়ে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির শতবর্ষ পূর্তি লক্ষ্য সামনে রেখে এ মিশন হাতে নিয়েছিল দেশটি। চীনা সরকার চরম দারিদ্র্যকে সংজ্ঞায়িত করেছিল মাথাপিছু বার্ষিক আয় ২ হাজার ৩০০ ইয়নের (৩৫০ ডলার) কম হওয়াকে। এদিকে গত ৪০ বছর ধরে চীন দ্রুত কৃষিনির্ভর একটি দেশ থেকে নগরায়ণের দিকে ধাবিত হওয়া দেশে পরিণত হয়। যে কারণে শহর অঞ্চলগুলোতে ভিড় বাড়ে এবং গ্রামীণ জনগোষ্ঠী সংকুচিত হয়ে পড়ে। পাশাপাশি তাদের জন্য চাকরির সুযোগও অনেক কমে আসে। এ হ্রাসের মুখে শির দারিদ্র্য বিমোচন নীতিগুলো ধাবিত হয়েছিল গ্রামাঞ্চলের দিকে। এ নীতিমালার অংশ হিসেবে বেইজিং ২০১৪ সাল থেকে ৮৩২টি কাউন্টিতে চরম দারিদ্র্য নিরসনে কাজ করে আসছে। গত সোমবার রাষ্ট্রীয়ভাবে চালিত সংবাদ মাধ্যম সিনহুয়া ঘোষণা করেছে, শেষ নয়টি কাউন্টির নামও তালিকা থেকে মুছে ফেলা হয়েছে, যার সবগুলোই অবস্থিত হচ্ছে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের গুইজো প্রদেশে। যার ফলে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রামগুলোতে আর কোনো কাউন্টি চরম দারিদ্র্য অবস্থায় নেই। সিনহুয়াকে দেশের একজন বিশেষজ্ঞ বলেন, সহস্রাব্দ পুরনো চরম দারিদ্র্যের সমস্যাটি এবার শেষ হয়েছে। কিন্তু এটিকে বড় ধরনের অর্জন মনে হলেও এটিকে দারিদ্র্য নিরসন বোঝায় কিনা তা নিয়ে দেশটির মিডিয়া ও বিশেষজ্ঞদের মাঝে বিভ্রান্তি রয়েছে। রাষ্ট্রীয়ভাবে পরিচালিত টেলিভিশন স্টেশন সিজিটিএন এটি দেশের চরম দারিদ্র্যের শেষ হিসেবে উদযাপন করেছে। তারা বলেছে, নিজেদের আরোপ করা ডেডলাইনের এক মাস আগেই লক্ষ্য অর্জিত হয়েছে। কষ্টার্জিত এ সাফল্য সন্তোষজনক। সিনহুয়া, সিএনএন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দারিদ্র্য-নিরসন
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ