Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৯ মাঘ ১৪২৭, ০৯ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

লোকবল সঙ্কট ও জরাজীর্ণ ভবনে ব্যাহত চিকিৎসা

কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতাল

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে : | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

লোকবল সঙ্কটসহ বিভিন্ন সমস্যা ও অব্যবস্থাপনার কারণে কিশোরগঞ্জের ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালটিতে চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসা সেবা। এর ফলে প্রতিদিনই অসংখ্য রোগী চিকিৎসা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন। ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। দীর্ঘদিন ধরে বিরাজমান এ সমস্যা দ্রুত সমাধানের কোনো উদ্যোগও দৃশ্যমান নয়।
কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের তথ্য অনুযায়ী, হাসপাতালটিতে মোট ৬৫ জন চিকিৎসক কর্মরত থাকার কথা থাকলেও বর্তমানে ৪২টি পদে দীর্ঘদিন ধরে শূন্য রয়েছে। এর মাত্র ২৩ জন চিকিৎসক দিয়ে নামে মাত্র হাসপাতালটি চালু রাখা গেলেও চিকিৎসা সেবা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। চিকিৎসক সঙ্কটের কারণে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছে হৃদযন্ত্রের সমস্যা জনিত কার্ডিয়াক রোগীরা। এ বিভাগে কোনো চিকিৎসক না থাকায় দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে কার্ডিয়াকবিভাগ বা সিসিইউ। এর ফলে কার্ডিয়াক রোগীরা ঝুঁকি নিয়ে হাসপাতালের অন্যান্য সাধারণ ওয়ার্ডে চিকিৎসা নিচ্ছেন অথবা অন্য কোনো হাসপাতালে চলে যাচ্ছেন।
এছাড়াও চিকিৎসক না থাকার কারণে নাক, কান ও গলা, চর্ম ও যৌন এবং ডেন্টাল এ তিন বিভাগও দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে। এর ফলে প্রতিদিনই অনেক রোগী এ বিভাগগুলোতে চিকিৎসা না নিয়ে বাধ্য হয়ে ফিরে যাচ্ছেন। চিকিৎসক না থাকার কারণে অব্যবহৃত থাকায় নষ্ট হচ্ছে চিকিৎসা সরঞ্জামাদি। এছাড়াও আরো অনেক বিভাগে প্রয়োজনীয় লোকবলের চেয়ে কম সংখ্যক চিকিৎসক থাকার কারণে সব রোগীকে চিকিৎসা প্রদান বা সামাল দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। চিকিৎসক সঙ্কটের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ এই হাসপাতালটিতে একটি মাত্র অ্যাম্বুলেন্স থাকলেও সেটি ১৭-১৮ বছরের পুরাতন হওয়ায় জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। এ কারণে এটি রাস্তায় যখন-তখন বিকল হয়ে পড়ার কারণে সময়মতো মুমূর্ষ রোগী নিয়ে হাসপাতালে পৌঁছাতে পারছে না। এর ফলে ভোগান্তিতে পড়ছে রোগী ও তাদের স্বজনরা। এ ছাড়া একটি মাত্র অ্যাম্বুলেন্স থাকায় সেটি রোগী নিয়ে চলে গেলে বিপাকে পড়েন অন্যান্য রোগীরা। বাধ্য হয়ে ঝুঁকি নিয়ে অপেক্ষা করতে হয়।
এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডা. মো. হেলাল উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি চিকিৎসক সঙ্কটসহ সব ধরনের সমস্যার কথা স্বীকার করে বলেন, এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ ঊর্ধ্বতন মহলকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে। এমনকি সমস্যা সমাধানের আশ্বাসও পাওয়া গেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ব্যাহত-চিকিৎসা
আরও পড়ুন