Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৪ আষাঢ় ১৪২৮, ০৬ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

তিব্বতের ব্রহ্মপুত্রে চীনের জলবিদ্যুৎ প্রকল্প, ভারতে পানি সংকটের শঙ্কা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০২০, ৮:২৯ পিএম

তিব্বতে ব্রহ্মপুত্র নদের ওপর জলবিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণ করছে চীন। স্থানীয়ভাবে ইয়ারলাং জ্যাংবো নামে পরিচিত এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ নদটিতে একটি বিশাল জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের উদ্যোগ নিয়েছে দেশটি।
এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ এই নদে বাঁধ নির্মাণ করা হলে উত্তর-পূর্ব ভারতে পানির সংকট হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, দেশটির ১৪তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার অংশ হিসেবে আগামী বছর থেকে এর কাজ শুরু হতে পারে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের অরুণাচল সীমান্তের কাছে তিব্বতের মেডগ কাউন্টিতে ব্রহ্মপুত্র নদের ওপর এই বাঁধ নির্মাণ করা হবে।
জানা যায়, এই নদীটি তিব্বতে উৎপত্তির পর সীমান্ত পেরিয়ে ভারতের অরুণাচল হয়ে আসামে প্রবেশ করেছে ইয়ারল্যাং জ্যাংবো। এরপর ব্রহ্মপুত্র নামে আবারো সীমান্ত অতিক্রম করে এটি বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।
চীনের পাওয়ার কনস্ট্রাকশন করপোরেশনের চেয়ারম্যান ইয়ান ঝিইয়ং গতকাল রোববার জানান, ইতিহাসে এটি হবে একটি নজিরবিহীন প্রকল্প। যার সমকক্ষ কোনো প্রকল্প নেই। চীনের জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের ইতিহাসে এটি একটি নজিরবিহীন ঘটনা।
তিনি বলেন, জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের চেয়েও এটি বেশি কিছু। এটি তৈরির উদ্দেশ্য হলো- পরিবেশ, জাতীয় নিরাপত্তা, জ্বালানি ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা।
ইয়ান জানান, বছরে ৬ কোটি কিলোওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব হবে প্রস্তাবিত এই বাঁধ প্রকল্প থেকে। যা থেকে বছরে ৩০০ বিলিয়ন কিলোওয়াট কার্বনমুক্ত ও পুনর্ব্যবহারযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব হবে। আর এর মাধ্যমে চীনের বাৎসরিক ৩০০ কোটি ডলার আয় হবে।
ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, ব্রহ্মপুত্রে চীনের বাঁধ নির্মিত হলে পানি নিয়ে ভারত ও বাংলাদেশে উদ্বেগ বাড়বে। এটি নির্মিত হলে পানির অভাব দেখা দিতে পারে উত্তর-পূর্ব ভারতে। সূত্র : গ্লোবাল টাইমস



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত-চীন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ