Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাইডেনকে এগিয়ে আসার আহ্বান ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্টের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০২০, ৯:৫৮ পিএম

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন নতুন করে ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের সংকট নিরসনে কাজ শুরু করবেন আশা প্রকাশ করেছেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ও জর্দানের রাজা আবদুল্লাহ। গতকাল রবিবার (২৯ নভেম্বর) জর্দানের লোহিত সাগরের তীরবর্তী আকাবা শহরে সাক্ষাতকালে একথা বলেন ফিলিস্তিন ও জর্দানের দুই রাষ্ট্রপ্রধান। খবর রয়টার্সের।
এক বিবৃতিতে জর্দানের রাজা আবদুল্লাহ বলেন, ‘স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনে ফিলিস্তিনিদের সব ধরনের অধিকার প্রতিষ্ঠায় জর্দানের সর্বাত্মক সমর্থন আছে।’
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে প্রথম আরব নেতার সঙ্গে সাক্ষাত করে জর্দানের রাজা আবদুল্লাহকে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বাইডেন জানান, তিনি দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানের ভিত্তিতে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিন সংঘাত নিরসনে সহায়তা করবেন।
কূটনীতিবিদরা মনে করেন, জর্দানের রাজা আবদুল্লাহ যুক্তরাষ্ট্রের শক্তিশালী মিত্র হিসেবে পরিচিত। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেন বিজয়ী হলে প্রথম আরব নেতা হিসেবে জর্দানের বাদশাহ আবদুল্লাহ তাঁকে অভিনন্দন জানান।
এদিকে পশ্চিম তীরের বসতি স্থাপনের সুযোগ দিয়ে ট্রাম্প প্রশাসনের শান্তি পরিকল্পনা জর্দানের অস্তিত্বের জন্য হুমকি হয়ে দাড়িয়েছে। তাছাড়া আরব-ইসরায়েল শান্তি পরিকল্পনা স্থাপনে নেতানিয়াহুর কঠোর নীতিমালার সমর্থন করে যা জর্দানকে অস্বস্তিতে ফেলে দেয়।
১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েলের যুদ্ধে জর্দান পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম হারায়। তাছাড়া প্রায় সাত মিলিয়নের বেশি ফিলিস্তিনি শরনার্থীদের আশ্রয় দিতে হয় জর্দানকে। সূত্র : রয়টার্স



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাষ্ট্র-ফিলিস্তিন
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ