Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

টুইটারে কারসাজি করে ধরা খেলেন বিজেপি’র আইটি সেলের প্রধান!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২০, ৩:৫৫ পিএম

এই প্রথম কোনও ভারতীয় রাজনীতিবিদের বিরুদ্ধে ‘ভিডিও কারসাজি’র অভিযোগ তুলল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার। এর আগে বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধেও একই অভিযোগ তোলা হয়েছিল। ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্যর পোস্ট করা একটি ভিডিওকে ম্যানুফ্যাকচারড বলে চিহ্নিত করা হয়েছে টুইটারের পক্ষ থেকে। কৃষি আইন নিয়ে চলা প্রতিবাদের ভিডিওটি বিকৃত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ট্যুইটার।

সত্য ঘটনা লুকোনোর জন্য কোনও ভিডিওকে যদি এডিট করে পোস্ট করা হয়, তবে তা ইউজারদের জানানোর নিয়ম রয়েছে টুইটারের। সম্প্রতি কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন, যেখানে দেখা গিয়েছে যে এক বিক্ষোভরত প্রবীণ কৃষককে মারতে যাচ্ছে পুলিশ। সেই ছবির জবাব দিয়ে মালব্য একটি ভিডিও ক্লিপ ট্যুইটারে পোস্ট করেছিলেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে পুলিশকর্মীটি ওই কৃষককে মারছেন না। তিনি ভিডিওটি পোস্ট করার পরই নানা ফ্যাক্ট চেকিং দল এর সত্য অনুসন্ধান শুরু করে। তখনই প্রকাশ্যে আনা হয় পুরো ভিডিওটি। যেখানে স্পষ্ট দেখা গিয়েছে, ওই বৃদ্ধকে পুলিশকর্মীটি বেধড়ক লাঠিপেটা করছেন। গত কয়েকদিন ধরে কৃষি আইনের বিরোধিতা করে দিল্লির সীমান্তে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন কৃষকরা। ভিডিওটি সেই বিক্ষোভেরই।

ফ্যাক্ট চেক টিম তথ্য অনুসন্ধান করে জানায়, ভিডিওতে দেখা গিয়েছে যে, বিক্ষোভরত অন্যান্য কৃষকদেরও মারছিলেন দুই নিরাপত্তা রক্ষী। তবে সেই ভিডিওর থেকে মাঝের একটি অংশ ক্রপ করে পোস্ট করেছেন অমিত মালব্য। যেখানে বৃদ্ধকে মারার ফুটেজ নেই। অর্থাৎ,‌ বিক্ষোভরত কৃষকদের উপর নিরাপত্তা রক্ষীরা বলপ্রয়োগ করেনি, এটা প্রমাণ করতেই মালব্য ক্রপ করা ভিডিও ব্যবহার করেছেন বলে জানান ফ্যাক্ট চেক টিমগুলো।

এর আগে, আমেরিকায় ডোনাল্ড ট্রাম্প-সহ একাধিক রাজনীতিবিদের টুইটকে আপত্তিজনক হিসেবে ফ্ল্যাগ করেছে টুইটার। এ বার সেই ট্রেন্ড শুরু হল ভারতেও। কেন্দ্রের শাসক দলের আইটি সেলের প্রধানকে দিয়েই এমন নজির শুরু হল। সূত্র: টিওআই।



 

Show all comments
  • Safiul ২ ডিসেম্বর, ২০২০, ১১:৩৩ পিএম says : 0
    This is the real character of this Bloody BJP Leader & .......... modi is top of them.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত

১৭ জানুয়ারি, ২০২১
১৫ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন