Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

প্রতিবন্ধী চালকদের নীতিমালা প্রণয়ন দাবি

ইজিবাইক জব্দ বন্ধে লিগ্যাল নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:০৫ এএম

প্রতিবন্ধী চালকদের মালিকানাধীন ও তাদের পরিচালিত ইলেকট্রিক ভেহিক্যাল (ইজি বাইক ও মিশুক) ড্রাইভিং নীতিমালা প্রণয়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট বারের অ্যাডভোকেট মো. জে.আর খান রবিন এ নোটিশ দেন। পদাধিকার বলে প্রতিবন্ধীদের অধিকার ও সুরক্ষা সংক্রান্ত জাতীয় সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী, ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি),ঢাকার জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান এ লিগ্যাল নোটিশের ‘প্রাপক’। সাড়ে ৩শ’ প্রতিবন্ধীর প্রতিনিধি হিসিবে মো. সোহেল রানার পক্ষে এ নোটিশ দেন। নোটিশ প্রাপ্তির ২ সপ্তাহের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। অন্যথায় পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে নোটিশে।
নোটিশ সম্পর্কে অ্যাডভোকেট মোঃ জে.আর রবিন খান বলেন,প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা না হয়ে নিজেরাই সাবলম্বী হাওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় তারা বিভিন্নভাবে টাকা ধার করে কিস্তির মাধ্যমে ‘ইজি বাইক ও মিশুক’ কিনছেন। তা থেকে উপার্জিত আয় দিয়ে একদিকে তাদের সংসার চালাচ্ছেন। ঋণের টাকাও কিস্তির মাধ্যমে শোধ করছেন। এরই মধ্যে সরকার ইলেকট্রিক ভিহিকেল ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন রাস্তায় চালতে না দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করায় আইন শৃঙ্খলাবহিনী প্রতিনিয়ত তাদের মালিকানাধীন ও তাদের চালানো ‘ইলেকট্রিক ভিহিকেল’ জব্দ করে ডাম্পিং-এ নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তারা নি:স্ব হয়ে যাচ্ছেন। হামলা-মামলাসহ নানা ধরণের হয়রানির শিকার হচ্ছেন। সরকারের এ সিদ্ধান্ত প্রশংসনীয় হলেও প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে এটি ‘প্রতিবন্ধী আইন’র ১৬(১) বিধানের পরিপন্থি। এ ধারা অনুযায়ী যথাযথ পুনর্বাসন ও ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা না করা পর্যন্ত কোনো প্রতিবন্ধীর তার কর্মে নিয়োজিত থাকার অধিকার রয়েছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তার উল্লেখিত সাড়ে ৩শ’ প্রতিবন্ধীর কোনো রকম পুনর্বাসন বা ক্ষতিপূরণ না দিয়েই তাদের জীবীকার অবলম্বন কেড়ে নিচ্ছে। তাদেরকে নানাভাবে হয়রানি করছেন। এটি কোনোভাবেই কাম্য নয়। সংবিধান এবং আইনসিদ্ধও নয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নীতিমালা-প্রণয়ন
আরও পড়ুন