Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

বন্যাকবলিত লুজিয়ানা সফরে ট্রাম্প, কাল যাচ্ছেন ওবামা

প্রকাশের সময় : ২২ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অবকাশ যাপনে ব্যস্ত রয়েছে বলে প্রেসিডেন্টের কড়া সমালোচনা করলেন রিপাবলিকান প্রার্থী
ইনকিলাব ডেস্ক : প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা আগামীকাল মঙ্গলবার বন্যাকবলিত লুজিয়ানা সফরের ঘোষণা দিয়েছেন। সপ্তাহব্যাপী প্রাকৃতিক দুর্যোগ চলাকালে এই রাজ্য ওবামা সফর না করায় ট্রাম্প তার কঠোর সমালোচনা করার পর তিনি এ ঘোষণা দিলেন। ট্রাম্প সমালোচনা করে বলেন, সেখানে এই দুর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতিতে রিপাবলিকান দলের প্রার্থী বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শনে গেলেও প্রেসিডেন্ট এখন অবকাশযাপনে ব্যস্ত রয়েছেন। পরে ওই দিন মিশিগানে এক সমাবেশে ট্রাম্প বলেন, সত্যি কথা বলতে কি, ওবামাকে এখন গলফ কোর্স থেকে বেরিয়ে সেখানে যাওয়া উচিত। উল্লেখ্য, বুধবার প্রেসিডেন্টের গলফ খেলার কথা রয়েছে। উল্লেখ্য, লুজিয়ানা অঙ্গরাজ্যে স্মরণকালের ভয়াবহ দুর্যোগের ঘটনায় ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের আগামী নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের মনোনীত প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প বন্যাকবলিত লুজিয়ানা সফর করেছেন। এ সময় তিনি লুজিয়ানায় না যাওয়ার জন্য ওবামার কঠোর সমালোচনা করেন। ট্রাম্প ও তার মনোনীত ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স স্থানীয় রিপাবলিকান দলের নেতা ও জরুরি কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং বন্যাকবলিত বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন। কয়েক দিন আগেও এসব এলাকা কয়েক ফুট পানির নিচে তলিয়ে ছিল।
সরকারি কর্মকর্তারা জানান, সেখানে প্রায় ৪০ হাজার ঘরবাড়ি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং এ পর্যন্ত ৮৬ হাজারের বেশি লোক কেন্দ্রীয় সাহায্যের জন্য নাম নিবন্ধন করেছেন। এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ওবামার লুজিয়ানা সফরের পরিকল্পনার ঘোষণা দেয়ার পর হোয়াইট হাউস জানায়, প্রেসিডেন্ট তার সফরের প্রভাবের ব্যাপারে সজাগ রয়েছেন এবং তিনি চান না চলতি উদ্ধার প্রচেষ্টা কোনোভাবে ব্যাহত হোক। লুজিয়ানার গভর্নর জন বেল এডওয়ার্ডস আগেই ইঙ্গিত দেন যে, তিনি চান এ অঞ্চল সফরের ক্ষেত্রে ওবামা কমপক্ষে এক সপ্তাহ অপেক্ষা করবেন। প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তা বাস্তবায়নে উদ্ধার প্রচেষ্টায় নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সেখান থেকে তুলে নেয়া এড়াতে তিনি এটা চান। এডওয়ার্ডস’র যুক্তিকে সমর্থন করে রাজ্যের লে. গভর্নর বিল্লি নানগেসার এমএসএনবিসিকে বলেন, আমাদের সকলের উদ্ধার প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার ওপর গুরুত্ব দেয়া প্রয়োজন। বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্পের লুজিয়ানা সফরের ব্যাপারে জানতে চাইলে এডওয়ার্ডস তা এড়িয়ে যান।
এদিকে, গত শুক্রবারে প্রথমে প্রচারণা প্রধানের পদত্যাগের পর হ্যাকার হামলার শিকার হয়েছে ডোনাল্ড ট্রাম্পের কম্পিউটার সিস্টেম। সমস্যা যেন পিছু ছাড়ছেই না যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্পের। পুরনো ম্যালওয়্যার থেকে এই সাইবার হামলার সূত্রপাত। ২০১৫ সালে ট্রাম্পের অন্তত একজন কর্মচারীর ইমেইল অ্যাকাউন্ট ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত হয়েছিল। পরে ওই অ্যাকাউন্ট থেকে সহকর্মীদের ইনবক্সে আক্রোশপূর্ণ ইমেইল পাঠানো হয়। তবে ট্রাম্পের প্রচারণায় ব্যবহৃত কম্পিউটারগুলোয় হ্যাকাররা প্রবেশ করতে পেরেছে কিনা, তা এখনো অস্পষ্ট। এর আগে গত মাসে হ্যাকাররা গত বছর ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কমিটি (ডিএনসি), হিলারি ক্লিনটনের প্রেসিডেন্সিয়াল প্রচারণা ও তার দলের কংগ্রেশনাল ফান্ডরাইজিং কমিটির কম্পিউটার এবং নিরাপত্তা কাঠামোয় অনুপ্রবেশ করেছিল। সাইবার হামলার ওই ঘটনায় ডেমোক্র্যাটরা রাশিয়াকে এ নিয়ে প্রকাশ্যে দোষারোপ করেছিল। রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন