Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০২ আষাঢ় ১৪২৮, ০৪ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

আনন্দময় এক রাত কাটালো ক্রিকেটের স্বপ্নসারথিরা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:২৮ পিএম

শুক্রবার বিসিবি আয়োজন করা হয়েছিল ‘বারবিকিউ নাইট’। সঙ্গে গান নাচের আয়োজনও ছিল৷। সিনিয়র ক্রিকেটাররা এ অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেন। শুক্রবার এ আয়োজনে পাঁচ দলের কোচরাও অংশ নেন এবং প্রত্যেকে নেচে-গেয়ে আনন্দ দেন৷ আনন্দময় এক রাত কাটালো স্বপ্নসারথিরা৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেগুলো পোস্ট করায় ক্রিকেটারদের বন্ধনও দেখার সুযোগ পেল ক্রিকেটপ্রেমীরা।

জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী জেমসের বাবা গানটি ধরেছিলেন মাশরাফি ও মাহমুদউল্লাহ। পাশে থেকে তামিম, মুশফিক ও সাকিব সুরে সুর মেলান। খানিক বাদেই সাকিবের অনুরোধ, ‘এ গানটা আর পারি না। যেটা পারি সেটা গান।’ দীর্ঘদিনের সতীর্থ মাশরাফি হয়তো জানেন সাকিবের পছন্দ। এবার মাইক হাতে মাশরাফি শুরু করলেন, ‘বাবা তোমার দরবারে সব পাগলের মেলা। হরেকরকমের পাগল দিয়ে মিলাই ছ মেলা...।’

ব্যাস সাকিব খোলস থেকে বের হয়ে যান। মাথা নাড়িয়ে, চুল ঝাকিয়ে, শরীর দুলিয়ে উন্মাতাল সাকিব। ঠিক যেমন একটা শর্ট বল মিড উইকেট দিয়ে ছক্কা মারার আনন্দ। শুধু কি সাকিব, হোটেল সোনারগাঁওয়ের সুইমিংপুল জোনে যারা উপস্থিত ছিলেন প্রত্যেকে আনন্দ উৎসবে মেতে উঠে৷ দেশের শীর্ষ ক্রিকেটাররা এখন জৈব সুরক্ষা বলয়ে। তারা খেলছেন পাঁচ দলের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট ‘বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ স্পন্সরড বাই ওয়ালটন।’

এক হোটেলে থাকায় ডিনার কিংবা ব্রেকফাস্ট বা কোন চা চক্রে প্রত্যেকের সবার সঙ্গে দেখা হচ্ছিল। শুক্রবার বিসিবি থেকে আয়োজন করা হয়েছিল ‘বারবিকিউ নাইট’। সঙ্গে গান নাচের আয়োজনও ছিল৷ জানা গেছে সিনিয়র ক্রিকেটাররা এ প্রোগ্রামের উদ্যোগ নেন। শুক্রবার এ আয়োজনে পাঁচ দলের কোচরাও অংশ নেন এবং প্রত্যেকে নেচে বা গেয়ে আনন্দ দেন৷

বাংলাদেশের প্রথম টেস্টের কোচ সারোয়ার ইমরান গান গেয়ে শোনান। খালেদ মাহমুদ সুজন ও মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন বেছে নেন নাচ। এরপর প্রায় সব ক্রিকেটার, অফিসিয়ালরা নাচ ও গানে উৎসব করেন। বিশেষ করে মাশরাফিকে যুব বিশ্বকাপজয়ী দলের সঙ্গে নাচতে দেখা গেছে। মাহমুদউল্লাহ উপস্থাপকের পাশাপাশি গান গেয়ে শোনান। সবার অনুরোধে রুবেল হোসেনের কন্ঠে ছিল আইয়ুব বাচ্চুর গান।

এছাড়া আজম খানের সালকে মালেকা, পাপড়ি ও বাংলাদেশ গান গেয়ে শোনান রাজশাহীর সহকারী কোচ আশিকুর রহমান। ঘরোয়া ক্রিকেট চলাকালিন এরকম আয়োজনের সুযোগ হয় না৷ দলগুলো একেক হোটেলে থাকায় মাঠ ছাড়া দেখা হতো কম। এবার সেই সুযোগটি কাজে লাগিয়ে আনন্দময় এক রাত কাটালো স্বপ্নসারথিরা৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেগুলো পোস্ট করায় ক্রিকেটারদের বন্ধনও দেখার সুযোগ পেল ক্রিকেটপ্রেমীরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিসিবি


আরও
আরও পড়ুন