Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

লেভান্দোভস্কির সঙ্গী মেসি-রোনালদো

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

২০২০ সালের ‘দ্য বেস্ট ফিফা মেনস প্লেয়ার’-এর পুরস্কারের জন্য তালিকা আরও ছোট করে এনেছে ফিফা। বায়ার্ন মিউনিখের রবের্ত লেভান্দোভস্কির সঙ্গে লড়াইয়ে আছেন সময়ের সেরা দুই ফুটবলার লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পুরুষ বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচনে গতপরশুই নিজেদের ওয়েবসাইটে এই তিনজনের নাম প্রকাশ করেছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। ১১ জনের তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন কিলিয়ান এমবাপে, থিয়াগো আলকান্তারা, কেভিন ডি ব্রুইন, সাদিও মানে, সার্জিও রামোস, মোহামেদ সালাহ ও ভার্জিল ফন ডাইক।
বায়ার্ন মিউনিখের ট্রেবল জয়ে সবচেয়ে বড় ভ‚মিকা রাখা লেভান্দোভস্কির সেরা তিনে থাকাটা ছিল অনুমিতই। গত মৌসুমে জার্মান দলটি যে দুর্বার হয়ে উঠেছিল, তার মূলে ছিল লেভান্দোভস্কির অসাধারণ ধারাবাহিক পারফরম্যান্স। অপরাজিত থেকে তাদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের পথে আসরের সর্বোচ্চ ১৫ গোল করেন পোলিশ স্ট্রাইকার। আর বুন্দেসলিগায় করেন ৩৪ গোল। সব প্রতিযোগিতা মিলে ক্লাবের হয়ে ২০১৯-২০ মৌসুমে ৫৫ গোল করা লেভান্দোভস্কি এবার ব্যালন ডি’অর জয়ের দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে ছিলেন। তবে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে মৌসুমের অনেকটা সময় ভেস্তে যাওয়ার পর পুরস্কারটির ৬৪ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো তা এবছর না দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায় ‘ফ্রান্স ফুটবল।’ অবশ্য ফিফার ‘দা বেস্ট’ পুরস্কারটি জিততে পারলে বর্ষসেরা ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন পূর্ণ হবে ৩২ বছর বয়সী তারকা এই স্ট্রাইকারের। আগামী ১৭ ডিসেম্বর ‘ফিফা দা বেস্ট ফুটবল অ্যাওয়ার্ডসে’ ঘোষণা করা হবে এবারের বর্ষসেরার নাম।
রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার মেসি অবশ্য গেল মৌসুমে দলগতভাবে তেমন কিছুই জিততে পারেননি। উল্টো কোভিড-১৯ এর ছোবলে বিলম্বিত মৌসুমে তার দল বার্সেলোনার শেষটা হয় চরম বিপর্যয়ে। আগেভাগে কোপা দেল রে থেকে বিদায় নেওয়ার পর লা লিগায় ছন্দ হারিয়ে হারায় শিরোপা। সবশেষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালে বায়ার্নের বিপক্ষে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে খালি হাতে শেষ করে মৌসুম। ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে অবশ্য বেশ কিছু প্রাপ্তি ছিল তার, গড়েন নতুন কিছু রেকর্ডও। লিগে ৩৩ ম্যাচ খেলে ২৫ গোল করে জিতে নেন রেকর্ড সপ্তম পিচিচি ট্রফি।
দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার রোনালদো জুভেন্টাসের হয়ে গত মৌসুমে জিতেন সেরি আ শিরোপা। ক্লাবের টানা নবম লিগ জয়ে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩১ গোল করেন তিনি, আসরে যা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। গত বছর রোনালদো ও লিভারপুলের ডাচ ডিফেন্ডার ভার্জিল ফন ডাইককে হারিয়ে পুরস্কারটি জিতেছিলেন মেসি।
দ্বিতীয় বিভাগের একটি দলের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের কারিগর মার্সেলো বিয়েলসার বর্ষসেরা কোচের লড়াইয়ে জায়গা পাওয়াটা অনেকের কাছে ছিল অবাক করার। পাঁচ জনের সেই তালিকা ছেঁটে তিন জনের করার পরও জায়গা ধরে রেখেছেন আর্জেন্টাইন এই কোচ। একই রাতে দেয়া তালিকার অন্য দুই জন হলেন হান্স ফ্লিক ও ইয়ুর্গেন ক্লপ। তবে বাদ পড়েছেন সেভিয়াকে ইউরোপা লিগ জেতানো হুলেন লোপেতেগি ও রিয়াল মাদ্রিদের লা লিগা শিরোপা পুনরুদ্ধারের নেপথ্যের নায়ক জিনেদিন জিদান।
বায়ার্ন মিউনিখে ফ্লিকের গত মৌসুমটা কাটে দুর্দান্ত। তার হাত ধরে গত মৌসুমে জার্মান দলটি প্রথমবারের মতো জেতে ট্রেবল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, বুন্দেসলিগা ও জার্মান কাপ জেতা কোচ পরে ঘরে তোলেন দেশীয় ও ইউরোপীয় সুপার কাপ। ২০১৮-১৯ মৌসুমে লিভারপুলকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা এনে দেওয়া ক্লপ গত মৌসুমেও ছিলেন বেশ সফল। ৩০ বছর পর তার হাত ধরেই ইংল্যান্ডের শীর্ষ লিগ জেতে অ্যানফিল্ডের ক্লাবটি। অনেক রেকর্ড গড়ে সাত ম্যাচ বাকি থাকতে শিরোপা নিশ্চিত করে লিভারপুল। আর বিয়েলসার দল লিডস ইউনাইটেড বড় কোনো শিরোপা জেতেনি। তবে তার কোচিংয়েই চ্যাম্পিয়নশিপ জিতে ১৬ বছর পর প্রিমিয়ার লিগে ফিরেছে ইংলিশ ক্লাবটি। প্রিমিয়ার লিগেও তারা খেলছে আক্রমণাত্মক বিনোদনদায়ী ফুটবল।
আগামী ১৭ ডিসেম্বর ‘ফিফা দ বেস্ট ফুটবল অ্যাওয়ার্ডসে’ নাম ঘোষণা করবে ফিফা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মেসি-রোনালদো
আরও পড়ুন