Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

নতুন নেতৃত্বের মাধ্যমে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হবে : মির্জা ফখরুল

প্রকাশের সময় : ২৩ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : নতুন কমিটির মাধ্যমে দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল (সোমবার) বিকালে দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে নবগঠিত কমিটির নেতবৃন্দকে নিয়ে শেরে বাংলানগরে শহীদ প্রেসিডেন্ট ও দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানানোর আগে সাংবাদিকদের কাছে বিএনপি মহাসচিব এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।
একই সাথে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, বিদু্যুৎ আমাদের দরকার। তবে সেটা অবশ্যই আমার সুন্দরবনে বাদ দিয়ে করতে হবে, সুন্দরবনকে রক্ষা করতে হবে।
মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, দেশনেত্রী যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি নির্বাচিত করেছেন, সেই কমিটিকে নিয়ে আজ তিনি দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানাতে ও পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করতে এসেছেন। এখান থেকে নতুন কমিটি শপথ নিয়েছে যে, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল তার অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।
১৯ মার্চ বিএনপির জাতীয় কাউন্সিলের সাড়ে ৪ মাস পর ৬ আগস্ট খালেদা জিয়া দলের ১৯ সদস্যের নতুন স্থায়ী কমিটির ১৭ জনের নাম, ৭৩ সদস্যেরে উপদেষ্টা কাউন্সিল ও ৫০২ সদস্যের জাতীয় কাউন্সিল ঘোষণা দেন।
২১ আগস্টের ঘটনাবলীর সঙ্গে আপনারা জড়িত বলে প্রধানমন্ত্রী দোষারোপ করেছেন- এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, আমরা লক্ষ্য করেছি যে, বরাবরই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যারা একসময়ে গণতন্ত্রের পক্ষে লড়াই করেছে, মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য লড়াই করেছে, তারা আজকে সম্পূর্ণভাবে একনায়কতন্ত্র এবং একদলীয় শাসন ব্যবস্থার প্রতিষ্ঠার জন্য এগিয়ে চলেছে।
মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, তারা (আওয়ামী লীগ) এখানে কোনো হত্যাকা-ের সুষ্ঠু বিচার করেনি। সুষ্ঠু বিচার করেনি দেখেই আজকে বিভিন্ন হত্যাকা- বেড়ে গেছে। আপনারা (সাংবাদিক)  দেখেছেন, যে ক্রসফায়ার ও গান ব্যাটেলে কথা বলে কোনো বিচার ছাড়াই মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে। ঠিক একইভাবে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় আমাদের দলে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ দলের নেতৃবৃন্দকে অন্যায়ভাবে জড়িত করা হয়েছে।
আপনারা (সাংবাদিক) খুব ভালো করে জানেন, ২১ আগস্টের যে হত্যাকা-ের মামলা, সেই মামলার তারেক রহমান সাহেবকে তিনটি চার্জশিটেও তার নাম দেয়া হয়নি। এই সরকার ক্ষমতায় আসার পরে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তারেক রহমানের নাম যুক্ত করেছে। আমরা এর নিন্দা জানাই। আমরা চাই, এই মামলায় সত্যিকার অর্থে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক।
রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিষয়ে দলের অবস্থান জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের অবস্থান পরিষ্কার। আমরা মনে করি, বাংলাদেশের স্বার্থ ক্ষুণœ করে সুন্দরবনকে বিনষ্ট করে, পরিবেশকে দূষিত করে, রামপালে প্রস্তাবিত বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের যে কথা চলছে, আমরা এর বিরোধিতা করি। আমরা মনে করি, বিদুুৎ আমাদের দরকার। তবে সেটা অবশ্যই আমার সুন্দরবনে বাদ দিয়ে করতে হবে, সুন্দরবনকে রক্ষা করতে হবে।







 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন