Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৩ কার্তিক ১৪২৮, ১১ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সিলেটে ৯৬ ঘন্টার সিএনজি অটোরিকসা ধর্মঘট : কঠিন বিড়ম্বনায় সাধারন মানুষ

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ ডিসেম্বর, ২০২০, ৫:৫৭ পিএম

টানা ৯৬ঘন্টার সিএনজি চালিত অটোরিকশা ধর্মঘটের কবলে পড়েছেন সিলেটের মানুষ। সিএনজি অটোরিকশা ও পাথর সংশ্লিষ্ট শ্রমিকদের পৃথকভাবে ডাকা টানা ৪ দিনের এ ধর্মঘট কর্মসূচিতে কঠিন বিড়ম্বনায় পড়েছেন সিলেটের সর্বস্তরের মানুষ।

আজ সোমবার (২১ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা থেকে সিলেটে চলছে না সিএনজি চালিত অটোরিকশা। সিলেট সি.এন.জি চালিত অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি. নং-চট্ট-৭০৭ ও সিলেট জেলা অটোরিকশা/অটোটেম্পু শ্রমিক জোট রেজি. নং-চট্ট-২০৯৭-এর সমন্বয়ে গঠিত ঐক্য পরিষদের ডাকে ৪৮ ঘণ্টার এ ধর্মঘট পালন করছেন শ্রমিকরা। সকাল থেকে নগরী সহ সিলেট গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও পয়েন্টে পিকেটিং করছেন আন্দোলনকারী শ্রমিকরা। ফলে পুরো জেলাতেই চলছে না সিএনজি অটোরিকশা। গ্রিল সংযোজনের সিদ্ধান্ত বাতিল ও ব্যাটারিচালিত রিকশা, অটোবাইক, মটরবাইক, মিশুক ও প্রাইভেট গাড়ি দ্বারা যাত্রী পরিবহন বন্ধ সহ ৫ দফা দাবিতে এ ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। সিলেটের সকল পাথর কোয়ারি খুলে দেওয়ার দাবিতে ইতিপূর্বে ৪৮ ঘণ্টার পণ্য পরিবহন ধর্মঘট কর্মসূচি পালনের পর কোনো সুরাহা না হওয়ায় কাল মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) থেকে ৭২ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ‘বৃহত্তর সিলেট পাথর সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ’।

সংগঠনটি ২২, ২৩ ও ২৪ ডিসেম্বর পুরো বিভাগে এ ধর্মঘট কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানালেও ইতোমধ্যে সুনামগঞ্জ জেলায় এটি প্রত্যাহার করা হয়েছে। ফলে বিভাগের সিলেট, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজারে আগামী ৩ তিন দিন এ ধর্মঘট পালিত হবে।

আজ থেকে চলমান টানা ৯৬ ঘণ্টার এ পরিবহন ধর্মঘটে চরম বিপাকে পড়েছেন সর্বস্তরের মানুষ। ধর্মঘটের ফলে চাকরিজীবি, শ্রমজীবি ও ব্যবসায়ী সহ সকল স্তরের মানুষে সময়মতো কর্মস্থলে যেতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। নগরীর সহ সিলেটের বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা যায়, চন্ডিপুল, জিতু মিয়ার পয়েন্ট, তালতলা, বন্দরবাজার, আম্বরখানা, মদিনা মার্কেট, টিলাগড়, উপশহর ও হুমায়ুন চত্বও সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট এবং সড়কে অন্যান্য দিনের মতো সিএনজি অটোরিকশা উধাও। এছাড়া বেশি দুর্ভোগে পড়েছেন নারী ও শিশুরা। সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, সিএনজি অটোরিকশা না চলায় বাস ও লেগুনায় যাত্রীদেও উপচে পড়া ভিড়। অপরদিকে, নগরীতে স্বল্প দূরত্বের জায়গা অনেকেই যাতায়াত করছেন পায়ে হেঁটে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ