Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০২ আষাঢ় ১৪২৮, ০৪ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

গ্রুপ সেরা হয়েই শেষ আটে বসুন্ধরা কিংস

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০, ৭:৫৬ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের মৌসুমসূচক টুর্নামেন্ট ওয়ালটন ফেডারেশন কাপে ‘সি’ গ্রুপ সেরা হয়েই শেষ আটে গেল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। এক ম্যাচ জিতে এই গ্রুপ থেকে রানার্সআপ হয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা পেল চট্টগ্রাম আবাহনী। আর দু’ম্যাচে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছে আগের আসরের রানার্সআপ রহমতগঞ্জ।

সোমবার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ‘সি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে বসুন্ধরা কিংস ১-০ গোলে হারায় চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেডকে। বিজয়ী দলের হয়ে একমাত্র জয়সূচক গোলটি করেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড রাউল অস্কার বেসেরা।

সোমবার ম্যাচের শুরু থেকেই বসুন্ধরার সঙ্গে সমানতালে লড়াই করে চট্টগ্রাম আবাহনী। রহমতগঞ্জকে বিদায় করে আগেই কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে কিছুটা ভারমুক্তও ছিল চট্টগ্রামের দলটি। তবে বসুন্ধরার বিপক্ষে আক্রমণের কোন কমতি রাখেনি তারা। প্রথমার্ধের পুরো ৪৫ মিনিট বসুন্ধরার বেশ ক’টি আক্রমণ রুখে দিয়ে দলটির স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজন ভাবিয়ে তোলেন চট্টগ্রামের গোলরক্ষক মো. নাঈম। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে চিন্তার ভাজ পড়ে স্প্যানিশ কোচের কপালে। ম্যাচের ২৩ মিনিটে বসুন্ধরার ইরানী ডিফেন্ডার খালেদ শাফেইর লম্বা থ্রোতে বিশ্বনাথের হেডে বল পড়ে বক্সের সামনে। ব্রাজিলের ফরোয়ার্ড রবসন ডি সিলভার শট চট্টগ্রাম আবাহনীর এক খেলোয়াড়ের গায়ে লাগে। যদিও কিংসের ফুটবলাররা পেনাল্টির আবেদন করেছিলেন। কিন্তু তাতে সাড়া দেননি রেফারি মিজানুর রহমান। ম্যাচে ক্ষণে ক্ষণে ফাউলকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে দু’শিবিরেই। ধাক্কাধাক্কিও করতে দেখা গেছে দু’দলের খেলোয়াড়দের। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে সতীর্থের কাছ থেকে বল পেয়েও গোল করতে পারেননি বসুন্ধরার মাহবুবুর রহমান সুফিল। তার সামনে তখন শুধুই ছিলেন চট্টগ্রাম আবাহনী গোলরক্ষক নাঈম।

প্রতিপক্ষ দলের জন্য হেডে খুবই বিপজ্জনক বসুন্ধরা কিংস। বিশেষ করে ডিফেন্ডার খালেদ লম্বা হওয়ায় মাথা দিয়ে গোল করার দক্ষতা রয়েছে তার। এটা মাথায় রেখেই চ্ট্টগ্রাম আবাহনীর কোচ মারুফুল হক উজবেকিস্তানের ডিফেন্ডার পুলাতোভ শুকুর আলীকে সতর্ক রাখেন। খালেদকে আটকাতে পারলেও অস্কার বেসেরাকে থামাতে পারেনি চট্টগ্রাম আবাহনী। ম্যাচের ৪৯ মিনিটে গোলের আনন্দে মেতে ওঠে বসুন্ধরা কিংস। এসময় রবসন ডি সিলভার কর্নার লাফিয়ে ওঠে ফিস্ট করতে যান গোলরক্ষক নাঈম। কিন্তু ফ্লাইট মিস করেন তিনি। লাফিয়ে উঠে হেডে গোল করে বসুন্ধরাকে আনন্দে মাতান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড রাউল অস্কার বেসেরা (১-০)। ৬১ মিনিটে সমতা ফেরানোর সুযোগ হারায় চট্টগ্রাম আবাহনী। বাঁ প্রান্ত দিয়ে রাকিব হাসানের চমৎকার ক্রসে আসা বলে শুধু পা লাগালেই হতো। কিন্তু সেটাও করতে পারেননি মান্নাফ রাব্বি। ম্যাচের বাকি সময় একাধিক সুযোগ পেয়েও তা কাজে লাগাতে না পারায় শেষ পর্যন্ত হারের গ্লানি নিয়েই মাঠ ছাড়ে চট্টগ্রাম আবাহনী। অন্যদিকে টানা দু’ম্যাচ জিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয় বসুন্ধরা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওয়ালটন ফেডারেশন কাপ
আরও পড়ুন