Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হলে নারী নির্যাতন বন্ধ করতে হবে : মেহের আফরোজ চুমকি, এমপি

নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে নতুন ওয়েবসাইট উদ্বোধন

প্রকাশের সময় : ২৫ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করতে না পারলে উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশের স্বপ্ন অধরা থেকে যাবে। দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠী নারীকে উন্নয়নের বাইরে রেখে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ হতে পারবে না। নারী নির্যাতন নারীর ক্ষমতায়নের অন্তরায়। নারীর ক্ষমতায়ন ছাড়া টেকসই উন্নয়ন সম্ভব নয়। তিনি বলেন, প্রত্যেক পরিবারে নারীর প্রতি সম্মান ও শিশুর প্রতি ভালোবাসা প্রদর্শন করলে সমাজ থেকে তাদের প্রতি সব ধরনের সহিংসতা হ্রাস পাবে। গতকাল রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আইসিটি টাওয়ার, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) অডিটোরিয়ামে নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে ‘ম্যানেজিং ভায়োল্যান্স এগেইনেস্ট উইমেন এন্ড চিলড্রেন’ নামে একটি ওয়েব বেইসড সিস্টেমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে নারীদের দক্ষ এবং যোগ্য করে গড়ে তুলতে দেশের তৃণমূল পর্যায় থেকে প্রতি বিভাগ, জেলা ও উপজেলায় প্রায় ৫০ হাজার নারীকে কম্পিউটার প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হয়েছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম এনডিসি,আইসিটি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর শিকদার, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সাহিন আহমেদ চৌধুরী।
বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব হারুনুর রশিদ, তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সুশান্ত কুমার সাহা, অতিরিক্ত সচিব পার্থ প্রতিম দেব, কন্ট্রোলার অথরিটি আবুল মনসুর মোহাম্মদ সারফ উদ্দিনসহ আইসিটি ডিভিশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে অ্যাপটি মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে হস্তান্তর করা হয়। নাছিমা বেগম বলেন, এই বিশেষ ওয়েব  সিস্টেমের মাধ্যমে নারী শিশুরা খুব উপকৃত হবে। এটা সময় উপযোগী একটি উদ্যোগ। এই জন্য তিনি আইসিটি ডিভিশনকে ধন্যবাদ জানান।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে এবং বাংলাদেশী বহুজাতিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান রিভ সিস্টেম-এর সহযোগিতায় নারী ও শিশুকে দ্রুততার সাথে সহযোগিতা করা এবং এসকল সার্বক্ষণিক ট্র্যাকিং করার মাধ্যমে স্বচ্ছ ও দ্রুত বিচার নিশ্চিতকরণের সুবিধা সম্বলিত বিশেষ ওয়েব বেইসড সিস্টেম তৈরী করা হয়েছে। ‘ম্যানেজিং ভায়োল্যান্স এগেইনেস্ট উইমেন এন্ড চিলড্রেন’ ওয়েব বেইসড এপ্লিকেশন ওয়েব সাইট  িি.িাধপিসং.মড়া.নফ  ।
উল্লেখ্য, দেশের যেকোন প্রান্তের নারী ও শিশু মোবাইল, কম্পিউটার ও ল্যাপটপের মাধ্যমে ঘরে বসেই অথবা ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কার্যালয়ে সশরীরে উপস্থিত হয়ে এই ওয়েবসাইট ব্যবহার করে নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে অভিযোগ করতে পারবে।  
জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, পারিবারিক মূল্যবোধের অভাব এবং ব্যক্তিগত ও পারিবারিক ব্যস্ততার কারণে নারী ও শিশু সুরক্ষার ঝুঁকি বাড়ছে। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে এ ধরনের ঝুঁকি কমানো যায়। তাই সহিংসতাকালীন তাৎক্ষণিকভাবে অভিযোগ জানালে বিপদগ্রস্ত নারী ও শিশুকে দ্রুততার সাথে সহযোগিতা করা সম্ভব হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হলে নারী নির্যাতন বন্ধ করতে হবে : মেহের আফরোজ চুমকি
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ