Inqilab Logo

শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

স্মার্ট এলইডি বাতিতে আলোকিত হবে ঢাকা উত্তর

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন,রাজধানীর উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকার সড়কে অত্যাধুনিক স্মার্ট এলইডি বাতি স্থাপন শুরু হয়েছে। চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে নতুন এ বাতিতে সমগ্র ডিএনসিসি এলাকার সড়ক আলোকিত হবে।
গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউটে (আইএবি) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ‹ডিএনসিসি এলাকায় এলইডি সড়কবাতি সরবরাহ ও স্থাপন প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়। রাজধানীর আগারগাঁও এলাকার নির্বাচন কমিশন ভবনের সামনের সড়কে স্থাপিত নতুন এ এলইডি বাতি জ্বালিয়ে প্রকল্পের উদ্বোধন করেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী। তিনি বলেন, রাজধানীর সড়কে শুধু আলো নয়, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে এবং নাগরিকদের জীবনমানের সার্বিক উন্নয়নে সিটি করপোরেশন দায়িত্ব পালন করছে। সিটি করপোরেশনের স্ব-স্ব দায়িত্ব পালনে আমাদের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করছি। ভবিষ্যতেও করবো।
মন্ত্রী বলেন, সড়কে এলইডি বাতি স্থাপনের উদ্যোগের বাস্তবায়ন আজ আরম্ভ হলো। ঢাকার অনেক সমস্যা ছিল, অনেক সমস্যার সমাধান করা হয়েছে। আগামীতে ঢাকাকে দৃষ্টিনন্দন আধুনিক শহর হিসেবে রূপান্তরিত করতে সিটি করপোরেশন কাজ করছে। বিভিন্ন সংস্থার প্রত্যেকে স্ব-স্ব অবস্থান থেকে কাজ করলে শুধু ঢাকা নয়, সমগ্র দেশকে উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব হবে।
অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম সড়কে এলইডি স্থাপন প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় যারা খাল দখল করে আছেন, তারা চলে যান। আপনারা থাকতে পারবেন না। আমরা খাল পুনরুদ্ধারের সময় ঢাকা নগরীর ম্যাপ দেখে নয়, সিএস ম্যাপ দেখে উদ্ধার করবো।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ৩১৯ কোটি টাকা ব্যয়ে ডিএনসিসি এলাকায় এলইডি সড়কবাতি সরবরাহ ও স্থাপন প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় ডিএনসিসি এলাকার সব সড়কে পর্যায়ক্রমে ৪৬ হাজার ৪১০টি সড়কবাতি স্থাপনসহ এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব বিষয়গুলো বাস্তবায়ন করা হবে। স্মার্ট এ এলইডি বাতিগুলো দিনের আলোর শেষে স্বয়ংক্রিয়ভাবে জ্বলে উঠবে এবং অযথা এটি জ্বলবে না। প্রতিটি বাতির আলো দিনের আলোর মতো স্বচ্ছ হবে এবং কন্ট্রোলরুম থেকে প্রয়োজনে এর মাত্রা নির্ধারণ করা যাবে। কোনোটিতে বিভ্রাট হলে সঙ্গে সঙ্গে কন্ট্রোলরুমে সিগনাল যাবে। এর ফলে সংশ্লিষ্টরা তাৎক্ষণিকভাবে ওই বাতিটির বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারবেন।
অনুষ্টানে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন, ডিএনসিসি এলাকায় এলইডি সড়কবাতি সরবরাহ ও স্থাপন প্রকল্পের পরিচালক মো. রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ