Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৩ রজব ১৪৪২ হিজরী

২০০ উপজেলায় স্থাপন হচ্ছে স্বয়ংক্রিয় কৃষি আবহাওয়া যন্ত্র

প্রকল্প ব্যয় ৫২০ কোটি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০২ এএম

দেশের ২০০ উপজেলায় স্বয়ংক্রিয় কৃষি আবহাওয়া যন্ত্র স্থাপনের কাজ আগামী জুন মাসে শেষ হবে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ আঞ্চলিক আবহাওয়া ও জলবায়ু সেবা প্রকল্পের আওতায় এই কাজ শুরু হয়েছে। ‘আবহাওয়া তথ্য সেবা ও আগাম সতর্কবাণী পদ্ধতি জোরদারকরণ (কম্পোনেন্ট এ) প্রকল্প’ নামের এই প্রকল্পে মোট ব্যয় ৫২০ কোটি ১৫ লাখ টাকা ধরা হয়েছে।

গতকাল বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে প্রকল্পটি নিয়ে আলোচনা শেষে বাস্তবায়ন কাজ যথাসময়ে শেষ করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে। সংসদীয় কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভ‚ঁইয়ার সভাপতিত্ব ওই বৈঠকে কমিটির সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান, ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ্, মো: মোতাহার হোসেন, মো: নাসির উদ্দিন ও নাহিদ ইজাহার খান এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকের কার্যপত্রে বলা হয়, আবহাওয়া তথ্য সেবা ও আগাম সতর্কবাণী পদ্ধতি জোরদারকরণ প্রকল্পটি ৪৬২ কোটি ৯৩ লাখ টাকা বিশ্বব্যাংকের ঋণ সহায়তা ও ৫৭ কোটি ২২ লাখ টাকা সরকারি অর্থায়নে বাস্তবায়িত হচ্ছে। ২০১৬ সালের জুলাই মাসে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। শেষ হওয়ার কথা চলতি বছরের জুন মাসে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে ২০০টি উপজেলায় স্বয়ংক্রিয় কৃষি আবহাওয়া যন্ত্র স্থাপন ছাড়াও চারটি বিভাগীয় শহরের ওয়াসা অফিসে ৬৫টি স্বয়ংক্রিয় বৃষ্টি পরিমাপক যন্ত্র স্থাপন এবং ৩৫টি সনাতন পর্যবেক্ষণাগারে স্বয়ংক্রিয় বৃষ্টি পরিমাপক যন্ত্র স্থাপন করা হবে।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরে বিমানবাহিনীর একজন কর্মকর্তা প্রেষণে নিয়োজিত করার সুপারিশ করা হয়েছে। আর আবহাওয়া অধিপ্তরের প্রকল্পে জনগণের কাজে ব্যবহৃত হবে এমন যন্ত্রপাতি কেনার পরামর্শ হয়েছে। এছাড়া ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিমানবন্দরে আবহাওয়া যন্ত্রপাতি স্থাপন করে নিরাপদ বিমান উড্ডয়ন ও অবতরণ নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে।

এদিকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি দশের কোনো এলাকায় দুই কিলোমিটারের মধ্যে প্রাইমারি স্কুল না থাকলে তা নির্মাণের সুপারিশ করেছে। কমিটির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে বৈঠকে অংশ নেন কমিটির সদস্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, মেহের আফরোজ, আলী আজম, মো. নজরুল ইসলাম বাবু, ফেরদৌসী ইসলাম এবং কাজী মনিরুল ইসলাম।
বৈঠকে ঢাকা মহানগরী ও প‚র্বাচলে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপন ও অবকাঠামো উন্নয়নসহ দৃষ্টিনন্দনকরণ প্রকল্প সম্পর্কে জানানো হয়। মন্ত্রণালয় মোট ৩৫৬টি স্কুলের মধ্যে প্রাথমিকভাবে ১৬০টি স্কুলের দৃষ্টিনন্দনকরণের নকশা উপস্থাপন করে। এছাড়া, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালকের অফিস দৃষ্টিনন্দন করারও সুপারিশ করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কৃষি আবহাওয়া যন্ত্র
আরও পড়ুন