Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৭ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

বাদাউন গণধর্ষণ খুনের মামলায় পুরোহিত গ্রেফতার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

বাদাউন গণধর্ষণ-খুনের মামলায় মূল অভিযুক্ত মন্দিরের পুরোহিতকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশের পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজ ছিল সত্যনারায়ণ নামে ওই পুরোহিত। বাদাউনের জেলাশাসক বৃহস্পতিবার এই গ্রেফতারির খবর নিশ্চিত করেছেন। 

জেলাশাসক জানান, সত্যনারায়ণ নামে ওই পুরোহিতকে বৃহস্পতিবারই গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। ধৃতকে আদালতে পেশ করা হলে, জেরার জন্য পুলিশি হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক। নৃশংস এই ধর্ষণ-খুনের ঘটনায় সত্যনারায়ণের দুই সঙ্গীকে আগেই গ্রেফতার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে গণধর্ষণের ঘটনা নিশ্চিত করার পরেই এই গ্রেফতারি। রিপোর্টে নির্যাতিতার যৌনাঙ্গে একাধিক আঘাতের চিহ্ন থাকার কথা নিশ্চিত করা হয়েছে। ধর্ষকরা নির্যাতিতার যৌনাঙ্গে যে রড ঢুকিয়েছিল, তা আগেই আন্দাজ করেছিল পুলিশ। পোস্টমর্টেমের রিপোর্টেও তা নিশ্চিত করা হয়েছে। ধর্ষকদের পৈশাচিক অত্যাচারে মহিলার পা-পাঁজরের হাড়ও ভেঙে যায়। রোববার সন্ধ্যায় গ্রামের মন্দিরে পুজো দিতে গিয়ে গণলালসার শিকার হন মাঝবয়সি মহিলা। রাত বাড়লেও বাড়িতে না ফেরায় দুশ্চিন্তা বাড়ে পরিবারের। খোঁজ করতে বেরিয়ে গ্রামের রাস্তার ধার থেকে মহিলাকে যখন উদ্ধার করা হয়, যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছিলেন। অবিরত রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। কথা বলার মতো অবস্থায় ছিলেন না। ওই অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে, কিছুক্ষণের মধ্যে মারা যান ওই মহিলা।
ঘটনার দু’দিন পর, মঙ্গলবার, বাদাউনের গণধর্ষণ-খুনের ঘটনায় এফআইআর নেয় পুলিশ। নির্যাতিতার পরিবারের অভিযোগ, রোববার রাতে ফোন করা সত্তে¡ও পুলিশ ঘটনাস্থলে আসতে রাজি হয়নি। ধর্ষণের অভিযোগ নিতেও পুলিশের বিরুদ্ধে গড়িমসির অভিযোগ তোলে পরিবার। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে রাতের অন্ধকারে মহিলাকে রাস্তায় ফেলে একটি গাড়ি পালিয়ে যায়। ওই গাড়িতে চালক ছাড়াও আরও ২ জন যে ছিল, গ্রামের কয়েক জন তা পুলিশকে জানান। প্রত্যক্ষদর্শীদের মুখে অভিযুক্তদের বিবরণ শুনে পুলিশ প্রথম থেকেই সন্দেহ করে মন্দিরের পুরোহিতকে। ঘটনার পর সত্যনারায়ণ নামে ওই পুরোহিত পালিয়ে যাওয়ায়, সন্দেহ আরও দৃঢ় হয়। ধর্ষণে অভিযুক্ত বাকিদের একজন পূজারীর সহকারী, অপর জন গাড়ির চালক। সূত্র : হিন্দুস্থান টাইমস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গণধর্ষণ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ