Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

জনগণ চায় আমরা রাস্তায় নামি: গয়েশ্বর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ জানুয়ারি, ২০২১, ৭:৫৭ পিএম

জনগণ বিএনপিকে রাস্তায় দেখতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, জনগণ প্রস্তুত আছে। আমাদের কথার চেয়ে কাজ দরকার বেশি। জনগণ চায় আমরা রাস্তায় নামি। জনগণ আমাদের সাথে নামবে। সুতরাং এই মুর্হুত থেকে আমাদের প্রস্তুতি নেওয়া দরকার। সেকারণে দলকে ঐক্যবদ্ধ করার মধ্য দিয়ে পাড়ায়-মহল্লা-গ্রাম-গঞ্জে যে যেখানে আছেন তাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করুন। ঐক্যের ডাক দিয়ে বলুন-‘এক দফা এক দাবি, হাসিনা তুই করে যাবি’।

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মহানগর উত্তর-দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা ‘ভুয়া-বানোয়াট-মিথ্যা’ রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় এই কর্মসূচির পাশাপাশি সারাদেশে জেলা ও মহানগরে একযোগে এই কর্মসূচি করেছে বিএনপি

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আমাদের বুঝতে হবে, তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি এটা শেষ কথা নয়। আমরা যদি গণতন্ত্র উদ্ধার করতে পারি হামলা-মামলা-হুলিয়া কোনো কিছুই থাকবে না, আমরা যদি গণতন্ত্র উদ্ধার করতে চাই, তাহলে অবশ্যই গণতন্ত্রের বিশ্বাস করে না, যার হাতে গণতন্ত্র গুম হয়েছে, খুন হয়েছে সেই সরকারকে আমাদেরকে বিতাড়িত করতে হবে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা থেকে।

যদি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা থেকে বিতাড়িত করতে পারি তাহলে দেশপ্রেমিক জাতীয়তাবাদী যে শক্তি, সেই শক্তি একটি আশা পাবে, প্রত্যাশা পাবে। যে স্বাধীনতা সুফল যে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা, শোষণহীন সমাজ ব্যবস্থা এবং আইনের শাসন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সব কিছুই একটি নিয়মের মধ্যে আসবে।

তিনি বলেন, আজকে আদালত বলুন, বিচার বিভাগ বলুন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী বলুন, যত বাহিনী আছে সব বাহিনী একজনের হাতে মুঠায়। এই কর্তৃত্ববাদী সরকার ভিন দেশীদের দাসত্ব গ্রহন করে আজকে ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করা এবং দেশের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিয়ে দেশটাকে আগের মতো তলাবিহীন ঝুড়ি বানানোর একটি পায়তারা চলছে। তাই আমাদের একটি-দুইটি মামলার প্রতিবাদ করে ক্ষান্ত হলে চলবে না, একটি সমাবেশের মধ্য দিয়ে আত্মতৃপ্তি প্রকাশ করলে চলবে না।

মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে ও দক্ষিণের কাজী আবুল বাশার ও উত্তরের আবদুল আলীম নকির পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নাজিম উদ্দিন আলম, মীর সরফত আলী সপু, আজিজুল বারী হেলাল, শিরিন সুলতানা, আবদুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম, শামীমুর রহমান শামীম, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, যুব দলের সাইফুল ইসলাম নিরব, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, মহিলা দলের সুলতানা আহমেদ, কৃষক দলের হাসান জাফির তুহিন, জাসাসের হেলাল খান, ছ্ত্রা দলের ফজলুল রহমান খোকন, ইকবাল হোসেন শ্যামল প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গয়েশ্বর চন্দ্র রায়


আরও
আরও পড়ুন