Inqilab Logo

রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২২ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

মিথ্যা ঘোষণায় এলো ৪০ টন সোফার কাপড়

১ কোটি ৪০ লাখ টাকা শুল্ক ফাঁকির অপচেষ্টা

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

শূন্য শুল্কে রফতানিমুখী পোশাক শিল্পের কাঁচামাল সাদা ফেব্রিক্সের ঘোষণা দিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে আনা হলো ৪০ টন মূল্যবান পর্দা ও সোফার কাপড়। আর এর মাধ্যমে এক কোটি ৪০ লাখ টাকা শুল্কফাঁকির অপচেষ্টা হচ্ছিল। মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে গতকাল চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের এআইআর শাখা মিথ্যা ঘোষণায় আনা দ্বিতীয় এ চালানটি আটক করলো। এর আগে গত ৭ জানুয়ারি তুলা আমদানির ঘোষণা দিয়ে দেড় কোটি টাকা মূল্যের ৪০ হাজার ৫০ কেজি সোফার কাপড়ের একটি চালান ধরা পড়ে। এ দুটি চালানের মাধ্যমে প্রায় তিন কোটি টাকা শুল্কফাঁকির অপচেষ্টা ভন্ডুল করে দিলেন চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের কর্মকর্তারা।
কাস্টম হাউসের এআইআর শাখার সহকারী কমিশনার রেজাউল করিম জানান, ঈশ্বরদী ইপিজেডের রফতানিমুখী প্রতিষ্ঠান নাকানো ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি লিমিটেডের নামে সাদা ফেব্রিক্স ঘোষণায় চীন থেকে দুই কন্টেইনার পণ্য আমদানি করা হয়। একটি কন্টেইনার আগমনের প্রায় দেড় মাস এবং অপরটি ২০ দিন অতিবাহিত হলেও আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান পণ্য খালাসের জন্য কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। অন্যদিকে ৪০ ফুটি এ দুটি কন্টেইনারে ঘোষণা বহিভর্‚ত পণ্য রয়েছে এমন খবর পাওয়ার পর কাস্টম হাউস কর্তৃপক্ষ এসাইকুডা ওয়ার্ল্ড সিস্টেমে কন্টেইনার দুইটির বিএল ব্লক করে রাখে।

পণ্য পরীক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আমদানিকারকের প্রতিনিধিকে মৌখিকভাবে অনুরোধ করে এআইআর টিম। তবে তারা কাস্টম হাউসকে সহযোগিতা করার পরিবর্তে কন্টেইনার দুইটি তাদের নামে আনা হলেও এসব পণ্য তাদের নয় বলে দাবি করে। এ প্রেক্ষিতে গতকাল কন্টেইনার দুটি খুলে কায়িক পরীক্ষা করে এআইআর শাখা। কন্টেইনারে পণ্য শিল্পের কাঁচামালের পরিবর্তে পাওয়া যায় প্রায় ৪০ মেট্রিক টন পর্দা ও সোফার কাপড়। এক্ষেত্রে দেড়কোটি টাকা মূল্যের এই চালানে প্রায় ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা শুল্ক ফাঁকির অপচেষ্টা করা হয়।

দেশীয় পোশাক শিল্পের প্রসারের লক্ষ্যে ইপিজেডের প্রতিষ্ঠানসমূহকে এলসি ব্যতিরেকে আইপি’র মাধ্যমে কাঁচামাল আমদানির সুযোগ দিয়েছে সরকার। এছাড়া শিল্পের কাঁচামালের ক্ষেত্রে তড়িৎ খালাসের আওতায় পণ্য চালানসমূহ ছাড় দেয়া হয়। এই সুযোগের অপব্যবহার করে মিথ্যা ঘোষণার মাধ্যমে অভিনব পন্থায় শুল্ক ফাঁকির অপচেষ্টা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন কাস্টম হাউসের কর্মকর্তারা। এ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন