Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বাংলাদেশের হোম ম্যাচ কেড়ে নিতে চায় ওমান-কাতার!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস আতঙ্কে পিছিয়ে যাওয়া বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে ‘ই’ গ্রুপের বাকি তিন ম্যাচই ঘরের মাঠে খেলার কথা বাংলাদেশের। প্রায় এক বছর পিছিয়ে আগামী ২৫ মার্চ আফগানিস্তান, ৭ জুন ভারত ও ১৫ জুন ওমানের বিপক্ষে বাছাইয়ের শেষ তিন ম্যাচ খেলবে লাল-সবুজরা। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) এই ম্যাচগুলোর সূচী চূড়ান্ত করলেও ভেন্যু নির্ধারণ করেনি। যদিও নিয়ম অনুযায়ী ফিরতি লেগের ম্যাচ নিজেদের দেশের খেলার কথা জামাল ভূঁইয়াদের। কিন্তু লাল-সবুজদের সেই তিন হোম ম্যাচ কেড়ে নিতে চাইছে ওমান ও কাতার! তাদের ইচ্ছা বাংলাদেশের ম্যাচগুলো তারা আয়োজন করবে। তবে হোম ভেন্যুর সুবিধা হারাতে নারাজ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। গতকাল সভা শেষে এ তথ্য জানান জাতীয় দল কমিটির চেয়ারম্যান ও বাফুফের সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ এমপি। তিনি বলেন, ‘আমাদের তিনটিই হোম ম্যাচ। আমরা নিজেদের মাঠেই ম্যাচগুলো খেলতে চাই। ইতোমধ্যে ওমান এবং কাতারকে তা জানিয়েও দিয়েছি।’
করোনার সংক্রমণ রুখতে গত বছর পেছানো হয় বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচগুলো। যা এ বছরের মার্চ ও জুনে আয়োজন করার ঘোষণা দিয়ে নতুন সূচী দেয় এএফসি। কিন্তু সম্প্রতি ওমান এবং কাতার বাছাইয়ের ‘ই’ গ্রুপের বাকি ম্যাচগুলোর জন্য স্বাগতিক হতে চেয়েছে। কাজী নাবিল আরো বলেন, ‘ওমান এবং কাতার উভয়েই বিশ্বকাপ বাছাইয়ের বাকি ম্যাচগুলোর জন্য স্বাগতিক হওয়ার প্রস্তাব দিয়ে মার্চের শেষ সপ্তাহে (২৪, ২৭ ও ৩০ মার্চ) তা আয়োজন করার কথা জানিয়েছে। তারা সাত দিনের মধ্যে ওই ম্যাচগুলো করতে চায়।’ সারা বিশ্বে করোনা পরিস্থিতি এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। বরং বেশ কয়েকটি দেশে পরিস্থিতি ভয়াবহ। ভারতে করোনা পজিটিভের সংখ্যা বাড়ছে। আফগানিস্তানে খেলার পরিস্থিতি নেই। তুলনামূলক কাতার এবং ওমানে করোনাভাইরাস সংক্রমনের সংখ্যা কম। ভারত এবং আফগানিস্তান যদি ওমান ও কাতারে গিয়ে ম্যাচ খেলতে রাজি থাকে, সেক্ষেত্রে শুধু বাংলাদেশের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে আগ্রহীদের। এ নিয়ে কাজী নাবিল বলেন, ‘ভারত ও আফগানিস্তান কি সিদ্ধান্ত দেবে সেটা তাদের ব্যাপার। আমরা এখনো হোম ম্যাচের পক্ষেই রয়েছি।’
জাতীয় দল কমিটির সভায় ম্যানেজার নিয়োগ, বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ, কোচিং স্টাফসহ সকল বিষয় আলোচনা হলেও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এ প্রসঙ্গে জাতীয় দল কমিটির প্রধান বলেন, ‘কাতার এবং ওমানের এই প্রস্তাবের কারণে অন্য বিষয়গুলোতে আমরা সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারিনি। কারণ বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ আমাদের জন্য। এই বিষয়ের সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত অন্য কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া যাচ্ছে না।’
এদিকে হোম ভেন্যুর সুবিধা হারাতে চান না বাংলাদেশ জাতীয় দলের ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে। কাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি বলেন, ‘এটা কোনো ভাবেই মেনে নেয়া যায় না। আমরা হোমের সুবিধা ছাড়তে পারি না। যদি ওই তিন ম্যাচ বাইরে গিয়ে খেলতে হয়, তাহলে ছয় ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিই অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলা হবে আমাদের। এটা নিরপেক্ষ নয়।’ আজ সকালে লন্ডন থেকে ঢাকায় ফেরার কথা জেমি ডে’র। নিজের ফেরা নিয়ে তিনি বলেন, ‘সম্ভবত আজ (গতকাল) আমি ঢাকার উদ্দেশ্যে লন্ডন ছাড়বো। ঢাকায় গিয়ে আমাকে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এর আগেরবারও আমি অনেকদিন কোয়ারেন্টিনে থেকেছি।’ যদি আজ ঢাকায় ফেরেন জেমি তাহলে কোয়ারেন্টিনে থাকার কারণে বিপিএলের তিন রাউন্ড স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখা হবে না তার।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনা

১৬ জানুয়ারি, ২০২১
১৬ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন