Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

খুলনায় কুরবানির জন্য ১৬০টি পয়েন্ট নির্ধারণ

প্রকাশের সময় : ২৭ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা, খুলনা : ঈদুল আজহায় বাড়ির সামনে কিংবা রাস্তাঘাটে পশু কোরবানি বন্ধে এবার আগেভাগেই উদ্যোগ নিয়েছে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি)। কোরবানির জন্য নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে ১৬০টি পয়েন্ট নির্ধারণ করে দিয়েছে সংস্থাটি। এসব পয়েন্টে কোরবানির জন্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধাও রাখা হবে। পরিবেশ দূষণরোধে এসব উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
প্রতি বছর ঈদুল আজহার দিন নগরীর যত্রতত্র কোরবানির ফলে পরিবেশ দূষিত হয়। তাছাড়া পশু জবাইয়ের দৃশ্য দেখে শিশুরাও আতঙ্কিত হয়। এ ছাড়া কোরবানির পর গবাদি পশুর উচ্ছিষ্ট রাস্তার ওপর কিংবা ড্রেনে ফেলা হয়। এতে দুর্গন্ধ ছড়ায় এবং ড্রেনের পানি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বর্জ্য অপসারণে পরিচ্ছন্নকর্মীদের বেগ পেতে হয়।
গত বছর নগরীর ৪২টি পয়েন্টে পশু কোরবানি করার উদ্যোগ নেয়া হলেও প্রচার অভাবে তা তেমন ফলপ্রসূ হয়নি। তাই এ বছর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এবং স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে আগেভাগেই তৎপরতা শুরু করেছে কেসিসি।
কেসিসি’র সিনিয়র ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ মোঃ রেজাউল করিম জানান, পশু কোরবানির জন্য ১৬০টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব স্থানে পশু জবাই করার জন্য ২৮৮ইমাম ও জবাইকারী এবং গোশত তৈরির জন্য ১৭৫জন কসাই থাকবেন। প্রতিটি স্থানের ওপরে শামিয়ানা টানানো, কোরবানিদাতাদের বসার জন্য ৫০টি করে চেয়ার, পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থা, হোগলা মাদুর এবং মাংস পরিবহনের জন্য বস্তা ও প্রতিটি স্পটে দু’টি করে ভ্যান থাকবে।
তিনি জানান, এই উদ্যোগ কার্যকর করার জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে সিটি মেয়রের নেতৃত্বে একটি মনিটরিং টিম গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া ১২ সদস্য করে ১৬০টি স্থানীয় মনিটরিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। জনগণকে সচেতন করার জন্য প্রতিটি ওয়ার্ডে ঈদের আগে ৭দিন মাইকিং করা হবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে করা হবে উদ্বুদ্ধকরণ সভা।
কেসিসি’র ভারপ্রাপ্ত মেয়র আনিসুর রহমান বিশ্বাস বলেন, সিটি করপোরেশনের ধারণা অনুযায়ী, নগরীতে এ বছর সম্ভাব্য কোরবানিদাতার সংখ্যা ২০ হাজার। আর পশু কোরবানি হবে প্রায় ১৮ হাজার। এই হিসাব সামনে রেখে তারা সার্বিক প্রস্তুতি নিয়েছেন।
কেসিসি’র প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোঃ আবদুল আজিজ জানান, কোরবানির পর দুপুর ২টা থেকে এসব পয়েন্ট থেকে ময়লা-আবর্জনা অপসারণ কাজ শুরু হবে। রাত ২টার মধ্যে সব ময়লা ডাম্পিং গ্রাউন্ডে অপসারণের জন্য তারা প্রস্তুতি নিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ