Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

করোনা ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০২১, ৭:৪৫ পিএম | আপডেট : ৮:৪২ পিএম, ১৪ জানুয়ারি, ২০২১

প্রাথমিকভাবে সব ভাইরাসজনিত রোগের উপসর্গ শুরু হয় জ্বর দিয়ে। সবগুলোতেই জ্বর, শরীরব্যথা বা শরীর ম্যাজম্যাজ, অরুচি, বমিভাব, বমি, ক্লান্তি হতে পারে। এর মধ্যে ইনফ্লুয়েঞ্জা আর করোনায় গলাব্যথা ও শুকনো কাশিও থাকে। করোনার সংক্রমণের মৃদু উপসর্গ সাধারণ ফ্লুর মতই। কিন্তু এ সময় এই সাধারণ উপসর্গকেও আমলে নিতে হবে, করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। বৃহষ্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) ‘করোনা ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা’ শীর্ষক এক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন। ঢাকা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই সভায় সভাপতিত্ব করেন সিভিল সার্জন ডা. আবু হোসেন মঈনুল আহসান। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডা. জুমানা আশরাফি সুইটি। কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মহসিন মিয়া, জুনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা কামরুন নাহার প্রমুখ।

ডা. আবু হোসেন মঈনুল আহসান বলেন, ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া মশার কামড়ের মাধ্যমে ছড়ায়। করোনাভাইরাস ছড়ায় মানুষের হাঁচি-কাশি ও শ্বাসপ্রশ্বাসের মাধ্যমে, হাত ও বস্তুর স্পর্শে। এটি বেশি সংক্রামক। তাই সবাইকে সামাজিক দূরত্ব মেনে ও অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করার তাগিদ দেন। একই সঙ্গে জ্বর হলে করোনার সাথে ডেঙ্গু পরীক্ষারও পরামর্শ প্রদান করেন।

প্রবন্ধে বলা হয়, ডেঙ্গুর উপসর্গগুলোর মধ্যে রয়েছে প্রচন্ড মাথাব্যথা, শরীরব্যথা, চোখের পেছনে ব্যথা, শরীরে র‍্যাশ। তবে প্রতিবছর ডেঙ্গুর ধরন খানিকটা পাল্টায়। ফলে কাশি হওয়াও বিচিত্র নয়। বমি, ডায়রিয়াও হতে পারে। তবে করোনা ও ডেঙ্গু-উভয় রোগেই চোখ লাল হতে পারে। এক্ষেত্রে জ্বর ১০১ ডিগ্রি ফারেনহাইটের ওপর উঠলে সতর্কভাবে উপসর্গগুলো লক্ষ করুন ও চিকিৎসককে বিস্তারিত জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনা ও ডেঙ্গু
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ