Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৯ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত

রাজধানীতে শিক্ষকরা গাদা-গাদি অফিস করেছে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর চলমান ছুটি আগামী ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়িয়েছে সরকার। তবে, কওমি মাদ্রাসাগুলো এই ছুটির আওতায় পড়বে না। অন্যদিকে রোস্টার অনুযায়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আসতে বলা হলেও তা করা হচ্ছে না। রাজধানীতে শিক্ষকরা গাদা-গাদি অফিস করেছে, স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না বলে জানা গেছে।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ খায়ের এ তথ্য জানান। বাংলাদেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর গত ১৭ মার্চ থেকে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। কয়েক ধাপে বাড়ানোর পর ১৬ জানুয়ারি ২০২১ পর্যন্ত ছুটি ছিল, সেই ছুটি এবার ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়ল। শীতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে পরিস্থিতি উন্নতি না হওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চলমান এ ছুটি বাড়ানো হয়েছে। করোনা মহামারির কারণে এবছর প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী, অষ্টমের সমাপনী ছাড়াও এইচএসসি পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।

জেএসসি ও এসএসসির ফলেরভিত্তিতে এইচএসসির ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত হলেও প্রাথমিকের অন্য শ্রেণিগুলোয় পরীক্ষা ছাড়া পরবর্তী ক্লাসে তুলে দেয়া হচ্ছে। আর মাধ্যমিকের ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত অ্যাসাইনমেন্ট দিয়ে মূল্যায়ন করা হচ্ছে শিক্ষার্থীদের।
অন্যদিকে, উচ্চশিক্ষা স্তরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনার্স ও মাস্টার্সের চ‚ড়ান্ত পরীক্ষা নিতে অনুমতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন-ইউজিসি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রাজধানীর মিরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক জানান, রোস্টার অনুযায়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অফিস করার জন্য ডিসি অফিস থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। কিন্তু থানা শিক্ষা অফিসার তা মানছে না। সরকারি ছুটি থাকাকালিন হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর বন্ধ করলেও প্রতিদিন ১২/১৮ জন শিক্ষককে বিদ্যালয়ে আসতে হচ্ছে। আমাদের কেউ আক্রান্ত হলে কি হবে।

ধানমন্ডি উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক জানান, তাদেরকে একইভাবে প্রতিদিন বিদ্যালয়ে আসতে হচ্ছে। কিন্তু রোস্টার করা হচ্ছে না।

 



 

Show all comments
  • MA MOHAMMAD EUSUF SHSHEEN ১৬ জানুয়ারি, ২০২১, ২:১০ পিএম says : 0
    All educational institutions should be opened because madras & all activities are going on everyday but what had happened in education sector. Many examination of higher level is going on without opening universities and colleagues. How is it possible? Colse is colse but what is drama.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শিক্ষা

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন