Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৬ রজব ১৪৪২ হিজরী

পেছনের দরজা দিয়ে এসে পেছনের দরজা দিয়ে চলে গেলে বেরোবি ভিসি

রংপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ জানুয়ারি, ২০২১, ৪:১০ পিএম

পেছনের দরজা দিয়ে এসে পেছনের দরজা দিয়েই চলে গেলেন বেরোবির ভিসি অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ। শিক্ষক-কর্মকর্তাদের অভিযোগ তাদেরকে বাসভবনের সামনে সাড়ে ৩ ঘন্টা অপেক্ষায় রেখে তিনি তার বাসভবনের পেছনের দরজা দিয়ে সবার অজান্তে বাসভবন থেকে চলে গেছেন। এ ঘটনায় শিক্ষক-কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বেরোবির ভিসি অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ দীর্ঘ এক বছরেও বেশি সময় ধরে ক্যাম্পাসে আসেন না। হঠাৎ করে গোপনে ঢাকা থেকে শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে ক্যাম্পাসের মূল প্রবেশ পথ ব্যবহার না করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পেছনের পথ দিয়ে ক্যাম্পাসে আসেন তিনি। বিষয়টি জানাজানি হলে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তারা তার সঙ্গে দেখা করার জন্য বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেন।
এ বিষয়ে বেরোবির অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, দীর্ঘ প্রায় এক বছর ধরে ভিসি ক্যাম্পাসে আসেন না। শুক্রবার সকালে গোপনে তিনি ঢাকা থেকে আসার খবর পেয়ে নিজেই ভিসির পিএস আমিনুর রহমানকে ফোন করি। পরে নিশ্চিত হই ভিসি সকাল ৯টার দিকে ক্যাম্পাসে এসেছেন এবং তার বাসভবনে অবস্থান করছেন। এ খবর জানার পর ভিসির সঙ্গে দেখা করার জন্য তাকে জানালে পিএস জানান বিষয়টি ভিসিকে জানিয়ে সময় জানানো হবে। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পরেও কোনও সাড়া না পেয়ে অধিকার সুরক্ষা পরিষদের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক ও কর্মকর্তাগন বেলা পৌনে এগারটার দিকে ভিসির বাসভবন ঘেরাও করে সেখানে অবস্থান নেন। সেখানে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত অবস্থান করার পর জানা যায় ভিসি শিক্ষকদের আসার খবর পেয়ে বাসভবনের পেছন গেট দিয়ে গোপনে পালিয়ে গেছেন। বিষয়টি জানাজানি হলে শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।
শিক্ষক নেতৃবৃন্দ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বছরের পর বছর বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন না। এমনকি রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস স্বাধীনতা দিবস, রোকেয়া দিবস, একুশে ফেব্রুয়ারিতেও আসেন না। তার দীর্ঘ অনুপস্থিতির কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম ধ্বংস হয়ে গেছে। তার ওপর দুর্নীতি-লুটপাট ও ক্ষমতার অপব্যবহার করেই চলেছেন ভিসি। আমরা এর সমাধান চাই।
শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি ড. তুহিন ওয়াদুদ বলেন, ভিসি বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন না। ১৩০০ দিনের মধ্যে ১১০০ দিনই তিনি অনুপস্থিত। আজ হঠাৎ তার আগমনের খবর পেয়ে আমরা তার সঙ্গে দেখা করতে তার বাসভবনে গিয়েছিলাম। তবে কখন যে তিনি চলে গেলেন টেরও পেলাম না। একটা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি এভাবে তার কর্মস্থলে না আসলে বিশ্ববিদ্যালয়টা চলে কিভাবে?
বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বলেন, উনি এমন কি ক্ষমতাধর হয়েছেন যে তার কর্মস্থলে আসবেন না। তারপরেও এই পদে তিনি কিভাবে থাকেন? বিষয়টি সরকারের নীতি নির্ধারকদের দেখা উচিত।
পরে অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান বলেন, আমরা এক সপ্তাহের মধ্যে ভিসির অনিয়ম-দুর্নীতি ও লুটপাটের সব ফিরিস্তি দিয়ে শ্বেতপত্র প্রকাশ করবো।
বিষয়টি নিয়ে ভিসির সঙ্গে বেশ কয়েকবার ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। ##
৪ দফা দাবিতে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ পলিটেকনিক ছাত্রদের
রংপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টারঃ অতিরিক্ত ফি প্রত্যাহারসহ চার দফা দাবিতে রংপুরে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর শিক্ষার্থীরা।
আজ শনিবার বেলা ১২টার দিকে রংপুর প্রেসক্লাবের রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করেন তারা।এরপর একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে নগরীর কাচারি বাজারে জেলা প্রশাসক কার্যলয়ের সামনে রাস্তা অবরোধ করে সেখানেও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তারা।
বিক্ষোভ সমাবেশে শিক্ষার্থীরা বলেন, করোনার দোহাই দিয়ে ক্লাস পরীক্ষা না নিয়ে উপরন্তু ফি বাড়ানো হয়েছে। আগামীতে কোন পরীক্ষা গ্রহণের কোন উদ্যোগ না থাকায় অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছেন তারা। এ অবস্থায় আন্দোলনে নামা ছাড়া কোন উপায় নেই তাদের। তাদের দাবি- ডুয়েটসহ অন্যান্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আসন সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে। সেশন জট নিরসন ও শর্ট সিলেবাসে ক্লাস চালু করতে হবে। অবিলম্বে এসব দাবি আদায় না হলে বৃহৎ আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন তারা। 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বেরোবি ভিসি
আরও পড়ুন