Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৭ রজব ১৪৪২ হিজরী

ইন্দোনেশিয়ার বাড়ি-ঘর ধোঁয়া আর ছাইয়ে ঢেকে যাচ্ছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:১৮ এএম | আপডেট : ১১:২৫ এএম, ১৮ জানুয়ারি, ২০২১


ইন্দোনেশিয়ার মাউন্ট সেমেরু আগ্নেয়গিরিটি ভয়ঙ্করভাবে জেগে উঠেছে। আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখ দিয়ে বের হয়ে আসা ছাই জাভা দ্বীপের আকাশে প্রায় সাড়ে পাঁচ কিলোমিটার এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে। আকাশে প্রায় ৫ দশমিক ৬ কিলোমিটার উচ্চতা পর্যন্ত উঠে যায় আগ্নেয়গিরির ধোঁয়া। এতে স্থানীয় মানুষের মধ্যে প্রবল আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয় সময় শনিবার ১৭টা ২৪ মিনিটে মাউন্ট সেমেরুর জ্বালামুখ দিয়ে ধোঁয়া বের হওয়া শুরু হয়। আগ্নেয়গিরি জেগে উঠার পর এখনো কোনো মৃত্যুর খবর মেলেনি। তবে কর্তৃপক্ষ স্থানীয়দের সতর্ক করে বলেছে, অগ্ন্যুৎপাতের আশঙ্কা রয়েছে।
এমনকি নেমে আসতে পারে লাভাস্রোতও। কুরাহ কোবোকান নদী অববাহিকার বাসিন্দাদের সম্ভাব্য কোল্ড লাভা কাদা প্রবাহের দিকে নজর রাখার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। আগ্নেয়গিরি থেকে বেরিয়ে আসা লাভার সঙ্গে প্রচণ্ড বৃষ্টিপাত মিলে ওই কাদার প্রবাহের সৃষ্টি হয়। অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া নানা ছবিতে ১২ হাজার ৬০ ফুট উঁচু পাহাড়ের জ্বালামুখ থেকে বেরিয়ে আসা ছাইয়ে বাড়ি ঘর ঢেকে যেতে দেখা যাচ্ছে।
ইন্দোনেশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের রিং অব ফায়ার এ অবস্থিত। যে কারণে দেশটিতে মাঝেমধ্যেই নানা সক্রিয় আগ্নেয়গিরি জেগে উঠে। একই কারণে দেশটি বেশ ভূমিকম্প প্রবণ। শুক্রবার সুলাওয়েসি দ্বীপে ৬.২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প হয়। যাতে বাড়িঘর ধসে এ পর্যন্ত ৮৩ জনের মৃত্যু হয়। এখনো উদ্ধার কাজ চলতে থাকায় মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
শক্তিশালী ওই ভূমিকম্পের আগে ও পরে বেশ কয়েকটি পরাঘাত অনুভূত হয়। ভূমিকম্পের একদিন পরই মাউন্ট সেমেরু থেকে উদগীরণ শুরু হয়। সেমেরু দ্য গ্রেট মাউন্টেইন নামেও পরিচিত। এটি জাভা দ্বীপের সর্বোচ্চ এবং সবচেয়ে বেশি সক্রিয় আগ্নেয়গিরি। পাহাড়টি ইন্দোনেশিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্রগুলোর একটি বটে। সারা বিশ্ব থেকে প্রতি বছর অসংখ্য মানুষ এই পাহাড়ে বেড়াতে আসেন। এর আগে গত ডিসেম্বরে মাউন্ট সেমেরু থেকে উদগিরণ হয়েছিল। সেবার প্রায় সাড়ে পাঁচশ বাসিন্দাকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছিল। সূত্র : রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন