Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৯ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

২৬ জানুয়ারি অযোধ্যায় মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:৪২ এএম

ভারতের অযোধ্যার ধন্নিপুরে তৈরি হতে চলা মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপিত হবে আগামী ২৬ জানুয়ারি অর্থাৎ প্রজাতন্ত্র দিবসকেই এই শুভ কাজের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ইন্দো-ইসলামিক কালচারাল ফাউন্ডেশন (আইআইসিএফ)-এর পক্ষ থেকে চূড়ান্ত ঘোষণা দেয়া হয়েছে। গতকাল রোববার (১৭ ডিসেম্বর) ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যম এই তথ্য প্রকাশ করেছে।
বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে মসজিদ নির্মাণ প্রকল্পের শুভ সূচনা হবে। বৃক্ষরোপণের পাশাপাশি প্রস্তাবিত মসজিদের নির্মাণস্থলে তোলা হবে জাতীয় পতাকাও। জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে সচেতনতা তৈরি করতেই এমন সিদ্ধান্ত বলে জানানো হয়েছে।
অযোধ্যায় পূর্বের বাবরি মসজিদ থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে ধান্নিপুরে মসজিদটি তৈরি হতে চলেছে। মসজিদ নির্মাণকার্যের তত্ত্বাবধানে থাকা আইআইসিএফ এ নিয়ে রবিবারই একদফা বৈঠক করে। সেখানেই সর্বসম্মতিতে ২৬ জানুয়ারি মসজিদ নির্মাণের সূচনা করার সিদ্ধান্ত নেন সংগঠনের ৯ ট্রাস্টি। পরে এ নিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানানো হয়, ওই দিন সকাল ৯টায় বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে প্রকল্পের সূচনা ঘটবে। আয়কর ছাড়, বিদেশি অনুদান ইত্যাদি নিয়েও আলোচনা হয়েছে এক প্রস্থ।
ওই বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, হাসপাতাল, জাদুঘর, গ্রন্থাগার, বাগান, কমিউনিটি কিচেন, ইন্দো-ইসলামিক কালচারাল রিসার্চ সেন্টার এবং প্রকাশনী সংস্থা-সহ মসজিদ চত্বরের একটি নকশায় ইতিমধ্যেই অনুমোদন দিয়েছে অযোধ্যা জেলা প্রশাসন। মাটি পরীক্ষা করে নির্মাণকার্য শুরুর অনুমোদনের জন্য আবেদন জানানো হবে শীঘ্রই।
দীর্ঘ টানাপড়েনের পর ২০১৯-এর নভেম্বরে অযোধ্যার বিতর্কিত জায়গায় মন্দির নির্মাণে অনুমতি দেয় সুপ্রিম কোর্ট। সেখান থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে ৫ একর জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে মসজিদ নির্মাণের জন্য।
মসজিদটিতে একসঙ্গে দুই হাজার মুসল্লী নমাজ আদায় করতে পারবেন। একেবারে আধুনিক চেহারা দেওয়ার কথাও ভাবা হয়েছে মসজিদটিতে। ১৫ হাজার বর্গফুট জমির উপরে তৈরি হতে চলা এই মসজিদটি ডিম্বাকৃতির হবে। ছাদ হবে গম্বুজাকার ও স্বচ্ছ।
মসজিদ ছাড়াও এই পাঁচ একরের মধ্যে তৈরি হবে ৩০০ শয্যাবিশিষ্ট একটি হাসপাতাল, ইন্দো ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার, লাইব্রেরি ও কমিউনিটি কিচেন। সূত্র : এনডিটিভি, আনন্দবাজার



 

Show all comments
  • Md. Shahjahan Siraj Sumon ১৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:৫৩ এএম says : 0
    এই মসজিদ ইনশাহ আল্লাহ ইতিহাস হয়ে থাকবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত

৪ মার্চ, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন