Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৭ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

পুলিশের অভিযানে রাউজানে ভুয়া চিকিৎসক আটক

রাউজান (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

চট্টগ্রামের রাউজানে এক চিকিৎসককে প্রতারণার অভিযোগে ফের আটক করেছে পুলিশ। এমবিবিএস ডিগ্রিধারী ওই চিকিৎসকের নাম মো. জাহাঙ্গীর আলম (৪৫)।
গত সোমবার সকালে চেম্বারে বসে চিকিৎসা করার সময় রাউজান-রাঙ্গুনিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন শামীম ও রাউজান থানার ওসি আবদুল্লাহ আল হারুনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে চেম্বারে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করেন।
আটকৃত চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম উপজেলার নোয়াপাড়া ইউনিয়েেনর পথেরহাট স্কুল মার্কেটের ২য় তলায় চেম্বার করে নিজেকে এমবিবিএস, পিজিটি, শিশু ও মেডিসিন সার্জারি, জেনারেল ফিজিসিয়ান সাইন বোর্ড টাঙ্গিয়ে চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা করে আসছিলেন।
চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে এলাকার লোকজনকে চিকিৎসা করে বিপুল পরিমাণ অর্থ বিত্তের মালিকও হন তিনি।
জানা যায়, ভুয়া চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম পুর্বেই একাধিকবার আইন শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্য ও রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হাতে আটক হয়ে জরিমানা ও দন্ড ভোগ করলেও পুনরায় নিজেকেই এমবিবিএস পাশ করা চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে নোয়াপাড়া পথেরহাট স্কুল মাকের্টের ২য় তলায় তার চেম্বারে চিকিৎসা করে প্রতারনা করছেন এলাকার লোকজনের সাথে।
নোয়াপাড়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার জাহাঙ্গীর সিকদার বলেন, জাহাঙ্গীর আলম বাবুল মেম্বরের নতুন বাড়িস্থ মৃত আবুল কাশেম প্রকাশ মেরুর পুত্র। জাহাঙ্গীর আলম একজন ভুয়া চিকিৎসক। জাহাঙ্গীর আলম এমবিবিএস পাশ করা চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে প্রতরানা করায় পূর্বেও একাধিক বার আটক হয়ে জরিমানা ও দন্ড ভোগ করেন।
রাউজানের নোয়াপাড়া ইউনিয়নের মোকামীপাড়া এলাকার জাহানারা বেগম বলেন, জাহাঙ্গীর আলম এমবিবিএস চিকিৎসক পরিচয় দেয়ায় আমি তার কাছে চিকিৎসা করি, আমার কাছ থেকে ৪শ’ টাকা ফি নেয়।
রাউজান-রাঙ্গুনিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন শামীম বলেন, ভুয়া চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলমকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে প্রতরনার ব্যাপারে নিয়মিত মামলা রুজু করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন