Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৮ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ফের ঐক্যের ডাক বাইডেনের

অনিবন্ধিত অভিবাসীর আট বছরের মধ্যে বৈধ হওয়ার পথ খুলবে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

ফের ঐক্যের ডাক দিলেন নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সোমবার মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র দিবস উপলক্ষে বাইডেন এই আহবান জানান। বাইডেন নিজ শহর ডেলাওয়ার থেকে ফিলাডেলফিয়ায় দাতব্য কাজে যাওয়ার মধ্য দিয়ে মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র দিবস পালন করেন। বলা হচ্ছে, চার বছরের বিভক্তি শেষে সকলকে ঐক্যবদ্ধ করার প্রয়াসের এটি একটি প্রতীকি উদ্যোগ। এ উপলক্ষে এক ভিডিও বার্তায় বাইডেন বলেন, আমাদের ভালোবাসার দেশটিকে নিরাপদ, ঐক্যবদ্ধ ও পুনগর্ঠন করার কাজ শুরুর এখনই উপযুক্ত সময়। তবে ৭৮ বছরের জো বাইডেন যতই ক্ষত নিরাময় ও আশার কথা শোনান না কেন বিশ্লেষকরা বলছেন, ক্ষমতার প্রথম দিন থেকেই তাকে কঠোর বাস্তবতর মুখোমুখি হয়ে কঠিন সংকটসম‚হ মোকাবেলা করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণের বাইরে, টিকা দান কর্মস‚চি প্রতিনিয়ত হোঁচট খাচ্ছে। এছাড়া রয়েছে ভঙ্গুর অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের চ্যলেঞ্জ। এদিকে ৬ই জানুয়ারি পার্লামেন্ট ভবনে সশস্ত্র হামলার ঘটনার পর থেকে অনেকটাই নীরব রয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি এখনও পর্যন্ত নির্বাচনে তার পরাজয় স্বীকার কিংবা জয়ী প্রার্থীকে অভিনন্দন জানাননি। যুক্তরাষ্ট্রের ঐতিহ্য অনুযায়ী বিদায়ী প্রেসিডেন্ট নতুন প্রেসিডেন্টকে ওভাল অফিসে চা চক্রে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানান। ট্রাম্প এক্ষেত্রেও দীর্ঘদিনের রীতি ভাঙলেন। এছাড়া বাইডেনের শপথ অন্ষ্ঠুানে না থাকার ঘোষণাও তিনি আগেই দিয়েছেন। এদিকে সোমবার প্রকাশিত এক জনমত জরিপে দেখা গেছে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্প তার জনপ্রিয়তার রেকর্ড সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছেন। আর কোন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট এতো কম জনপ্রিয়তা নিয়ে ক্ষমতা থেকে বিদায় নেননি। মার্কিন সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ট্রাম্পের সর্বশেষ কিছু সিদ্ধান্তের ঘোষণা মঙ্গলবার হতে পারে। তিনি বেশকিছু দোষী সাব্যস্ত অপরাধীকে ক্ষমা করে দিচ্ছেন। এমনকি তিনি নিজে ও তার সন্তান যারা হোয়াইট হাউসে উপদেষ্টা ও নির্বাচনী প্রচারণায় কাজ করেছেন তাদেরও ক্ষমা করবেন বলে জল্পনা রয়েছে। সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, ক্ষমা করা হবে এরকম ১শ লোকের তালিকা ট্রাম্পের কাছে রয়েছে। এদিকে বুধবার সকালেই ট্রাম্প হোয়াইট হাউস ছেড়ে ফ্লোরিডায় মার এ লাগো গলফ ক্লাবে তার নিজ বাড়িতে চলে যাবেন। বলা হচ্ছে ট্রাম্প সকালেই যাচ্ছেন কারণ প্রেসিডেন্ট হিসেবে শেষ মুহ‚র্তের সুযোগটুকু তিনি নিতে চাচ্ছেন। বুধবার দুপুরে বাইডেনের শপথ নেওয়ার মধ্যদিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে বহনকারী বিমান ট্রাম্প আর ব্যবহার করতে পারবেন না। অপর দিকে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার প্রথম দিনই জো বাইডেন নতুন অভিবাসন আইনের প্রস্তাব আনার পরিকল্পনা করেছেন, যা বাস্তবায়িত হলে সে দেশে বসবাসরত ১ কোটি ১০ লাখ অনিবন্ধিত অভিবাসীর আট বছরের মধ্যে বৈধ হওয়ার পথ খুলবে। আর এর মধ্য দিয়ে ট্রাম্প প্রশাসনের কঠোর অভিবাসন নীতি বদলে দিতে জো বাইডেনের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের কাজ শুরু হবে বলে ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। বুধবার বাইডেনের অভিষেকের মধ্য দিয়ে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ঝঞ্ঝামুখর চার বছরের মেয়াদের ইতি ঘটতে যাচ্ছে। ট্রাম্পের সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের যেসব নীতি বদলে ফেলা হয়েছিল, সেগুলো আবার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি করোনাভাইরাস মহামারী শুরুর আগে থেকেই দিয়ে আসছিলেন বাইডেন। ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভিষিক্ত হওয়ার কয়েক সপ্তাহের মধ্যে অভিবাসনের নিয়ম বদলাতে তৎপর হন রিপাবলিকান ট্রাম্প। সে সময় সাতটি মুসলিম প্রধান দেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ঢোকার পথ বন্ধ হয়ে যায়। বর্তমানে মেট ১৩টি দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র সফরে কড়াকড়ি চলছে। তার উত্তরস‚রি বাইডেন দায়িত্বের প্রথম দিনই সাত মুসলিম দেশের যুক্তরাষ্ট্র প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে নতুন নির্বাহী আদেশ দেবেন বলে তার হবু চিফ অব স্টাফ রন ক্লেইন আগেই জানিয়েছিলেন। অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে ট্রাম্প মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের যে কাজ শুরু করেছিলেন, তা আর এগিয়ে নেওয়া হবে না প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বাইডেন। তার বদলে সীমান্তে অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে প্রযুক্তি ব্যবহারের ওপর জোর দিচ্ছেন তিনি। তার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, বাইডেন ‘স্মার্ট বর্ডার এনফোর্সমেন্টে’ অর্থ ব্যয় করবেন। বন্দর ও সীমান্তের প্রবেশ পথগুলোতে স্ক্রিনিং জোরদার করতে তহবিল যোগাবেন। ওয়াশিংটন পোস্ট লিখেছে, বাইডেনের নতুন অভিবাসন আইনের প্রস্তাব বুধবারই কংগ্রেসে পাঠানো হবে। মধ্য আমেরিকা থেকে যুক্তরাষ্ট্রমুখী অভিবাসনের ম‚ল কারণগুলো খতিয়ে দেখার ওপর জোর দেওয়া হবে সেখানে। সিএনএন, রয়টার্স, ওয়াশিংটন পোস্ট।

 



 

Show all comments
  • Forhad Hossain Sikder ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ১:১৭ এএম says : 0
    মোড়ক পরিবর্তন হলো, ভিতরের স্বাদ অপরিবর্তিত। তাদের পররাষ্ট্রনীতি এক ও অভিন্ন।
    Total Reply(0) Reply
  • Aminur Islam ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ১:২২ এএম says : 0
    Good wish
    Total Reply(0) Reply
  • Abdul Jalil ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ১:২১ এএম says : 0
    সব ঠিক থাকবে যদি নিজের দেশ নিয়ে ভাবে। যেমন অন্য দেশের মোড়ল না হওয়া, যুদ্ধের হুমকি না দেওয়া, এগুলো থেকে বিরত থাকলেই সব ঠিক।
    Total Reply(0) Reply
  • Khairul Islam ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ১:২৭ এএম says : 0
    মুসলিমদের ভুলে গেলে চলবে না এই বাইডেনই ছিলেন ওবামার রানিংমেট ।
    Total Reply(0) Reply
  • Farhana Mahmud ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ১:২৮ এএম says : 0
    আমেরিকার রাষ্ট্র ক্ষমতায় যে বা যারাই আসুক তাদের মূল নীতি সাধারণত একই থাকে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাইডেন

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ